corona virus btn
corona virus btn
Loading

টাকা কেচে রোদে দিতেন, বাচ্চাদের সারাদিন স্নান করাতেন! বাতিকগ্রস্থ স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী স্বামী

টাকা কেচে রোদে দিতেন, বাচ্চাদের সারাদিন স্নান করাতেন! বাতিকগ্রস্থ স্ত্রীকে খুন করে আত্মঘাতী স্বামী

শান্তামূর্তি এবং পুত্তামনির বিয়ে হয়েছিল ১৫ বছর আগে ৷ তাঁদের সাত ও বারো বছরের দু’টি সন্তানও রয়েছে ৷

  • Share this:

#মহীশূর: স্ত্রীর বাতিক আর কুসংস্কারের জ্বালা সহ্য করতে না পেরে তাঁকে খুন করে নিজে আত্মঘাতী হলেন স্বামী ৷ ঘটনাটি ঘটেছে কর্নাটকের মহীশূরে ৷ শান্তামূর্তি এবং পুত্তামনির বিয়ে হয়েছিল ১৫ বছর আগে ৷ তাঁদের সাত ও বারো বছরের দু’টি সন্তানও রয়েছে ৷ কিন্তু সুখ ছিল না এই পরিবারে ৷ তার একমাত্র কারণ পুত্তামনির অতিরিক্ত বাতিকগ্রস্থতা ৷ বিয়ের পর পর ব্যপারটা এত মাত্রাতিরিক্ত ছিল না ৷ কিন্তু প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন, বছর আষ্টেক ধরে পুত্তামনি যেন অন্য মানুষ হয়ে গিয়েছিলেন ৷ তাঁর বাতিক এমন জায়গায় পৌঁছেছিল যে, সারাদিনে বাচ্চাদের অসংখ্যবার স্নান করাতেন ৷ স্বামী বাজার থেকে টাকা নিয়ে এলে সেই টাকা আগে কেচে রোদে শুকাতে দিতেন, তারপর ঘরে তুলতেন ৷ অন্য জাতের ছোঁয়া নিয়েও প্রবল আপত্তি ছিল তাঁর ৷ বাড়িতে অদ্ভুত নিয়ম বানিয়েছিলেন ৷ বাথরুমে গেলে, বাইরে থেকে ফিরলে, গবাদি পশুকে খেতে দিলে স্নান করতে হবে ৷ এমনকি বাড়িতে কেউ এলে তাঁকেও আগে স্নান করে তারপর ঘরে ঢুকতে হত ৷

এই নিয়ে স্বামী শান্তামূর্তির সঙ্গে নিত্যদিন অশান্তি লেগেই থাকত পুত্তামনির ৷ মঙ্গলবার এই নিয়ে দু’জনের মধ্যে প্রবল অশান্তি বাঁধে ৷ রাগের চোটে ধারাল অস্ত্র দিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে নিজেও গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন শান্তামূর্তি ৷ স্কুল থেকে বাড়ি ফিরে সন্তানরা বাবাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পায় ৷ সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় স্থানীয় থানায় ৷ পুলিশ এসে বাড়ির পাশের ক্ষেত থেকে পুত্তামনির ক্ষতবিক্ষত দেহ উদ্ধার করে ৷

First published: February 20, 2020, 8:43 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर