corona virus btn
corona virus btn
Loading

পুরীর হোটেলগুলির ছুটিতে যাওয়া ও কর্মরত কর্মচারীদের মাইনে বন্ধ করা যাবে না !

পুরীর হোটেলগুলির ছুটিতে যাওয়া ও কর্মরত কর্মচারীদের মাইনে বন্ধ করা যাবে না !
photo source collected

কর্মচারীদের বেতন না কাটার জন্য পুরীর হোটেল মালিকদের অনুরোধ করলেন পুরীর জেলা শাসক ।

  • Share this:

#পুরী: কর্মচারীদের বেতন না কাটার জন্য পুরীর হোটেল মালিকদের অনুরোধ করলেন পুরীর জেলা শাসক । লকডাউন ঘোষণার পর থেকেই পুরীর সমস্ত হোটেল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের নির্দেশে।  সেই মতোই পুরীর কমবেশী ১০০০ হোটেল এবং ২০০০ হলিডে হোম সম্পূর্ণ বন্ধ। বাতিল সমস্ত বুকিং এবং ব্যবসা ও। এই সব হোটেল ও হলিডে হোম মিলিয়ে প্রায় আট থেকে ১০ হাজার লোক কাজ করে সরাসরি। এদের মধ্যে একটা বড় অংশ বাংলা থেকে কাজ করতে গিয়ে থাকেন। গত ২০ শে মার্চ শেষ ট্রেন ছেড়েছিলো পুরী স্টশন থেকে। ওই ট্রেনেই বাংলা থেকে যাওয়া বহু কর্মীকে রওনা করিয়ে দেওয়া হয়। গত মাসের মাইনে নিয়ে তারা পুরী থেকে ফিরেছেন। এ মাসের মাইনে কি হবে?  পুরীর হোটেল গুলিতে স্থানীয় লোকজনরা এখনও কাজ করছেন। মূলত পরিচ্ছন্ন করা ও পাহারা দেওয়ার জন্য। এই সব ছুটিতে যাওয়া ও কর্মরত স্টাফদের পুরো বেতন দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে ওড়িশা প্রশাসনের তরফে ।

দিন কয় আগে এই মর্মে একটি লিখিত চিঠিও দেওয়া হয় পুরীর হোটেলিয়ার্স অ্যাসোসিয়েশনকে। জেলা শাসকের স্বাক্ষর করা এই চিঠি নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে অ্যাসোসিয়েশন।তবে ওই সংগঠনের এক কর্তার কথায়,  "ব্যবসা বিরাট ক্ষতির মুখে, কবে স্বাভাবিক হবে জানা নেই। সেই জায়গায় একশো শতাংশ মাইনে দেওয়া সম্ভব নয়। সত্তর শতাংশ বা পঞ্চাশ শতাংশ মাইনে দেওয়া যায় কি না,  তা সংগঠনে আলোচনা চলছে "।

পুরীতে এই মুহূর্তে সব কিছু স্তব্ধ। প্রশাসনের তরফে পুরী বিচ,  জগন্নাথ মন্দির,  শ্মশান সহ সর্বত্র জীবানু মুক্ত করার কাজ চলছে। পুরী মন্দিরে নির্দিষ্ঠ পালাদার ছাড়া কাউকে পূজার জন্য ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। কড়া পুলিশি পাহারা। এর মধ্যে কবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে তা জানা নেই হোটেল মালিকদের। তবে জেলা প্রশাসনের কড়া চিঠি নিয়ে রীতিমতো বৈঠক শুরু করেছেন হোটেল মালিকরা।

SOURAV GUHA

Published by: Piya Banerjee
First published: April 18, 2020, 9:38 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर