• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • Tmc Arises Tripura: নিশানায় নমঃশূদ্র-মহিলা-সরকারি কর্মী ভোট, ছক কষেই ত্রিপুরা দখলের স্বপ্ন তৃণমূলের!

Tmc Arises Tripura: নিশানায় নমঃশূদ্র-মহিলা-সরকারি কর্মী ভোট, ছক কষেই ত্রিপুরা দখলের স্বপ্ন তৃণমূলের!

ত্রিপুরায় ঘর গোছাচ্ছে তৃণমূল

ত্রিপুরায় ঘর গোছাচ্ছে তৃণমূল

Tmc Arises Tripura: ত্রিপুরায় বুথস্তরে সংগঠন পোক্ত করতে হবে বলে দলীয় নেতাদের বারবার নির্দেশ দিয়েছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আর ঠিক সেই পথেই তাঁর সেনাপতি হয়ে যেন ত্রিপুরার কাজ সামলাচ্ছেন দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

  • Share this:

#আগরতলা: 'খেলা' শুরু হয়ে গিয়েছে ত্রিপুরায়। একদিনের ত্রিপুরা সফরে গিয়েই তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বুঝিয়ে দিয়েছেন এবার অন্য লড়াই। সেই সূত্রেই গাড়িতে হামলার পরও হুঁশিয়ারি দিয়ে অভিষেক জানিয়েছেন, বারবার ত্রিপুরা আসবেন না। তবে, সেই তা যে শুধুই কথার কথা নয়, 'বদলে যাওয়া' তৃণমূলের কর্মসূচিতেই তা স্পষ্ট। বুথস্তরে সংগঠন পোক্ত করতে হবে বলে দলীয় নেতাদের বারবার নির্দেশ দিয়েছেন অভিষেক। আর ঠিক সেই পথেই তাঁর সেনাপতি হয়ে যেন ত্রিপুরার কাজ সামলাচ্ছেন দলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।

বুধবার ত্রিপুরায় পা রেখেই কুণাল দেখা করতে গিয়েছিলেন প্রাক্তন সিপিএম সাংসদ তথা ত্রিপুরার প্রবাদপ্রতিম বাম নেতা অজয় বিশ্বাসের সঙ্গে। কুণালের সঙ্গে সাক্ষাৎ সেরেই অজয় বাবু বলেন, 'সিপিএমকে যারা ভরসা করতেন, সেই কৃষক, শ্রমিক, শিক্ষক, কর্মচারীরা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই নিজেদের বন্ধু ভাবছেন। পশ্চিমবঙ্গে এই কারণে সিপিএম শূন্যে নেমেছে। ত্রিপুরাতেও বামেদের পিছনে ফেলে বিজেপির মোকাবিলায় বিকল্প হিসেবে উঠে আসছে তৃণমূল। বাকিটা মানুষ বিচার করবেন।' অর্থাৎ, বামেদের ঘরে যে এবার থাবা বসাতে চলেছে তৃণমূল, তা বলাই বাহুল্য। এমনকী তৃণমূলের সঙ্গে জোট সম্ভাবনাও একেবারে উড়িয়ে দেননি ত্রিপুরার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার।

তবে, শুধু সিপিএম নয়, কুণাল ঘোষকে ত্রিপুরায় পাঠিয়ে নমঃশূদ্র, উদ্বাস্তু, সরকারি কর্মীদেরও কাছে আনার প্রয়াস চালাচ্ছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। নমঃশূদ্র বিকাশ পরিষদ ও উদ্বাস্তু সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক সেরে ট্যুইটে কুণাল লিখেছেন, 'নমঃশূদ্র বিকাশ পরিষদ ও উদ্বাস্তু সংগঠনের সঙ্গে বিধানসভা কেন্দ্রওয়াড়ি বৈঠক। তাঁরা অবহেলিত। তাঁদের থেকে মন্ত্রী নেই। বড় দায়িত্ব দেয় না বিজেপি। বাংলার মত উন্নয়নের বোর্ড নেই। ফলে চাই তৃণমূলের নেতৃত্বে মানুষের মহাজোট। হবে বুথভিত্তিক সংগঠন।' আসলে ত্রিপুরায় এবার তৃণমূল মূলত টার্গেট করতে চাইছে মহিলা ও নমঃশূদ্র ভোট। এ রাজ্যেও মহিলা ভোটের একচেটিয়া দখল করেছে তৃণমূল। সেক্ষেত্রে মূলত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখই হাতিয়ার হতে চলেছে তৃণমূলের। ইতিমধ্যেই ত্রিপুরায় আওয়াজ উঠেছে 'দিদিকে চাই'। অভিষেক নিজে গিয়ে সুর বেধে দিয়ে এসেছেন। সাম্প্রতিক সময়ে ত্রিপুরায় স্বশাসিত জেলা পরিষদের ভোটে বিপুল সাফল্য এনে দিয়েছে মহারাজা প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য (Maharaja Pradyot Kishore Manikya)। কারণ প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্যের গ্রেটার তিপ্র‍্যাল্যান্ড ইস্যু জিইয়ে রয়েছে জোরকদমে। স্বশাসিত জেলার ভোটে বিজেপি ও তাদের জোটসঙ্গী IPFT ব্যাপক ভাবে পরাস্ত হয়েছে। খেলা দেখিয়েছেন প্রদ্যোত মাণিক্য। সেই প্রদ্যোতের কাছেও হাজির কুণাল ঘোষ। আর দুজনের সেই বৈঠক ঘিরেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে ত্রিপুরার রাজনৈতিক মহলে। তৃণমূলের সঙ্গে জোটের সম্ভাবনাও এর আগে উসকে দিয়েছেন প্রদ্যোত। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূলের নেতৃত্বে মানুষের মহাজোট তৈরির ডাক দিয়েছে এ রাজ্যের শাসক দল। তাই আপতত পাখির চোখ করা হয়েছে বুথভিত্তিক সংগঠনকেই।
Published by:Suman Biswas
First published: