• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • SUPREME COURT SEEKS RESPONSE FROM CENTRE ON PLEA FOR UNIFORM DIVORCE LAW AD

'ইউনিফর্ম ডিভোর্স ল' নিয়ে কেন্দ্রের তরফ থেকে ইতিবাচক সাড়া চায় সুপ্রিম কোর্ট

ইউনিফর্ম ডিভোর্স ল-এর প্রয়োজন জানিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। এছাড়া বিবাহবিচ্ছেদ এবং খোরপোষ আদায়ের ক্ষেত্রে দেশের সমস্ত মহিলাদের জন্য একই নিয়মের আর্জি জানিয়েও জমা দেওয়া হয় আবেদন

ইউনিফর্ম ডিভোর্স ল-এর প্রয়োজন জানিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। এছাড়া বিবাহবিচ্ছেদ এবং খোরপোষ আদায়ের ক্ষেত্রে দেশের সমস্ত মহিলাদের জন্য একই নিয়মের আর্জি জানিয়েও জমা দেওয়া হয় আবেদন

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: সময়টা ১৯৯৫ সাল। সরলা মুদগল মামলা। স্ত্রী আদালতে মামলা করে, দ্বিতীয় বিয়ে করার জন্যই ধর্ম বদলে ইসলাম গ্রহণ করেছেন  স্বামী। সুপ্রিম কোর্ট সে সময়ই কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানিয়েছিল গোটা দেশের নাগরিকদের জন্য একই রাখা হোক বিবাহ এবং বিবাহবিচ্ছেদের আইন। তবে ২৫ বছরেও এই আইন বর্তায়নি দেশে।

    সম্প্রতি ইউনিফর্ম ডিভোর্স ল-এর প্রয়োজন জানিয়ে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। এ'ছাড়া বিবাহবিচ্ছেদ এবং খোরপোষ আদায়ের ক্ষেত্রে দেশের সমস্ত মহিলাদের জন্য একই নিয়মের আর্জি জানিয়েও জমা দেওয়া হয় আবেদন। এই সূত্র ধরেই বুধবার সুপ্রিম কোর্ট জানায়, এক্ষেত্রে কেন্দ্রের সম্মতি প্রয়োজন।

    আবেদনকারী অশ্বিনী কুমার উপাধ্যায়ের তরফে আইনজীবী পিঙ্কি আনন্দ এবং মিনাক্ষী অরোরা বলেন, দেশে ভিন্ন বিবাহবিচ্ছেদের আইন এবং মহিলাদের খোরপোষের ক্ষেত্রে আলাদা নিয়ম বজায় রাখার অর্থ, সাম্যের অধিকারকে লঙ্ঘন করা।

    এই জনস্বার্থ মামলার বিচারকের বেঞ্চে ছিলেন প্রধান বিচারপতি এসএ বোবদে, বিচারপতি এএস বোপান্না এবং ভি রামাসুব্রমনিয়ম। এই আবেদনের রায় দেওয়ার বিষয়ে বিচারকেরা বেশ সতর্ক ছিলেন। তাঁদের আশঙ্কা, দেশে ইউনিফর্ম ডিভোর্স ল বর্তালে, দেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ধর্মীয় বিশ্বাসে আঘাত লাগতে পারে। বিশেষত তাঁরা যখন নিজেদের সংবিধান মেনে চলেন।

    কোনও ধর্মীয় মানুষদের ব্যক্তিগত আইনে হস্তক্ষেপ না করে এই নতুন ইউনিফর্ম আইন আনা সম্ভব কি না, আইনজীবীদের এই প্রশ্ন করে বেঞ্চ।

    এর উত্তরে আইনজীবীরা মনে করিয়ে দেন, তিন তালাক নিষিদ্ধ করার যে সিদ্ধান্ত সুপ্রিম কোর্ট নিয়েছিল, সেটাও তবে মুসলিমদের ব্যক্তিগত আইনে হস্তক্ষেপই ছিল।

    বহু তর্ক-বিতর্কের পর, বিচারকদের বেঞ্চ বিষয়টি বিবেচনা করে দেখার আর্জি জানিয়ে কেন্দ্র সরকারের কাছে নোটিশ জারি করে।

    Published by:Antara Dey
    First published: