দেশ

?>
corona virus btn
corona virus btn
Loading

হিন্দু-মুসলিম বিদ্বেষের আগুনে পুড়ল গয়নার বিজ্ঞাপন ! ঐক্যের বার্তাতেও আপত্তি !

হিন্দু-মুসলিম বিদ্বেষের আগুনে পুড়ল গয়নার বিজ্ঞাপন ! ঐক্যের বার্তাতেও আপত্তি !
  • Share this:

#মুম্বই: সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে উঠেছে ঝড়। তাও টাটা গ্রুপের একটি গয়নার বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে। বাধ্য হয়ে বিজ্ঞাপনটি সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় 'তানিস্ক'। কি ছিল সেই বিজ্ঞাপনে? যা নিয়ে গোটা দেশ চর্চা শুরু করল ! বিজ্ঞাপনটি ভালবাসার। বিজ্ঞাপনটি ঐক্যের। বিজ্ঞাপনটি ভারতের হিন্দু-মুসলিম সম্প্রদায়ের মেলবন্ধন ও ভালোবাসার কথাই বলে। তবে তাতে কেন এত আপত্তি?

আপত্তি কারণ গয়নার বিজ্ঞাপনটিতে দেখানো হয়েছে, এক হিন্দু মেয়ের বিয়ে হয়েছে মুসলিম পরিবারে। মেয়েটি গর্ভবতী। তাঁর স্বাদের অনুষ্ঠান হচ্ছে। শাশুড়ি-সহ গোটা বাড়ি সেজে উঠেছে মেয়েটির জন্য। সকালে বাড়ির সবাইকে এভাবে ভালোবাসায় মেতে উঠে দেখছে মেয়েটি শুধু মাত্র তাঁর জন্য। মেয়েটি তাঁর শাশুড়িকে প্রশ্ন করছে, 'মা এই রীতি তো আপনাদের নেই?" তখন তাঁর শাশুড়ি আদর করে জবাব দিচ্ছেন, 'কিন্তু মেয়ের খুশির জন্য এই রীতি আমাদেরও।" এর পরই আনন্দে মেতে উঠছে গোটা পরিবার। তানিস্কের গয়নায় সাজানো হচ্ছে পুত্রবধূকে। এ তো ভালোবাসার গল্প বলে। অসম্ভব সুন্দর বার্তা বহন করে।

বিজ্ঞাপনটি সামনে আসতেই ওই তানিস্ক ও টাটা গ্রুপের বিরুদ্ধে ফুঁসে ওঠেন এক শ্রেণির নেট দুনিয়ার মানুষ। হিন্দু-মুসলিম একতার দোহাই দিয়ে আদতে ‘লাভ জিহাদ’-এর প্রচার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন তাঁরা। ট্যুইটারে খেমচাঁদ শর্মা লেখেন, 'মুসলিম বাড়িতে হিন্দু পুত্রবধূকে দেখানোই বা হচ্ছে কেন, আর সেটাকে মহিমান্বিতই বা করা হচ্ছে কেন? মুসলিম মেয়ের হিন্দু পরিবারে বিয়ে হয়েছে, তা কেন দেখালেন না?'

কঙ্গনা রানাউত লেখেন, ‘যে ভাবে গোটা ব্যাপারটা তুলে ধরা হয়েছে, তাঁর ধর্মবিশ্বাসকে স্বীকৃতি দেওয়ায় ভীতত্রস্ত ভাবে শ্বশুরবাড়ির লোকজনকে কৃতজ্ঞতা জানাতে দেখা গিয়েছে হিন্দু মেয়েকে। কিন্তু তিনি কি ওই বাড়ির সদস্য নন? কেন ওদের ক্ষমা আশ্রয় করে বাঁচতে হবে ওঁকে? নিজের বাড়িতে কেন মাথা নত করে, ভয়ে থাকতে হবে? লজ্জাজনক।’

গয়না বিক্রির জন্য জিহাদি তাস ব্যবহার করছে তানিস্ক। এমন অভিযোগও ওঠে। এর পরই বিজ্ঞাপনটি তুলে নেয় তানিস্ক। ধর্মীয় ঐক্যের পক্ষে সওয়াল করায় যে ভাবে ওই সংস্থাকে বয়কটের ডাক দেওয়া হয়েছে, তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছে নেট-দুনিয়ার একটা বড় অংশ। তাদের মতে, ভারতীয় সংস্কৃতি যেখানে সর্বধর্ম সমন্বয়ের কথা বলে, ভারতীয় ঐতিহ্যে যেখানে বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্য জড়িয়ে, সেখানে ওই বিজ্ঞাপনটি নিয়ে আপত্তি থাকার কথাই নয়।

কংগ্রেসের সাসংদ শশী থারুর লেখেন, "হিন্দু-মুসলিম ঐক্য নিয়ে সুন্দর বিজ্ঞাপন তৈরি করায় হিন্দুত্ববাদী ধর্মান্ধরা ওই সংস্থাকে বয়কট করার ডাক দিয়েছে। হিন্দু-মুসলিম ঐক্য যদি এতই বিরক্তিকর লাগে, তা হলে গোটা বিশ্বে হিন্দু-মুসলিম ঐক্যের দীর্ঘজীবী প্রতীক ভারতকে কেন বয়কট করারা ডাক দিচ্ছেন না ওঁরা?" অনেকেই দাঁড়িয়েছেন তানিস্কের পাশে। টাটা কোম্পানির হয়ে কথা বলেন লেখক চেতন ভগতও। তিনি লেখেন, "টাটা গ্রপ হিসেবে তানিস্ককে অনেক সাহসী হতে হবে। যদি কিছু ভুল না দেখিয়ে থাকেন তাহলে আপনাদের পিঁছিয়ে যাওয়ার কোনও কারণ নেই।" সঞ্জয় ঝা লিখেছেন, "মিস্টার রতন টাটা ধর্মান্ধদের আপনাকে ভয় দেখাতে দেবেন না।"

গোটা বিষয়ে যেভাবে সকলে হিন্দু মুসলিম তর্কে নেমে পড়েছেন তা সত্যিই অবাক করে। একটা সুন্দর বার্তাও হারিয়ে যেতে পারে এভাবে। যে দেশ ঐক্যের কথা বলে, যে দেশের মানুষ একতায় ভরসা রাখে সেখানে এই বিতর্ক সত্যিই অবাক করে। শুধু মাত্র মেয়েটির মুসলিম পরিবারে বিয়ে নিয়েই লড়াই শুরু। অথচ যে ভালোবাসার বা ঐক্যের কথা বলা হল তা নেটিজেনদের চোখেই পড়ল না। বাধ্য হয়ে বিজ্ঞাপনটি তুলে নিতে বাধ্য হল 'তানিস্ক'। তবে অনেক মানুষ পাশে দাঁড়িয়েছেন টাটা গ্রুপের। অনেকেই বলেছেন ট্রোল করার জন্য ধন্যবাদ না হলে হয়তো এত সুন্দর একটি বার্তা, মা মেয়ের ভালোবাসা দেখা হত না।

Published by: Piya Banerjee
First published: October 13, 2020, 8:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर