• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • সংক্রমণের সম্ভাবনা দূর অস্ত, গাড়ি ডেলিভারির অভিনব উপায় নিয়ে এল Tata Motors!

সংক্রমণের সম্ভাবনা দূর অস্ত, গাড়ি ডেলিভারির অভিনব উপায় নিয়ে এল Tata Motors!

গাড়ির উপরে ছাউনি ও চার পাশে প্লাস্টিকের দেওয়াল। কিন্তু গাড়ির ঢাকা বা কভার যেমন হয়, তেমন নয়। এটি গাড়ির কনট্যাক্টে আসবে না। দেখতে অনেকটা বেলুনের মতো।

গাড়ির উপরে ছাউনি ও চার পাশে প্লাস্টিকের দেওয়াল। কিন্তু গাড়ির ঢাকা বা কভার যেমন হয়, তেমন নয়। এটি গাড়ির কনট্যাক্টে আসবে না। দেখতে অনেকটা বেলুনের মতো।

গাড়ির উপরে ছাউনি ও চার পাশে প্লাস্টিকের দেওয়াল। কিন্তু গাড়ির ঢাকা বা কভার যেমন হয়, তেমন নয়। এটি গাড়ির কনট্যাক্টে আসবে না। দেখতে অনেকটা বেলুনের মতো।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতির জন্য তৈরি ছিল না কেউই। মার্চের শুরু থেকে দেশে এর প্রভাব বাড়তে থাকায় সব ক্ষেত্রেই নতুন নতুন পরিবর্তন আসে। নতুন পদক্ষেপ করতে হয় সব সংস্থাকেই। একাধিক নতুন জিনিস সামনে আসে। গাড়িপ্রস্তুতকারক সংস্থাগুলিও এর থেকে আলাদা নয়। তাদেরও একাধিক বিষয়ে নতুন পদক্ষেপ করতে হয়। করোনা সুরক্ষাবিধি বাড়ানোর পাশাপাশি গাড়ি স্যানিটাইজ করা বা অনলাইন কেনাকাটার সুবিধে- সবই যোগ হয় এই তালিকায়। কিন্তু টাটা মোটরস (tata Motors) আরও এগিয়ে গিয়ে একদম নতুন পদ্ধতিতে গাড়ি ডেলিভারির ব্যবস্থা করেছে। এই সংস্থা এ বার নতুন যে কোনও গাড়ি একটি প্লাস্টিক ব়্যাপারের মধ্যে করে ডেলিভারি দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে।

টাটা মোটরস-এর (Tata Motos) তরফে ইতিমধ্যেই এই অত্যাধুনিক সুরক্ষাবিধি মেনে তাদের SUV গাড়িগুলি ডেলিভারি করা শুরু হয়ে গিয়েছে। এই প্লাস্টির ব়্যাপার বা সেফটি ব়্যাপারের নাম দেওয়া হয়েছে সেফটি বাবল (Safety Bubble)। করোনাভাইরাস-সহ অন্যান্য যে কোনও ধরনের ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া থেকে ক্রেতাদের বাঁচানোর জন্য এই পদক্ষেপ বলে জানিয়েছে সংস্থা। বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি একটি ট্যুইট করা হয় সংস্থার তরফে। যাতে একটি ভিডিও ক্লিপ ও ছবি শেয়ার করা হয়। ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে যে, কী ভাবে ওই সেফটি বাবলের মধ্যে গাড়িটি স্যানিটাইজড অবস্থায় রাখা রয়েছে। সংস্থার তরফে জানানো হয়, ডিলারের কাছে থাকার সময়ে এই সেফটি বাবল গাড়িগুলিকে ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়া থেকে রক্ষা করবে।

এই সেফটি (Safety Bubble) আসলে একটি প্লাস্টিকের ঢাকা। গাড়ির উপরে ছাউনি ও চার পাশে প্লাস্টিকের দেওয়াল। কিন্তু গাড়ির ঢাকা বা কভার যেমন হয়, তেমন নয়। এটি গাড়ির কনট্যাক্টে আসবে না। দেখতে অনেকটা বেলুনের মতো। দেখলে মনে হবে এর ভিতরে হাওয়া ভরা রয়েছে এবং তার মধ্যে একটি গাড়ি দাঁড়িয়ে। চলতি বছরের অগস্ট মাসে সংস্থার তরফে যে সুরক্ষাবিধি মেনে চলার কথা বলা হয়, তার মধ্যেই এই সেফটি বাবল (Safety Bubble) রয়েছে। এখনও সব টাটা মোটরস ডিলারের কাছে এই বাবল না থাকলেও আগামী কিছু দিনের মধ্যেই তা সব অথরাইজড ডিলারের কাছেই দেখা যাবে বলে জানা গিয়েছে। ট্যুইট করা ছবিতে স্পষ্ট একটি নতুন টাটা টিয়াগো হ্যাচব্যাককে (Tata Tiago Hatchback) এই সেফটি বাবলের ভিতরে রাখা হয়েছে, যেটি সময়মতো ডেলিভারি করা হবে। অগস্ট মাসে করোনাসংক্রান্ত নানা সুরক্ষাবিধির কথা বলা হয় সংস্থার তরফে। খবর মোতাবেকে, গ্রাহকদের জন্য গাড়ির সঙ্গেই একটি সেফটি কিট দেওয়া চালু করেছে সংস্থা। যাতে একটি এয়ার পিউরিফায়ার ও একটি স্যানিটাইজেশন কিট রাখা হয়েছে। এয়ার পিউরিফায়ারটি শুধুমাত্র নেক্সন ও হ্যারিস (Nexon and the Harrier) মডেলেই ইনস্টল করা গিয়েছে। বাকি N95 মাস্ক (Face Mask), স্যানিটাইজার (Hand Sanitizer), গ্লাভস, পেপার টিস্যু, মিস্ট ডিফিউজার (Mist Diffuser) ও অন্যান্য জিনিস-সহ স্যানিটাইজেশন কিট বাকি গাড়িগুলোতে দেওয়া হয়েছে।

Published by:Piya Banerjee
First published: