দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

জল কামান বন্ধ করলেন কৃষক নেতার ছেলে, খুনের চেষ্টার অভিযোগ আনল পুলিশ

জল কামান বন্ধ করলেন কৃষক নেতার ছেলে, খুনের চেষ্টার অভিযোগ আনল পুলিশ
জল কামান বন্ধ করে লাফ দিচ্ছেন নভদীপ৷

যার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, তাঁর নাম নভদীপ সিং৷ ২৬ বছর বয়সি নভদীপ কৃষক নেতা জয় সিং-এর ছেলে৷

  • Share this:

#দিল্লি: প্রবল ঠান্ডার মধ্যেই বিক্ষোভরত কৃষকদের উপরে জল কামান থেকে জল ছোড়া হচ্ছিল৷ যাতে তাঁরা দিল্লিতে প্রবেশ করতে না পারেন৷ আচমকাই একটি জল কামানের গাড়ির মাথায় চড়ে জল ছোড়ার কলের মুখ বন্ধ করে দিয়েছিলেন আম্বালার বাসিন্দা এক যুূবক৷ সেই অপরাধেই তাঁর বিরুদ্ধে খুনের চেষ্টার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছে বিজেপি শাসিত হরিয়ানার পুলিশ৷ যার সর্বোচ্চ সাজা যাবজ্জীবন কারাদণ্ড৷ পাশাপাশি দাঙ্গা বাঁধানো এবং করোনা অতিমারির নিয়ম ভঙ্গেরও অভিযোগ আনা হয়েছে ওই যুবকের বিরুদ্ধে৷

যার বিরুদ্ধে এই অভিযোগ, তাঁর নাম নভদীপ সিং৷ ২৬ বছর বয়সি নভদীপ কৃষক নেতা জয় সিং-এর ছেলে৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়া ভিডিও-তে দেখা গিয়েছে, হরিয়ানা দিল্লি সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভের সময় একটি জল কামানের মাথায় উঠে পড়েছে নভদীপ৷ তার পর জল কামানটি বন্ধ করে দিয়ে লাফিয়ে একটি ট্র্যাক্টরের উপরে নেমে আসছেন তিনি৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো নায়কের মর্যাদা পাচ্ছেন নভদীপ৷ অন্যদিকে কৃষকদের বিরুদ্ধে আগ্রাসী হয়ে ওঠার জন্য তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে হরিয়ানা পুলিশ৷

নভদীপ জানিয়েছেন, পড়াশোনা শেষ করার পর বাবার সঙ্গে কৃষি কাজ করতেন তিনি৷ প্রবল ঠান্ডায় কৃষকদের জল কামান থেকে বাঁচাতেই যা করার তাই করেছেন তিনি৷ নভদীপ বলেন, 'আমি কখনও কোনও বেআইনি কাজে জড়াই না৷ কৃষকদের বাঁচাতে হবে, এ কথা ভেবেই সাহস করে জল কামানের মাথায় উঠে পড়েছিলাম৷'

নভদীপের দাবি, জনবিরোধী আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার অধিকার প্রত্যেক নাগরিকের রয়েছে৷ তিনি বলেন, 'শান্তিপূর্ণ ভাবে বিক্ষোভ দেখাতে দেখাতে আমরা দিল্লিতে প্রবেশ করতে দেওয়ার দাবি জানিয়েছিলাম৷ কিন্তু পুলিশ আমাদের পথ আটকাচ্ছিল৷ জনবিরোধী আইন পাস হলে আমাদের সরকারকে প্রশ্ন করার পূর্ণ অধিকার রয়েছে৷'

রাজধানীতে প্রবেশ করতে দেওয়ার দাবিতে শুক্রবার হরিয়ানা-দিল্লি সীমান্তের দিকে এগিয়ে আসেন হাজার হাজার কৃষক৷ টিয়ার গ্যাস ফাঁটিয়ে, জল কামান ব্যবহার করে, ব্যারিকেড বানিয়ে তাঁদের আটকাতে হিমশিম খায় পুলিশ৷ বার বার পুলিশ- বিক্ষোভকারী সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি৷ শেষ পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভের শর্তে কৃষকদের দিল্লিতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়৷

মূলত পঞ্জাব থেকে আসা কৃষকরাই এই বিক্ষোভের নেতৃত্ব দিচ্ছেন৷ অন্তত তিরিশটি কৃষক সংগঠন এই বিক্ষোভে সামিল হয়েছে৷ নতুন পাস হওয়া তিনটি কৃষি আইন বাতিল করার দাবি জানাচ্ছেন তাঁরা৷ পাশাপাশি ন্যূনতম সহায়ক মূল্যের গ্যারান্টি দাবি করছেন কৃষকরা৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 28, 2020, 8:12 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर