corona virus btn
corona virus btn
Loading

তামিলনাডুর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় ধৃত তিন পুলিশ অফিসার, মূল অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের মামলা

তামিলনাডুর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় ধৃত তিন পুলিশ অফিসার, মূল অভিযুক্তের বিরুদ্ধে খুনের মামলা
তুতিকোরিনে পুলিশি হেফাজতে নিহত বাবা ও ছেলে। ফাইল চিত্র।

গত ১৯ জুন পি জয়রাজকে লকডাউনে দোকান খোলার জন্য গ্রেফতার করা হয়। ছেলে ইম্যানুয়েল বেনিক্স বাবাকে কেন গ্রেফতার করা হয়েছে খোঁজ নিতে গেলে তাঁকেও আটক করে পুলিশ।

  • Share this:

#চেন্নাই: তামিলনাডুতে জেলের ভিতর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় ৩জন পুলিশকে গ্রেফতার করল ক্রাইম ব্রাঞ্চ। এর মধ্যে একজন মূল অভিযুক্ত সাব ইন্সপেক্টর রঘুগনেশ। বুধবার রাতে গ্রেফতার হ‌য়েছে ওই থানায় কর্মরত আরও দুই পুলিশকর্মী।

১২টি দল মিলে তামিলনাডুর জেলে পুলিশি নৃশংশতার তদন্ত চলছে। যৌথভাবে তদন্ত চালাচ্ছে ক্রাইম ব্রাঞ্চ এবং সিআইডি। এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার হয়েছে মোট ৬ জন। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ নং ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে। এছাড়াও মূল অভিযুক্ত রঘুগণেশ এবং বালাকৃষ্ণণের বিরুদ্ধে একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে বিশেষ তদন্তকারী দল।

গত ১৯ জুন পি জয়রাজকে লকডাউনে দোকান খোলার জন্য গ্রেফতার করা হয়। ছেলে ইম্যানুয়েল বেনিক্স বাবাকে কেন গ্রেফতার করা হয়েছে খোঁজ নিতে গেলে তাঁকেও আটক করে পুলিশ। অভিযোগ, হেফাজতে থাকাকালীন নৃশংস শারীরিক অত্যাচার চালানো হয়েছিল তামিলনাডুর বাসিন্দা পি জয়রাজ ও তাঁর পুত্র ইম্যানুয়েল বেনিকসের উপর। ময়নাতদন্তের রিপোর্টে তাঁদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়। দু’জনের বিরুদ্ধে ১৮৩, ৩৮৩ ও ৫০৬ (খ) ধারায় মামলাও রুজু করেছিল পুলিশ। ২৩ ঘণ্টার ব্যবধানে মৃত্যু হয় বাবা ও ছেলের। ঘটনা সামনে আসার পর সমলোচনার মুখে পড়তে হয় এইআইড়িএমকে সরকারকে।

প্রতিবাদীরা জর্জ ফ্লয়েড হত্যার সঙ্গেও তুলনা করতে থাকেন এই ঘটনাকে। তামিলনাডুর আইনমন্ত্রী সি ভি শানমুগম বলেন এই ঘটনায় জড়িতজদের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এর পরে দুই সাব ইনসপেক্টর রাতারাতি গ্রেফতার হন। স্থানীয় বিচার বিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেট রিপোর্টে পুলিশি হেফাজতে অত্যাচারের ঘটনায় তদন্তে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠে আসে তুতিকোরিনের ডিএসপি সি প্রথপন, অতিরিক্ত ডিএসপি ডি কুমার এবং কন্সটেবল মহারাজনের বিরুদ্ধে। ওই তিন কর্মীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলার নির্দেশ দেয় মাদ্রাজ হাইকোর্ট।

Published by: Arka Deb
First published: July 2, 2020, 8:15 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर