হমারা বাজাজ থেকে ওয়াশিং পাউডার নির্মা; ৯০ দশকের বিজ্ঞাপনের গান গেয়ে খদ্দের মাতাচ্ছেন রেস্তোরাঁর গায়করা

হমারা বাজাজ থেকে ওয়াশিং পাউডার নির্মা; ৯০ দশকের বিজ্ঞাপনের গান গেয়ে খদ্দের মাতাচ্ছেন রেস্তোরাঁর গায়করা

নব্বইয়ের দশকের গান বা বিজ্ঞাপন মানেই বর্তমানে আমাদের কাছে একটা নস্টালজিয়া

নব্বইয়ের দশকের গান বা বিজ্ঞাপন মানেই বর্তমানে আমাদের কাছে একটা নস্টালজিয়া

  • Share this:

#গোয়া:  নব্বইয়ের দশকের গান বা বিজ্ঞাপন মানেই বর্তমানে আমাদের কাছে একটা নস্টালজিয়া। গানই হোক বা বিজ্ঞাপনের জিঙ্গল, সবটাই যেন এখনও মনে গেঁথে আছে। আর সেই গান বা জিঙ্গলই যদি কেউ শোনায়, মন্দ হয় না। উল্টে একটু হলেও সেই পুরনো দিনে ফিরে যাওয়ার সুযোগ পাওয়া যায়।

বর্তমানে এমন অনেক ব্যান্ড আছে বা সুরকার আছেন, যাঁরা নব্বইয়ের দশকের গান নিয়ে নতুন নতুন কাজ করছেন। অনেক সময়ে সেই গানে একটু নতুন কিছু করে গানটিকে নতুন আকারে আনা হচ্ছে। অনেক সময়ে কিছুটা অংশ একই রেখে বাকিটা পালটানো হচ্ছে। নতুন গান ভালো লাগলেও অনেকেরই সেই পুরনো গান বা সুরই পছন্দ। ফলে সেই সব গান যদি কেউ শোনায়, তা হলে তা অনেকেরই পছন্দ হয়।

এমনই সুযোগ পেয়েছিলেন গোয়ার এক রেস্তোরাঁর লোকজন। হুক্কা, স্ন্যাক্স সঙ্গে নব্বই দশকের পরিচিত বিজ্ঞাপনের গান দারুণ মুহূর্ত তৈরি করেছিল। সেই ভিডিও সম্প্রতি শেয়ার করা হয় আল্পনা জলি নামের একটি প্রোফাইল থেকে। যা পোস্টের সঙ্গে সঙ্গেই কার্যত ভাইরাল হয়।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, অতি পরিচিত নব্বই দশকের জিঙ্গল একনাগাড়ে গেয়ে চলেছে একটি ব্যান্ড এবং সমস্ত বয়সের মানুষজন তা উপভোগ করছেন। ওয়াশিং পাউডার নির্মা থেকে সৌন্দরিয়া সাবুন নির্মা সবই শোনা যায় সেই ভিডিওতে। শোনা যায়, জনপ্রিয় পান পরাগ পান মশালা, লাইফবয় হ্যায় জাহাঁ- তন্দুরুস্তি হ্যায় ওয়াহাঁ, ভিকো টারমারিক আয়ুর্বেদিক ক্রিম, নিমা রোজ-নিমা রোজ, ম্যাগি বা হামারা বাজাজের মতো জিঙ্গলও।

Indian Express-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, ভিডিওটি গোয়ার টমেটো'স গার্ডেন কিচেন অ্যান্ড বারে তোলা হয়েছে। ভিডিওতে যাঁকে গাইতে শোনা যাচ্ছে তিনি ইমতিয়াজ।

ভিডিওটির ক্যাপশনে লেখা হয়, শ্রোতাকে মনমুগ্ধ করেছে তাঁর এই পারফরম্যান্স। কিন্তু শুধু শ্রোতাকেই নয়, সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে হাজার হাজার মানুষের মন জিতে নিয়েছেন ইমতিয়াজ ও তাঁর টিম। ভিডিওটি পোস্ট হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। ৩৩ হাজার বার রিট্যুইট হয়। ১৮০০ লাইক আসে।

অনেকেই ইমতিয়াজের গানের গলার সঙ্গে বিখ্যাত গায়ক অভিজিৎ ভট্টাচার্যের (Abhijeet Bhattacharya) গলার তুলনা করেছেন।

অনেকে বলছেন, এই গান সত্যিই এন্টারটেইন করার মতোই।

একজন আবার বলেছেন, খুবই নস্টালজিক লাগল গানটা শুনে। তিনি আবার উল্লেখ করেন, এখনকার বিজ্ঞাপন অদ্ভুত, তা মনে রাখার মতো নয়।

একজন আলপনা নামে ওই সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীকে ধন্যবাদও জানিয়েছেন এই ধরনের ভিডিও পোস্ট করার জন্য।

একজন আবার লিখেছেন, এখনকার বিজ্ঞাপন বা গানগুলির চেয়ে অনেকাংশে ভালো পুরনো গান। এখনও মন ভরে যায় শুনলে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published:

লেটেস্ট খবর