• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • এই দোকানে বিয়ের ডিজাইনার পোশাক, জুতো, গয়না সব পাওয়া যাবে বিনামূল্যে!

এই দোকানে বিয়ের ডিজাইনার পোশাক, জুতো, গয়না সব পাওয়া যাবে বিনামূল্যে!

এই দোকান এমনই একটি স্টোর, যেখানে বিয়ের কনের ডিজাইনার ড্রেস, জুতো, ব্যাগ, গয়না সবই পাওয়া যাচ্ছে । তাও আবার একদম বিনামূল্যে ।

এই দোকান এমনই একটি স্টোর, যেখানে বিয়ের কনের ডিজাইনার ড্রেস, জুতো, ব্যাগ, গয়না সবই পাওয়া যাচ্ছে । তাও আবার একদম বিনামূল্যে ।

এই দোকান এমনই একটি স্টোর, যেখানে বিয়ের কনের ডিজাইনার ড্রেস, জুতো, ব্যাগ, গয়না সবই পাওয়া যাচ্ছে । তাও আবার একদম বিনামূল্যে ।

  • Share this:

    #কেরল: বিয়ে । মানুষের জীবনে এই দিনটার মূল্য অপরিসীম । কতটা স্বপ্ন, কত আশা-আশঙ্কার দোলাচলে গাঁথা থাকে দিনটা । প্রিয় মানুষটির সঙ্গে নতুন পথের দিকে প্রথম পদক্ষেপ । তাই দিনটা ঘিরে সকলের মনেই হাজারও রঙিল প্রজাপতির মেলা উড়ে বেড়ায় । সকলেরই ইচ্ছা করে এই দিন মনের মতো করে সাজতে, মজা করতে, স্মরণীয় করে রাখতে দিনটিকে ।

    তবে ছেলেদের তুলনায় বিয়ে নিয়ে মেয়েদের মধ্যে উত্তেজনার পরিমাণ যেন একটু বেশিই থাকে । সাজগোজ, গয়নাগাটি নিয়ে তাঁদের পরিকল্পনা থাকে অনেক । কিন্তু এত গেল অবস্থাপন্ন ঘরের মেয়েদের কথা । দুঃস্থ পরিবারের বিয়ের কনেরা কিন্তু সেই স্বপ্ন দেখার সাহসটুকুও পায় না । চেয়েচিন্তে যতটুকু যা জোটে, তার মধ্যে কোনও রকমে স্বপ্নকে খাপ খাইয়ে নিতে হয় ।

    আর সেই সমস্যার কথা মাথায় রেখেই কেরলের এক ডিজাইনার খুললেন স্বপ্নের এক দোকান । নাম তার রেইনবো, অর্থাৎ রামধনু । নামের সঙ্গে কাজের অনেক মিল রয়েছে । আসলে এই দোকান এমনই একটি স্টোর, যেখানে বিয়ের কনের ডিজাইনার ড্রেস, জুতো, ব্যাগ, গয়না সবই পাওয়া যাচ্ছে । তাও আবার একদম বিনামূল্যে । কেরলের কন্নুর জেলায় এমনই একটি স্টোর খুলেছেন ডিজাইনার সবিতা । দেশের দুঃস্থ মেয়েরা তাঁদের বিয়ের জন্য যাবতীয় জিনিস এখান থেকে ফ্রি-তে নিয়ে যেতে পারবেন ।

    তবে এই জিনিসগুলি একেবারে ব্র্যান্ড নিউ নয় । যাকে বলে সেকন্ড হ্যান্ড । তবে এক বা দু’বার পরা । লকডাউনের সময় এই স্টোরটি খোলেন সবিতা । বহু বছর ধরেই গরীব মেয়েদের হাতে সেকন্ড হ্যান্ড বিয়ের পোশাক তুলে দিচ্ছেন তিনি । কিন্তু সে ক্ষেত্রে মেয়েটির নিজের পছন্দ করে বেছে নেওয়ার সুযোগ থাকছে না । সেই সুযোগ করে দিতেই অনলাইনে প্রচার শুরু করেন সবিতা । তাঁর ইউটিউব ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায় । অনেকেই তাঁদের বিয়ের বা বিয়ের সময়কার বিভিন্ন পোশাক, জুতো, গয়নাগাটি তুলে দিতে রাজি হন সবিতার হাতে । শুধু দেশ নয়, দেশের বাইরে থেকেও অনেকে সবিতাকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেন ।

    এরপরেই শুরু হয় রেইনবো । জোগাড় করা পোশাকগুলি সুন্দর করে সাজিয়ে এই দোকানটি খুলেছেনব ২৩ বছরের সবিতা । মস্ত পোশাকগুলি জোগাড় করার পর সেগুলি নিজে ড্রাই ক্লিন করান সবিতা । তাঁর একটি হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ আছে । তাতে ২২ জন মহিলা উদ্যোগপতি রয়েছেন । তাঁরাই বিভিন্ন জায়গা থেকে ডোনারদের জোগাড় করেন । তাঁদের কর্মকাণ্ড ছড়িয়ে দেন সকলের মধ্যে । শুধু পোশাকই নয়, ফ্রি-তে মেকআপ করানো, হেনা, মেহন্দি, হেয়ারস্টাইলিংও করেন সবিতা । তবে তাঁদের শর্ত একটাই, তাঁদের ছবি কোনও সোশ্যাল মিডিয়ায় দেওযা যাবে না ।

    এখনও পর্যন্ত ৯০০ কনেকে বিয়ের পোশাক ও অন্যান্য সরঞ্জাম দিয়েছেন সবিতা । প্রতিটি মেয়েকে বিয়ে এবং অন্যান্য অনুষ্ঠানে পরার জন্য তিনটি করে পোশাক দিয়েছেন তিনি ।

    Published by:Simli Raha
    First published: