Home /News /national /
Om Birla: 'সবাই মাস্ক পরুন, দেশের মানুষ কী শিখবে!' অবাধ্য সাংসদদের ধমক লোকসভার স্পিকারের

Om Birla: 'সবাই মাস্ক পরুন, দেশের মানুষ কী শিখবে!' অবাধ্য সাংসদদের ধমক লোকসভার স্পিকারের

লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা৷

লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা৷

করোনা অতিমারি, ফোনে আড়ি পাতার মতো বিভিন্ন ইস্যুকে নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছে সংসদের দুই কক্ষ৷ এ দিনও একই ছবি দেখা যায় লোকসভায় (Om Birla in Parliament)৷

  • Share this:

    #দিল্লি: দেশের মানুষ ঠিক মতো স্বাস্থ্য বিধি মেনে মাস্ক পরছেন না, শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখছেন না৷ তাই করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে কেন্দ্রীয় সরকারের৷ কিন্তু শুধু আমজনতা নয়, দেশের সাংসদদেরই যে মাস্ক পরতে বেজায় অনীহা, তা ধরা পড়ল শুক্রবার৷ যার জেরে সাংসদের রীতিমতো ভর্ৎসনা করলেন অধ্যক্ষ ওম বিড়লা৷ বিরক্ত অধ্যক্ষ বলেই দিলেন, 'আপনারাই যদি মাস্ক না পরেন তা হলে দেশের মানুষ কী শিখবে?'

    গত ১৯ জুলাই থেকে বাদল অধিবেশন শুরু হওয়ার পর থেকেই করোনা অতিমারি, ফোনে আড়ি পাতার মতো বিভিন্ন ইস্যুকে নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছে সংসদের দুই কক্ষ৷ এ দিনও একই ছবি দেখা যায় লোকসভায়৷ মূলত করোনা সামলানো নিয়ে সরকারের ব্যর্থতা এবং করোনার টিকার ঘাটতির অভিযোগ তুলে প্রবল হই হট্টগোল শুরু করেন বিরোধী দলের সাংসদরা৷ তার পাল্টা জবাব দিতে থাকেন বিজেপি সাংসদরা৷ করোনার যাবতীয় বিধিনিষেধ মেনে সংসদের অধিবেশন শুরু হয়েছে৷ শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে সাংসদদের বসার ব্যবস্থাও ঢেলে সাজানো হয়েছে৷ কিন্তু সংসদে হই হট্টগোল করতে গিয়ে সে সবই ভুলতে বসেছেন সাংসদরা৷ যা নজর এড়ায়নি অধ্যক্ষ ওম বিড়লার৷

    বিরক্ত হয়ে স্পিকার এক সময় সাংসদদের উদ্দেশে বলেন, 'সবাই দয়া করে মাস্ক পরুন, করোনা বিধি মানুন৷ আপনারা দেশের সাংসদ৷ মানুষ আপনাদের নির্বাচিত করে এখানে পাঠিয়েছে৷ আপনাদের দেখেই তো মানুষ শিখবে৷ আপনারাই যদি মাস্ক না পরেন তাহলে তো সাধারণ মানুষও তাই করবে৷ সবাই করোনা বিধি মানুন, নিজের জায়গায় গিয়ে বসুন৷ আমি সবাইকে কথা বলার সুযোগ দেব৷'

    অধ্যক্ষ এমন আর্জি জানালেও সংসদের হই হট্টগোল কমেনি৷ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী মনসুখ মান্ডব্য বোঝানোর চেষ্টা করেন, কীভাবে বিভিন্ন টিকা নির্মাতাদের সঙ্গে কথা বলে দেশে টিকার জোগান বাড়ানোর চেষ্টা করছে কেন্দ্র৷ রাজ্যগুলির দাবি মেনে সবার বিনামূল্যে টিকাকরণের দায়িত্বও কেন্দ্র নিয়েছে বলে যুক্তি দেন তিনি৷ রাজনীতির জন্যই বিরোধীরা এমন অভিযোগ করছে বলে দাবি করেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী৷ সওয়াল, পাল্টা সওয়ালের মধ্যেই বেলা বারোটা পর্যন্ত অধিবেশন মুলতবি ঘোষণা করে দেন লোকসভার অধ্যক্ষ৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    পরবর্তী খবর