• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • TRIPURA CM BIPLAB KUMAR DEB MAKES NARROW ESCAPE FROM ACCIDENT BJP SAYING PLANNED ATTACK SANJ

Tripura CM : বড় দুর্ঘটনা থেকে বাঁচলেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব, 'রাজনৈতির ষড়যন্ত্র' বলছে বিজেপি...

দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা Photo : File Photo

Tripura CM : আচমকাই দেখা যায় একটি গাড়ি অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ছুটে আসছে বিপ্লব কুমার দেবের (Biplab Kumar Deb) দিকে। পুলিশ সূত্রে খবর, আইজিএম চৌমুহনী এলাকার ঘটনা।

  • Share this:

    #ত্রিপুরা : বৃহস্পতিবার রাতে হেঁটেই নাইট কার্ফুর পরিস্থিতি দেখতে বেরিয়েছিলেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী(Tripura CM) বিপ্লব দেব(Biplab Kumar Deb)। তাঁর দেহরক্ষী ও বিশাল পুলিশ বাহিনীও ছিল সঙ্গে। মোটের উপর ফাঁকা ছিল রাস্তা। আচমকাই দেখা যায় একটি গাড়ি অত্যন্ত দ্রুতগতিতে ছুটে আসছে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের (Biplab Kumar Deb) দিকে। পুলিশ সূত্রে খবর, গাড়িটিকে বেপরোয়াভাবে আসতে দেখে দেহরক্ষী চিৎকার করে ওঠেন। এরপর মুখ্যমন্ত্রী কার্যত লাফ দিয়ে ফুটপাতে উঠে পড়েন। এর জেরে তিনি অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান বলে মনে করা হচ্ছে। কার্যত তাঁর গা ঘেঁষে গাড়িটি বেরিয়ে যায়। এরপরই এই ঘটনায় ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

    পুলিশ সূত্রে খবর, ঘটনাটি ঘটেছে আগরতলার আইজিএম চৌমুহনী এলাকায়। প্রতিদিনের মতোই এদিন নিজের বাসভবনের কাছাকাছি রাস্তায় নাইট কারফিউ পরিদর্শনে বেরিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই সময় তাঁকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে একটি গাড়ি। তবে সজাগ দেহরক্ষীর তৎপরতায় প্রাণে বাঁচেন তিনি। বিপদ দেখে চিৎকার করে ওঠেন মুখ্যমন্ত্রীর দেহরক্ষী। ফলে মুহূর্তের মধ্যে ফুটপাতের পাশে ঝাঁপিয়ে পড়ে প্রাণ বাঁচান বিপ্লব দেব। ঘটনার পরই 'হামলাকারীদের' খুঁজে বের করতে তল্লাশি অভিযান শুরু করে পুলিশ। এরপরেই ওই এলাকা থেকে গাড়ি ও তিন আরোহীকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

    অভিযোগ ইচ্ছাকৃতভাবেই দুর্ঘটনা ঘটাতে চেয়েছিল গাড়ির চালক। তবে কেন আচমকা মুখ্যমন্ত্রীকে পিষে দিতে চাইছিল গাড়িটি, সেই প্রশ্নের উত্তর খুঁজছেন গোয়েন্দারা। এর নেপথ্যে বড়সড় কোনও ষড়যন্ত্র রয়েছে কি না, তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ। জানা গিয়েছে, গাড়িটির নম্বর প্লেটটি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। ঘটনার সময় গাড়ির ভেতরে থাকা তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ধৃতদের নাম আমন সাহা, শুভম সাহা ও গৈরিক সাহা। ঘটনার সময় গৈরিক গাড়ি চালাচ্ছিলেন বলে পুলিশের দাবি।

    কিন্তু কেন এইভাবে বেপরোয়াভাবে গাড়ি চালানো হচ্ছিল তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। মুখ্যমন্ত্রীকে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে তাদের বিরুদ্ধে। এদিকে গোটা ঘটনায় ত্রিপুরা বিজেপির দাবি, এর পেছনে রাজনৈতির ষড়যন্ত্র থাকতে পারে। তবে পুলিশ গোটা বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে দেখছে।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: