corona virus btn
corona virus btn
Loading

সরকারি চাকরি খোঁজা ছেড়ে বেকার যুবকদের পানের দোকান খোলার পরামর্শ বিপ্লব দেবের

সরকারি চাকরি খোঁজা ছেড়ে বেকার যুবকদের পানের দোকান খোলার পরামর্শ বিপ্লব দেবের
Biplab Deb
  • Share this:

#আগরতলা: অব্যাহত ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বেলাগাম মন্তব্য। মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট থেকে শুরু করে, বিশ্বসুন্দরী ডায়না হেডেনের শিরোপা নিযে প্রশ্ন, সিভিল ইঞ্জিয়ারদের সিভিল সার্ভিসে বসার পরামর্শ একের পর এক আলপটকা মন্তব্য করে দলের অস্বস্তি বাড়িয়ে চলেছেন ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব। সেই তালিকায় এবার নয়া সংযোজন রাজ্যের বেকার ছেলেদের সরকারি চাকরি না খুঁজে পানের দোকান খোলার পরামর্শ ।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চপ ভাজা শিল্পের পথ ধরেই রাজ্যের বেকার যুবকদের পানের দোকান খোলার পরামর্শ দিলেন ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী। শনিবার একটি অনুষ্ঠানে রাজ্যের বেকার যুবক-যুবতীদের জন্য কর্মসংস্থান নিয়ে বক্তব্য রাখছিলেন বিপ্লব দেব। সেসময় তিনি বলেন, ‘রাজ্যের শিক্ষিত অথচ বেকার যুবক-যুবতীরা সরকারি চাকরি পাওয়ার আশায় কিছু না করে বসে আছেন । যেন-তেন প্রকারে একটা সরকারি চাকরি পেতে নেতা-মন্ত্রীদের পিছনে ঘুরে সময় নষ্ট করছেন।’ তাদের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর নিদান, প্রধানমন্ত্রী মুদ্রা যোজনায় আর্থিক সাহায্য নিয়ে পানের দোকান বা পোলট্রি খামারের মতো ছোট ছোট ব্যবসা খুললেও মাসে পঁচিশ হাজার টাকা পর্যন্ত রোজগার হতে পারে।

আরও পড়ুন সরকারি পরীক্ষায় বসার সুযোগ পেল গাধাও! কাণ্ড দেখে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া

ব্যবসা করে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর বদলে যুব সমাজের সরকারি চাকরির প্রতি এমন মোহের জন্য বিজেপি মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব পূর্বতন বাম সরকারকেই দায়ী করেছেন।সদ্য রাজ্যে ২৫ বছরের বাম শাসনের অবসান ঘটিয়ে বিপ্লব দেবের নেতৃত্বে ক্ষমতায় এসেছে বিজেপি-আইপিএফটি জোট৷ মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই একের পর এক বেফাঁস মন্তব্য করে চলেছেন বিপ্লব দেব৷

এর আগে তিনি বলেন, তিনি মন্তব্য করেন, ‘সিভিল সার্ভিস পরীক্ষার জন্য মেকানিক্যাল ইঞ্জিয়াররা যোগ্য নন ৷ বরং সিভিল ইঞ্জিয়ারদের সমাজ গড়ার ক্ষেত্রে সম্যক জ্ঞান রয়েছে ৷ তাই এই পরীক্ষায় সিভিল ইঞ্জিনিয়াররাই বসার যোগ্য৷’কিছুদিন আগে মহাভারতের যুগে ইন্টারনেট ছিল বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসির খোরাক হয়েছিলেন ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী। তারপর চলতি সপ্তাহেই প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী ডায়না হেডেনকে নিয়ে মন্তব্যের জেরে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়ে চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমা চাইতে বাধ্য হন ত্রিপুরার নয়া মুখ্যমন্ত্রী।

First published: April 29, 2018, 11:34 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर