corona virus btn
corona virus btn
Loading

রাস্তাই নেই, অন্তঃসত্ত্বাকে কাঁধে চড়িয়ে ৯ কিলোমিটার দূরে হাসপাতালে গেলেন ওঁরা

রাস্তাই নেই, অন্তঃসত্ত্বাকে কাঁধে চড়িয়ে ৯ কিলোমিটার দূরে হাসপাতালে গেলেন ওঁরা
চলছে অন্তঃসত্ত্বা ওই মহিলাকে গ্রামে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি।

অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়নাগ্রামে রাস্তায় নেই, অ্যাম্বুলেন্স তো অনেক পরে কথা। তারই মাশুল দিলেন কস্তুরীদেবী।

  • Share this:

#অন্ধ্রপ্রদেশ: রাতবিরেতে কেউ অসুস্থ হলে অপেক্ষা করতে হবে সকাল পর্যন্ত। সকালে অন্যের কাঁধে চেপে শুরু হবে হাসপাতাল যাত্রা। এই পর্যন্ত পড়েই নিশ্চয়ই মনে হবে, কেন অ্যাম্বুলেন্স! অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়নাগ্রামে রাস্তায় নেই, অ্যাম্বুলেন্স তো  অনেক পরে কথা। তারই মাশুল দিলেন কস্তুরীদেবী।

এই গ্রামেরই বাসিন্দা কস্তুরীদেবী অন্তঃসত্ত্বা। বৃহস্পতিবার তাঁর গর্ভযন্ত্রণা শুরু হয়। তাড়াহুড়োর মধ্যেই গ্রামের আদিবাসীরা বাঁশের অস্থায়ী খাট বাঁধা শুরু করেন। সেই খাটে কস্তুরীকে শুইয়ে পায়ে হেঁটেই হাসপাতালে রওনা হন গ্রামবাসীরা।

এক দুই কিলোমিটার নয়। ৯ কিলোমিটারের দীর্ঘযাত্রা শেষে কস্তুরীদেবী দাব্বাঘণ্টা জনপদে পৌঁছন। সেখানেও দেখা মেলেনি অ্যাম্বুলেন্সের অগত্যা একটি অটোয় চেপে হাসপাতালে রওনা হন তাঁরা। হাসপাতালে যখন পৌঁছেছেন, কস্তুরী ও তাঁর গর্ভের সন্তানের অবস্থা তখন আশঙ্কাজনক। আপাতত তাঁরা চিকিৎসাধীন। কিন্তু ক্ষোভে ফেটে পড়ছে গ্রাম।

এই প্রথম নয়। গত ১৫ দিনে তিনবার এই ধরনের ঘটনার শিকার হল অন্ধ্রর এই গ্রামের লোকেরা। কোনও রকম সরকারি পরিষেবা না পেয়ে কাঁধে চড়িয়েই হাসপাতালে পৌঁছে দিতে হচ্ছে গ্রামের বাসিন্দাদের। এক বাসিন্দার কথায়, "ওঁরা শুধু ভোটের সময় বড় বড় মিথ্যে কথা সাজিয়ে বলে, সারাবছর আর দেখি না। আমাদের এই ভোগান্তিতে কেউ পাশে নেই।"

Published by: Arka Deb
First published: September 10, 2020, 12:00 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर