হোম /খবর /দেশ /
প্রদ্যোতের কাছে কুণাল ঘোষ! রাজপরিবার আর জনজাতি ভোটে বিজেপি-নাশের ছক তৃণমূলের?

Kunal Ghosh meets Pradyot Kishore Manikya: প্রদ্যোতের কাছে কুণাল ঘোষ! রাজপরিবার আর জনজাতি ভোটে বিজেপি-নাশের ছক তৃণমূলের?

নজরে ত্রিপুরা

নজরে ত্রিপুরা

Kunal Ghosh meets Pradyot Kishore Manikya: স্বশাসিত জেলার ভোটে বিজেপিকে ও তাদের জোট অংশীদার IPFT ভোটে ব্যাপক ভাবে পরাস্ত হয়েছে। সেখানে প্রদ্যোত মাণিক্য উজ্জ্বল হয়ে উঠেছেন। সেই প্রদ্যোতের কাছেই এবার হাজির কুণাল ঘোষ।

  • Last Updated :
  • Share this:

#ত্রিপুরা: তৃণমূল বলছে আগে দেখেছেন বাম। এখন দেখছেন রাম, এবার আপনারা দেখবেন কাম। ত্রিপুরায় অবশ্য বিকল্পের সন্ধান নিয়ে জোর চর্চা। আর সেখানেই ক্রমশ গুরুত্ব বাড়ছে ত্রিপুরার রাজ পরিবারের। সবার নজর বিকল্প হিসাবে কার হাত ধরেন মহারাজা প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য। আর ঠিক সেখানেই ক্রমশ দাবার দান সাজাচ্ছে ত্রিপুরা জয়ের স্বপ্ন দেখা তৃণমূল। ত্রিপুরায় বিকল্প সন্ধান করছে বিজেপি বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। সেখানে সাম্প্রতিক সময়ে স্বশাসিত জেলা পরিষদের ভোটে বিপুল সাফল্য এনে দিয়েছে মহারাজা প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য (Maharaja Pradyot Kishore Manikya)। কারণ প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্যের গ্রেটার তিপ্র‍্যাল্যান্ড ইস্যু। স্বশাসিত জেলার ভোটে বিজেপিকে ও তাদের জোট অংশীদার IPFT ভোটে ব্যাপক ভাবে পরাস্ত হয়েছে। সেখানে প্রদ্যোত মাণিক্য উজ্জ্বল হয়ে উঠেছেন। সেই প্রদ্যোতের কাছেই এবার হাজির কুণাল ঘোষ। আর দুজনের সেই বৈঠক ঘিরেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে ত্রিপুরার রাজনৈতিক মহলে।

ত্রিপুরায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের(Abhishek Banerjee) গাড়ির ওপরে হামলার ঘটনাতেও তীব্র নিন্দা প্রকাশ করেছেন ত্রিপুরার রাজ পরিবারের সদস্য, তিপ্রামোথার সুপ্রিমো মহারাজ প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য। ত্রিপুরার ঐতিহ্য, সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে বলে ইতিমধ্যেই অভিযোগ করেছেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়(Abhishek Banerjee)। সেই অভিযোগে সহমত পোষণ করেছেন মহারাজ৷ তাঁর কথায়, গত ৪০ বছর ধরে ত্রিপুরার গৌরব আর ঐতিহ্য নষ্ট হয়েছে।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়(Abhishek Banerjee) ত্রিপুরায় দাঁড়িয়ে জানিয়ে এসেছেন, বিজেপি বিরোধী সব শক্তিকে একজোট হতেই হবে। তাহলে কি সেই জোটে হাত মেলাবে তিপ্রামোথা? প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, "বামেরা ছাড়া সকলের সঙ্গেই জোট হতে পারে। কোনও ভাবেই আমরা বামেদের দিকে যাব না।" এরপরই তৃণমূল মুখপাত্রের তাঁর বাড়িতে যাওয়া বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

ত্রিপুরা রাজ্যের আনাচে কানাচে এখন গ্রেটার তিপ্র‍্যাল্যান্ডের দাবি মাথাচাড়া দিচ্ছে। আর তা ঘটছে প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্যের নেতৃত্বেই। হিসাব বলছে, ত্রিপুরায় ৩১% জনজাতি ভোট। ৬৯% ভোট বাঙালি ভোট। এই জনজাতি ভোট ত্রিপুরার ২০ বিধানসভা আসনে সংরক্ষিত। যার ওপর সরকার গঠন নির্ভর করে৷ একটা সময় জনজাতিদের ভোট ছিল বামেদের দিকে। পরবর্তী সময়ে বামেদের সেই ভোট চলে যায় IPFT এর দিকে। কিন্তু সরকারে আসার পরে তিপ্র‍্যাল্যান্ডের দাবি নিয়ে চুপ বিজেপি৷ তাই দোটানায় IPFT-ও। স্বশাসিত জেলা পরিষদের ভোটের আগে এই নিয়ে সরব হয়েছিল তারা। কিন্তু অজানা কারণে ফের সে চুপ। আর এই জনজাতি ভোটকে হাতিয়ার করেই এগোচ্ছে প্রদ্যোত কিশোর মাণিক্য। আর তাতেই সঙ্গ দিতে চলেছে তৃণমূল? জোর জল্পনা তৃণমূলের রাজনৈতিক মহলে।

Published by:Suman Biswas
First published: