• হোম
  • »
  • খবর
  • »
  • দেশ
  • »
  • SUPREME COURT HAS AGREED TO HEAR A PETITION TO SUSPEND CONSTRUCTION WORK ON THE AMBITIOUS CENTRAL VISTA PROJECT AT A TIME OF COVID SECOND WAVE SB

Supreme Court on Central Vista: করোনা-কালেও মোদির স্বপ্নের ২০ হাজার কোটির 'সেন্ট্রাল ভিস্তা'! এবার সুপ্রিম-মামলা

এখন এত খরচ!

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্বপ্নের প্রকল্প এই সেন্ট্রাল ভিস্তা। এই প্রকল্পের অন্তর্গত রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নতুন বাসভবনও। ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে সেই নির্মাণ শেষ হয়ে কথা।

  • Share this:

    নয়াদিল্লি: গোটা দেশজুড়ে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। বিশেষত, রাজধানী দিল্লির অবস্থা শোচনীয়। অক্সিজেন-ওষুধ নেই, চারিদিকে মৃত্যুমিছিল। বাধ্য হয়ে লাগাতার লকডাউনের পথে হেঁটেছেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আর এহেন দিল্লিতেও কোভিড-১৯ মহামারির (Covid-19 pandemic) মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের 'সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প' (Central Vista Project)-এর কাজ চলছে রমরমিয়ে। যা নিয়ে সমালোচনার ঝড় যেমন উঠেছে, তেমনি এবার করোনার এই পরিস্থিতিতে ওই প্রকল্প আপাতত বন্ধের আর্জি জানিয়ে আবেদন জমা পড়েছে সুপ্রিম কোর্টে (Supreme Court)। বুধবার সর্বোচ্চ আদালত জানিয়ে সেই প্রেক্ষিতে জানিয়ে দিয়েছে, ওই আবেদনের শুনানি হবে।

    ইতিমধ্যেই দিল্লি হাইকোর্টে সম্প্রতি এ নিয়ে মামলা হয়েছিল। কিন্তু সেই মামলার শুনানি ১৭ মে পর্যন্ত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তবে রাজধানীতে সংক্রমণ এবং মৃত্যু যে গতিতে বৃদ্ধি পাচ্ছে, সে কথা মাথায় রেখেই তড়িঘড়ি বিষয়টিতে সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ চেয়ে আবেদন জমা পড়েছে। আর সুপ্রিম কোর্ট সেই শুনানিতে রাজিও হয়েছে। তবে, কবে সেই শুনানি হবে তা এখনও স্পষ্ট নয়।

    শীর্ষ আদালতে এই 'সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্প'-এর নির্মাণকার্যে স্থগিতাদেশ দেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন আইনজীবী সিদ্ধার্থ লুথরা। তবে, আপাতত এই সংক্রান্ত সমস্ত নথিপত্র প্রত্যেক পক্ষের হাতে তুলে দিতে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। একইসঙ্গে জরুরি ভিত্তিতে শুনানির জন্য় আলাদা আবেদনও জানাতে বলা হয়েছে।

    প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্বপ্নের প্রকল্প এই সেন্ট্রাল ভিস্তা। এই প্রকল্পের অন্তর্গত রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নতুন বাসভবনও। ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে সেই নির্মাণ শেষ হয়ে কথা। তাই লকডাউনের মধ্যেও জোরকদমে চলছে তার কাজ। প্রসঙ্গত, এই সেন্ট্রাল ভিস্তা প্রকল্পের সম্ভাব্য লগ্নি প্রায় কুড়ি হাজার কোটি টাকা। বিরোধীরা যা নিয়ে সরব হয়েছেন। প্রিয়াঙ্কা গান্ধি লিখেছেন, ‘সরকারি অর্থের সমস্ত করোনা আক্রান্তদের সেবায় খরচ না করে সরকার প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের বাড়ি বানাচ্ছে।' এই কাজে অর্থ ব্যয় না করে দারিদ্রসীমার নীচে থাকা ব্যক্তিদের ন্যূনতম অ্যায় সুনিশ্চিত করতে সওয়াল করেছেন রাহুল গান্ধি। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার তাতে নারাজ। আদালতে কেন্দ্রের যুক্তি, পুরনো ভবনগুলির অবস্থা ভালো নয়, তাই শীঘ্র নতুন ভবন তৈরির কাজ চলছে।

    Published by:Suman Biswas
    First published: