Tripura Politics: বিজেপির সহ সভাপতির কাছে মমতার দূত! দলবদল? তোলপাড় ত্রিপুরায়

এই সাক্ষাতেই শোরগোল!

Tripura Politics: সরগরম পরিস্থিতিতে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন দেখা করলেন ত্রিপুরা বিজেপির সহ সভাপতি অশোক দেববর্মার সঙ্গে। এর পরেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে ত্রিপুরায়৷

  • Share this:

#আগরতলা: বাংলা জিতে ত্রিপুরাকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল। আর সেই সূত্রেই ত্রিপুরায় কার্যত কোমর বেঁধে নেমেছে এ রাজ্যের শাসক দল। সিপিএম, কংগ্রেস এমনকী বিজেপি ছেড়েও অনেকে তৃণমূলে যোগ দিতে ইচ্ছুক, গত কয়েকদিন ধরে এমনই দাবি করে চলেছে ত্রিপুরা তৃণমূলের (Tripura Tmc) শীর্ষ নেতারা। তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দোপাধ্যায় নিজে সম্প্রতি জানিয়েছেন, ত্রিপুরার পাঁচ বারের বিধায়ক তথা প্রাক্তন অধ্যক্ষ জিতেন সরকার (Jiten Sarkar) যোগাযোগ রাখছেন তৃণমূলের সঙ্গে৷ এমনই এক সরগরম পরিস্থিতিতে তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদ শান্তনু সেন দেখা করলেন ত্রিপুরা বিজেপির সহ সভাপতি অশোক দেববর্মার সঙ্গে। এর পরেই জোর চর্চা শুরু হয়েছে ত্রিপুরায়৷

সত্যিই কি জিতেন সরকারের পর এবার দলের সহ সভাপতিও যোগ দিতে চলেছেন তৃণমূলে? শান্তনু সেন অবশ্য বলছেন, এ নিখাদই সৌজন্য সাক্ষাৎ। তবে, তাতেও জল্পনা থেমে থাকছে না। দল ভাঙনের আশঙ্কায় কাঁপছে গেরুয়া শিবিরও।

ইতিমধ্যেই সুবল ভৌমিকের মতো কংগ্রেস নেতা নাম লিখিয়েছেন ঘাসফুল শিবিরে। ত্রিপুরার প্রাক্তন অধ্যক্ষ এবং পাঁচ বারের বিধায়ক জিতেন সরকারের তৃণমূলে আসা পাকা হয়ে উঠছে। আসলে জিতেন সরকারের দলবদল নিয়ে শোরগোলের কারণ স্বয়ং বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মন্তব্য। সম্প্রতি নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক থেকেই জিতেন সরকারের নাম আনেন মমতা। জানান, ত্রিপুরার প্রাক্তন অধ্যক্ষ এবং পাঁচ বারের বিধায়ক জিতেন সরকার তাঁর বেশ কিছু অনুগামীকে নিয়ে তৃণমূলে যোগ দিতে চেয়ে তাঁকে চিঠি দিয়েছেন৷

এই পরিস্থিতিতে একেবারে ত্রিপুরা বিজেপির সহ সভাপতির সঙ্গে তৃণমূল সাংসদের সাক্ষাৎ তোলপাড় ফেলে দিয়েছে। যদিও অশোক দেববর্মা নিজে এ বিষয়ে এখনও মুখ খোলেননি। তাতে অবশ্য জল্পনা থেমে থাকছে না। সম্প্রতি ব্রাত্য বসুও ত্রিপুরা গিয়ে সমস্ত রাজনৈতিক দলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে বার্তা দিয়ে বলেছেন, 'তৃণমূলই ত্রিপুরায় ভবিষ্যৎ। আপনারা আমাদের সঙ্গে আসুন।' তবে, এবার কোন কর্মী নন, একেবারে রাজ্য বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে পৌঁছে গেলেন তৃণমূল সাংসদ। যা নিঃসন্দেহে ত্রিপুরার রাজনীতিতে শোরগোল ফেলে দিয়েছে।

Published by:Suman Biswas
First published: