১৭৮ টি পণ্যে GST ২৮% থেকে কমে ১৮% , দাম কমছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এই জিনিসগুলির

১৭৮ টি পণ্যে GST ২৮% থেকে কমে ১৮% , দাম কমছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এই জিনিসগুলির
gst council meet

১৭৭ টি পণ্যে GST ২৮% থেকে কমে ১৮% , দাম কমছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এই জিনিসগুলি

  • Share this:

 #নয়াদিল্লি: একধাক্কায় ১৭৮টি পণ্যের ওপর জিএসটির হার কমালো কেন্দ্র। ২৮ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়াল ১৮ শতাংশ। নতুন তালিকায় মাত্র ৫০ টি পণ্যের জন্যই ২৮ শতাংশ জিএসটি দিতে হবে। ঘর সাজানোর জিনিস, আসবাব, শ্যাম্পু, শেভিং ক্রিমের মতো পণ্যের ওপর কর কমায় কিছুটা স্বস্তি পাবেন সাধারণ মানুষ। জিএসটি পোর্টালে বারবার পরিবর্তনের জন্যও জিএসটি কাউন্সিলের ক্ষোভের মুখে পড়েন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি।

জিএসটি নিয়ে অব্যবস্থার মুখে পড়ে নরম অবস্থান কেন্দ্রের। একধাক্কায় ১৭৮টি পণ্যে জিএসটির হার কমল। এই পণ্যগুলোতে জিএসটি ২৮ শতাংশ থেকে কমে দাঁড়াল ১৮ শতাংশ। কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে তাই এইসব পণ্য আরও সস্তা হচ্ছে।

গুডস অ্যান্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স নেটওয়ার্কের প্রধান সুশীল কুমার মোদি বলেন, '২২৭ টি পণ্যে ২৮% জিএসটি ছিল ৷ কর ব্যবস্থায় স্ল্যাব পরিবর্তনের পর মাত্র ৫০টিতে ২৮% জিএসটি থাকল ৷ বাকি পণ্যগুলিতে ১৮% GST ধার্য করা হয়েছে ৷'

সবোর্চ্চ করের আওতায় থাকা ৬২ টি পণ্যের করহার কমানোর সুপারিশ করেছিল জিএসটি কাউন্সিলের বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন মন্ত্রিগোষ্ঠী। কেন্দ্র ৭৭ টি পণ্যে কর কমানোয় আরও কিছুটা স্বস্তি পাবেন আম-আদমি। করের হার কমায় সস্তা হচ্ছে বেশ কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যও।

সস্তা হচ্ছে

-শেভিং ক্রিম ও আফটার শেভ

-মহিলাদের প্রসাধন

-ডিওডোরান্ট

-গ্রানাইট ও মার্বেল

-ঘর সাজানোর জিনিস

-যে কোনও ধরণের আসবাব

- সব ধরণের চকোলেট ও চুইং গাম

একমাত্র বিলাসবহুল হোটেল, স্পা, সিগারেট, এয়ার কন্ডিশনার ও ওয়াশিং মেশিনেই মতো পণ্যেই চালু থাকছে ২৮ শতাংশ জিএসটি।

১ জুলাই জিএসটি চালুর পর এনিয়ে ৪ বার করের হারে পরিবর্তন হল। গত কয়েক মাসে বারবার মুথ থুবড়ে পড়েছে জিএসটি পোর্টাল। রিটার্ন দাখিলে সমস্যায় পড়েছেন ব্যবসায়ীরা। শুক্রবারের বৈঠকে এব্যাপারে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সরব হয় বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন মন্ত্রিগোষ্ঠী। সরব হন পশ্চিমবঙ্গ, পঞ্জাব ও কর্নাটকের মতো রাজ্যও ৷

চাপের মুখে কার্যত তা মানতে হয় কেন্দ্রকে। পরিস্থিতি অনুযায়ী যে করের হারে পরিবর্তন হবে, তা প্রথম থেকেই ঠিক ছিল। জিএসটি পোর্টালকে আরও নিখুঁত করার কাজ চলছে। সেজন্য সামান্য কিছু সমস্যা হতে পারে। তবে এটা সাময়িক।

দিপাবলীর আগেই একদফা জিএসটির হারে পরিবর্তন করেছিল কেন্দ্র। গুজরাত ভোটের দিকে তাকিয়েই তা করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে। জিএসটি কাউন্সিলকে উপেক্ষা করার অভিযোগে সরব হয় বিজেপি বিরোধী রাজ্যগুলো। যদিও শুক্রবারের বৈঠকে জিএসটি কাউন্সিলের সবকটি সুপারিশই মেনে নিয়েছে কেন্দ্র।

First published: 05:23:04 PM Nov 10, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर