দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

মুম্বই থানার আতিথেয়তায় দারুণ খুশি, Google-এ ফাইভ স্টার রেটিং আসামির

মুম্বই থানার আতিথেয়তায় দারুণ খুশি, Google-এ ফাইভ স্টার রেটিং আসামির

থানা নিয়ে এই রিভিউটি লিখেছেন এক আসামি

  • Share this:

#মুম্বই: মুম্বইয়ের (Mumbai) এক পুলিশ স্টেশনের ঘটনা। থানার আতিথেয়তায় খুশি হয়ে Google-এ সংশ্লিষ্ট পুলিশ স্টেশনটিকে ফাইভ স্টার রেটিং দিল এক আসামি। সঙ্গে ভূরি ভূরি প্রশংসাও। পরে সেই রিভিউকে স্বাগত জানিয়েছেন পুলিশ কর্তারাও। নিজেদের Twitter-এ শেয়ার করেছেন থানার রিভিউ। যা ইতিমধ্যেই ব্যাপকমাত্রায় ভাইরাল হয়েছে। এ বার বিশদে জেনে নেওয়া যাক গল্পটি।

মজার বিষয়টি হল, থানা নিয়ে এই রিভিউটি লিখেছেন এক আসামি (Detainee)। মাস পাঁচেক আগে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল মনসুরি আবেশ নামে ওই ব্যক্তিকে। নির্দিষ্ট সময় জেলে কাটানোর পর জেল সম্পর্কে রিভিউ দিয়েছেন তিনি। লিখেছেন, গ্রেফতার হওয়ার পর মুম্বইয়ের মিরা-ভয়ন্ডর এলাকার ওই নয়া নগর পুলিশ স্টেশনে (Naya Nagar Police Station) দিন কাটিয়েছিলেন তিনি। প্রতিটি সেলই খুব ভালো ছিল। প্রত্যেক পুলিশ অফিসারও তাঁর সঙ্গে ভালো ব্যবহার করেছেন। অফিসাররা দয়ালু হলেও হ্যান্ডকাফটা বড্ড টাইট ছিল। এ কথাও অকপটে স্বীকার করেছেন তিনি। একদম শেষে আবেশ লিখেছেন, যদি সুযোগ দেওয়া হয়, তিনি আবার পুলিশ স্টেশন যেতে রাজি!

সম্প্রতি সেই বিস্তারিত রিভিউ (Review) নিজের ট্যুইট অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেন IPS অফিসার সন্তোষ সিং। ছবির সঙ্গে লেখেন, থানা এতটাই ভালো যে মানুষজন দ্বিতীয়বার গ্রেফতার হয়ে আসতে চায়- How do you assess it! মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় পোস্টটি। ১২ ডিসেম্বরের এই পোস্ট ২০০০-এর বেশি লাইক পড়েছে।

এর পর ট্যুইটার (Twitter) ইউজাররা একের পর এক মজার কমেন্ট করতে শুরু করেন। কেউ বলছেন, যিনি পুলিশ স্টেশনের (Police Station) রিভিউ দিয়েছেন, তাঁকে দ্বিতীয়বার সেখানে যাওয়ার সুযোগ দিয়ে পুরস্কৃত করা উচিৎ। কেউ কেউ আবার মজা করে বলছেন, পুলিশ স্টেশনে কি WiFi-এর বন্দোবস্ত রয়েছে ? জেলের (Jail) বন্দীদের বিলাসবহুল থাকা বা খাওয়া-দাওয়া নিয়েও সওয়াল করেছেন অনেকে।

একজন লিখেছেন, আশা করছি এটা আবার ট্রেন্ড হয়ে যাবে না। এ বার থেকে যেন Uber বা Zomato-র মতো রেটিংয়ের জন্য আবার জিজ্ঞাসা না করে বসে থানাগুলি। একজনের মন্তব্য, সত্যি খুব ভালো লোকজন। পুলিশ স্টেশনকেও ৩.৪ স্টার রেটিং দেওয়া হয়েছে। এর মানে হল মেরা দেশ বদল রহা হ্যায়। এই সবের মাঝে একজনের কমেন্ট বেশ নজর কেড়েছে। তিনি লিখেছেন, হ্যান্ডকাফের (Handcuffs) সমস্যাটা তাড়িতাড়ি সমাধান করতে হবে। অফিসার ইন-চার্জ যেন এ দিকে নজর দেন। আর জেলটিকে ক্রিমিনাল ফ্রেন্ডলি করে তোলার চেষ্টা করেন।

তবে এই পোস্টে সবাই অবশ্য একমত নন। এক ট্যুইট ব্যবহারকারীর অভিযোগ, এই পুলিশ স্টেশনে কোনও কেসের ঠিকঠাক তদন্ত হয় না। তাঁর কথায়, এই একই পুলিশ স্টেশনে একটি সাইবার ক্রাইম কেস করেছিলেন তিনি। প্রায় ছয় মাস কেটে গিয়েছে। কিন্তু থানার কেউই কোনও রকম সদিচ্ছা দেখাননি। অভিযুক্তরা এখনও বহাল তবিয়তে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। নানারকম প্রতারণার কাজ করে বেড়াচ্ছেন। কিন্তু পুলিশরা সেই সব কাজ ছেড়ে সোশ্যাল মিডিয়া (Social Media) পোস্টে মজেছেন। জেল ভিজিট রিভিউ নিয়ে ব্যস্ত তাঁরা!

Published by: Ananya Chakraborty
First published: December 18, 2020, 1:12 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर