দেশজুড়ে হিংসা না-থামলে CAA মামলার শুনানি নয়, মন্তব্য দেশের প্রধান বিচারপতির

দেশজুড়ে হিংসা না-থামলে CAA মামলার শুনানি নয়, মন্তব্য দেশের প্রধান বিচারপতির
প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে

দেশজুড়েই এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে৷ ৬০টিরও বেশি মামলা দায়ের করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় প্রতিবাদ চলছে৷ প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছে৷ পরিস্থিতি কয়েকটি রাজ্যে অগ্নিগর্ভও হয়েছে৷ এ হেন অবস্থায় নাগরিকত্ব আইন নিয়ে মামলার শুনানিতে রাজি নয় সুপ্রিম কোর্ট৷ বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের প্রধানবিচারপতি এসএ বোবদে জানিয়ে দিলেন, দেশজুড়ে হিংসা না-থামলে সিএএ নিয়ে করা আবেদন শুনবে না সুপ্রিম কোর্ট৷

সিএএ নিয়ে একটি দ্রুত শুনানির আবেদন করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে৷ সেই আবেদনে বলা হয়েছে, সব রাজ্য নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করুক৷ আইনকে সাংবিধানিক ঘোষণা করুক সুপ্রিম কোর্ট৷ এই আবেদনে বিস্ময় প্রকাশ করে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি বি আর গাভাই ও বিচারপতি সূর্যকান্ত বলেন, 'এই আদালতের কাজ আইনের বৈধতা বিচার করা৷ আইনকে সাংবিধাক ঘোষণা করা আদালতের কাজ নয়৷'

দেশজুড়েই এই আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ চলছে৷ ৬০টিরও বেশি মামলা দায়ের করা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টে৷ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ২০১৯-এ বলা হয়েছে, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে ধর্মীয় নিপীড়নের জেরে শরণার্থী হিন্দু, পার্সি, শিখ, খ্রিস্টান ও বৌদ্ধদের ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে৷ ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর বা তার আগে ভারতে আসা শরণার্থীদেরই ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে৷অসম, উত্তরপ্রদেশ, পশ্চিমবঙ্গ, কেরল, তামিলনাড়ু-সহ প্রায় সব রাজ্যেই সিএএ প্রতিবাদে আন্দোলন হিংসাত্মক৷ দেশের প্রধানবিচারপতির পর্যবেক্ষণ, দেশজুড়ে চলা হিংসা বন্ধ না-হলে মামলার শুনানিতে রাজি নয় সুপ্রিম কোর্ট৷

প্রধানবিচারপতি বলেন, 'দেশের পরিস্থিতি একটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে৷ এই পরিস্থিতিতে শুনানি চালিয়ে লাভ নেই৷ সমস্যার সমাধান হবে না৷'

গত ১৮ ডিসেম্বর কেন্দ্রকে একটি নোটিশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট৷ নাগরিকত্ব আইন নিয়ে কেন্দ্রকে জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহের মধ্যে উত্তর দিতে নির্দেশ দেয় দেশের সর্বোচ্চ আদালত৷ ২২ জানুয়ারি শুনানির দিন ধার্য করে সুপ্রিম কোর্ট৷

গত মাসেও সুপ্রিম কোর্টের প্রধানবিচারপতির পর্যবেক্ষণ ছিল, সুপ্রিম কোর্ট এই বিষয়ে তখনই হস্তক্ষেপ করবে, যখন দেশজুড়ে হিংসা বন্ধ হবে৷

First published: 02:12:15 PM Jan 09, 2020
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर