Home /News /national /
TMC boycots all party meeting: চোখে ধুলো দিচ্ছে মোদি সরকার, অভিযোগ তুলে সর্বদল বৈঠক বয়কট তৃণমূলের

TMC boycots all party meeting: চোখে ধুলো দিচ্ছে মোদি সরকার, অভিযোগ তুলে সর্বদল বৈঠক বয়কট তৃণমূলের

প্রতীকী ছবি৷

প্রতীকী ছবি৷

সম্প্রতি অসংসদীয় শব্দ তালিকা এবং সংসদ চত্বরে ধরনা বিক্ষোভে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় ক্ষুব্ধ তৃণমূল।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: লোকসভার অধ্যক্ষের ডাকা সর্বদল বৈঠক বয়কটের পর এবার সংসদের অধিবেশন শুরু হওয়ার আগে সরকারের ডাকা সর্বদল বৈঠক সর্বদল বৈঠক বয়কট করল তৃণমূল। জোড়া ফুল শিবিরের দাবি, বিরোধীদের অধিকার ছিনিয়ে নেওয়ার পর এই সর্বদল বৈঠক শুধুমাত্র চোখে ধুলো দেওয়া ছাড়া আর কিছুই নয়।

তৃণমূলের রাজ্যসভার নেতা ডেরেক ও ব্রায়েন আজ টুইট করে সর্বদল বৈঠক বয়কট করার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন। টুইটারে তিনি লিখেছেন, 'সংসদে জনসাধারণের সঙ্গে যুক্ত ইস্যু নিয়ে আলোচনা করতে দেয় না কেন্দ্রীয় সরকার। সংসদীয় গণতন্ত্রের অপমান করে চলেছে তারা। অধিবেশন শুরুর আগে সর্বদল বৈঠক এটি লোক দেখানো বিষয়। আমরা সব বিষয়ে আলোচনা চাই বলে ছবি তুলবেন প্রধানমন্ত্রী মোদি। তারপরে বিরোধীদের দাবি অগ্রাহ্য করা হবে।'

আরও পড়ুন: "দ্রৌপদী মুর্মুকে শ্রদ্ধা করি, তবে...": রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে কাকে সমর্থন জোগাবে আম আদমি পার্টি?

এমনিতেই সম্প্রতি অসংসদীয় শব্দ তালিকা এবং সংসদ চত্বরে ধরনা বিক্ষোভে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায় ক্ষুব্ধ তৃণমূল। সোমবার শুরু হচ্ছে সংসদের বাদল অধিবেশন। এবারের বাদল অধিবেশনে একগুচ্ছ বিল পাস করাতে চায় মোদি সরকার। তার মধ্যে রয়েছে বিদ্যুৎ সংশোধনী বিল, প্রেস এন্ড রেজিস্ট্রেশন অফ পেরিওডিক্যালস বিল, খনি এবং খনিজ উন্নয়ন এবং নিয়ন্ত্রণ সংশোধনী বিল, দেউলিয়া এবং ঋণখেলাপি সংশোধনী বিল, প্রত্নতত্ত্ব বিষয়ক বিল এবং বিশেষ অর্থনৈতিক এলাকা বা সেজ সংশোধনী বিল।

আরও পড়ুন: আসতে পারে অনেক বড় বদল! বাদল অধিবেশনে ২৪ বিল আনছে মোদি সরকার

তবে যে বিলগুলি পাস হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বন সংরক্ষণ সংশোধনী আইন বিল। এই বিলটি নিয়েই সংসদের ঝড় তুলতে পারে বিরোধীরা। ইতিমধ্যেই আদিবাসীদের থেকে জঙ্গলের অধিকার কেড়ে নিয়েছে মোদি সরকার। সম্মতি না নিয়েই জঙ্গল কেটে ফেলার রাস্তা করে দিল মোদি সরকার। এবার তাঁদের অজ্ঞাতেই জঙ্গল কেটে ফেলতে পারবে বেসরকারি সংস্থাগুলি।

২০০৩- এর আইন বদল করে বন সংরক্ষণ আইন ২০২২- এর বিজ্ঞপ্তি জারি করল কেন্দ্রীয় সরকার। নয়া আইনে বলা হয়েছে, এবার থেকে জঙ্গলের জমি বিভিন্ন রকম পরিকাঠামো এবং নানান উন্নয়নমূলক কাজে ব্যবহার করা হবে। এছাড়াও আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ বদল এনেছে মোদি সরকার। আগে জঙ্গল কাটতে হলে সেখানকার বসবাসকারী আদিবাসী এবং অন্যান্য সম্প্রদায়কে রাজি করাতে হত। পুরানো আইন অনুযায়ী, এই কাজের দায়িত্ব কেন্দ্রীয় সরকারের। যদিও বদল করা আইনে এই দায়িত্ব চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে রাজ্য সরকারের উপরে।

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: TMC

পরবর্তী খবর