ধর্ম কিংবা জাতপাতের বিভেদ তুলে ভোট প্রচারের প্রবণতায় রাশ টানতে হস্তক্ষেপ সুপ্রিম কোর্টের

ধর্ম কিংবা জাতপাতের বিভেদ তুলে ভোট প্রচারের প্রবণতায় রাশ টানতে হস্তক্ষেপ সুপ্রিম কোর্টের
llustration by Mir Suhail/News18.com
  • Share this:

#নয়াদিল্লি: কখনও ধর্মের নামে ভোট চাওয়া, আবার কখনও জাতপাতের কথা তুলে সুড়সুড়ি। ভোট প্রচারে এই প্রবণতায় রাশ টানতে হস্তক্ষেপ করল সুপ্রিম কোর্ট। এই ধরণের ঘটনায় নির্বাচনী কমিশনের কী করণীয়, তা যাচাই করবে শীর্ষ আদালত। কমিশনের ডেপুটি কমিশনার স্তরের আধিকারিককে মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে হাজির থাকতে হবে। নির্দেশ প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চের।

বারবার একই ঘটনা। কখনো ধর্মের নামে ভোট চাওয়া, কখনও জাতপাতের ধুয়ো দিয়ে সুড়সুড়ি। নির্বাচনী প্রচারে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশিকাকে বুড়ো আঙুল দেখাচ্ছেন ছোট-বড় নেতারা। গত সোমবার নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগে ৭২ ঘণ্টার জন্য লোকসভা নির্বাচনের প্রচার বন্ধ রাখতে হবে যোগী আদিত্যনাথকে ৷ একই দোষে অভিযুক্ত বিএসপি প্রধান মায়াবতীকেও নোটিশ জারি করে ৪৮ ঘণ্টা ভোটের প্রচার বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয় নির্বাচন কমিশন ৷ তবে, নোটিশ পাঠানো ছাড়া যোগী আদিত্যনাথ, মায়াবতীদের বিরুদ্ধে এখনও কোনও ব্যবস্থাই নিতে পারেনি নির্বাচন কমিশন। কেন ব্যবস্থা নেওয়া যায়নি ? সুপ্রিম কোর্টে কমিশনের দাবি চমকে দেওয়ার মতো

এমন ঘটনায় কমিশনের ভূমিকা অত্যন্ত সীমাবদ্ধ। নোটিশ পাঠানো ছাড়া কিছুই করণীয় নেই। কোনও দলের স্বীকৃতি বাতিল বা অন্য কোনও কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতাই নেই। মায়াবতীকে নোটিশ পাঠানো হলেও নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে উত্তর আসেনি। নির্দেশিকা জারি করা ছাড়া কমিশন অভিযোগ দায়ের করতে পারে।

ভোট চলার সময়ে নিয়ম লঙ্ঘনের ঘটনায় কড়া ব্যবস্থা নিয়েছেন টিএন শেষন, বিবি ট্যান্ডন বা জেএম লিংডোর মতো কমিশনারা। সেকারণেই আন্তর্জাতিক দুনিয়ার নির্বাচন কমিশনের এত কদর। তারপরও সুনীল অরোরা অ্যান্ড টিমের এহেন অভিযোগ কেন? সওয়ালে মামলাকারীর আইনজীবীর দাবি, সংবিধানের ৩২৪ ধারায় কমিশন ব্যবস্থা নিতেই পারে ৷

এই ধারায় কমিশনের ক্ষমতা নির্দিষ্ট করা হয়েছে ৷

ঠিক এখানেই হস্তক্ষেপ করছে সুপ্রিম কোর্ট। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের হাতে কতটা আইনি ক্ষমতা রয়েছে, তা খতিয়ে দেখবে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের সাংবিধানিক বেঞ্চ। মঙ্গলবার এজন্য দীর্ঘ সময় শুনানি হতে পারে বলেও জানিয়েছে প্রধান বিচারপতির বেঞ্চ।

First published: 11:07:08 AM Apr 16, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर