বছর শেষে সূর্যগ্রহণ, ২৬ শে চোখ রাখুন আকাশে

বছর শেষে সূর্যগ্রহণ, ২৬ শে চোখ রাখুন আকাশে

বছর শেষের উৎসবে এবার নয়া রঙ। মাটির পৃথিবীতে তো বটেই। এবার রঙ লাগবে আকাশেও।

  • Share this:

TRIDIB BHATTACHARYA

#কলকাতা: বছর শেষের উৎসবে এবার নয়া রঙ। মাটির পৃথিবীতে তো বটেই। এবার রঙ লাগবে আকাশেও। ধাঁধার মত শোনালেও ধাঁধা নয়। ২৪ ডিসেম্বর সারাদিনের ক্যারোল শেষে ২৫শের কেকদিন পালন। পার্ক স্ট্রিট, সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল আর নানা রকমের খাদ্য আর পানীয়ের সম্ভার। তবে হ্যাংড হয়ে যাবেন না প্লিজ। উঠতে হবে সকাল সকাল। কারণ এবছর ক্রিসমাসের পরদিনের সকালটাও অন্যরকমের।

প্রস্তুতি নিন, আকাশ দেখার। সাবধানতাও নিন। তার আগে খোলসা করে বলাই ভাল।

450px-Annular_Solar_Eclipse_Map_of_india_2019_December_26

২৬ ডিসেম্বর, বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ দেখার সুযোগ। ২৬ ডিসেম্বর খন্ডগ্রাস

সূর্যগ্রহণ দেখবে কলকাতা সহ গোটা দেশ।শুধু দক্ষিণের রাজ্যগুলো, কেরালা তামিলনাড়ু 'প্রায় পূর্ণগ্রাস' দেখার সুযোগ পাবেন। এই 'প্রায় পূর্ণগ্রাস' শব্দটা বেজায় গোলমেলে। বুঝিয়ে বলতে গেলে বলা উচিৎ, কেরালা তামিলনাড়ুর বাসিন্দারা সূর্যের প্রায় ৯৩% অংশ ঢেকে যেতে দেখবেন। সূর্য পুরোপুরি ঢাকবে না। ফলে পূর্ণগ্রাস দেখতে না পাওয়ার দুঃখ কিছুটা হলেও মিটবে বটে। কারণ সূর্য ১০০শতাংশ না ঢাকলে, রিংস অব ফায়ার, এমারেল্ড বিডস, ডায়মন্ড রিং সহ বহু সুন্দর দৃশ্য থেকে বঞ্ছিত হব আমরা।

মধ্য-পশ্চিম-পূর্ব ভারতের মানুষের কপাল আরও খারাপ তারা সূর্যের মাত্র

৩০শতাংশ পর্যন্ত ঢেকে যাওয়া অংশ দেখতে পাবেন। নীচের ছবিতে সেই গ্রেডেশন দেওয়া আছে।মজার ব্যাপার হল, ২০১৯ শুরুও হয়েছিল এমন এক আংশিক সূর্যগ্রহণ দিয়ে। যেটা আমরা দেখতে পারি নি। সেই কারণেই ডিসেম্বরের ২৬ ভারতবাসীর কাছে একটা সুযোগ, আংশিক সূর্যগ্রহণের মত অসাধারণ ঘটনার সাক্ষী থাকা।

উনিশে গ্রহণ

৬ জানুয়ারি--আংশিক সূর্যগ্রহণ

২১ জানুয়ারি-- পূর্ণগ্রাস চন্দ্রগ্রহণ

২ জুলাই -- পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ

১৬ জুলাই -- আংশিক চন্দ্রগ্রহণ

২৬ ডিসেম্বর -- আংশিক সূর্যগ্রহণ

আর কুড়ি২০-র জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহেই আমরা দেখব আরেক অদ্ভুত গ্রহণ। সেটা অবশ্য সূর্যের নয়। চাঁদের। যাকে ইংরাজিতে বলে পেনামব্রা লুনার ইক্লিপ্স। বাংলা করলে বলতে পারেন চাঁদের উপচ্ছায়া গ্রহণ। সে এক অসাধারণ দৃশ্য। আকাশে ভরা পূর্ণিমার চাঁদ আছে অথচ নেই। পৃথিবীর উপচ্ছায়ায় ঢেকে ফ্যাকাশে তামাটে বনে গেছে। সে কাহিনী না হয় পরে বলা যাবে। তার আগে জেনে নিন, ২৬ ডিসেম্বরের সুর্যগ্রহণের খুঁটিনাটি।

২৬ ডিসেম্বরের সকালেই ৮টা ২৭মিনিট থেকে শুরু হয়ে যাবে আংশিক সূর্যগ্রহণ। চলবে বেলা ১১টা ৩২মিনিট পর্যন্ত।সর্বোচ্চ পর্যায়ে এসে ৩ মিটিট ৪০ সেকেন্ড স্থায়ী হবে তারপরেই ছাড়তে শুরু করবে গ্রহণ। তবে সূর্যগ্রহণ দেখতে কিছু বাধা নিষেধও আছে। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, কি কি করতে পারবেন। কি কি করতে পারবেন না।

----গ্রহণে যা করবেন, যা করবেন না

১) খালি চোখে দেখবেন না। এমনকি, রোদ চশমা, এক্সরে প্লেট, ওয়েল্ডিং কাঁচ

(গ্লাস), ক্যামেরার নেগেটিভ দিয়েও দেখবেন না। এর ফলে চোখ নষ্ট হতে পারে।

২) আলোর প্রতিফলন দেওয়ালে ফেলে দেখতে পারেন। ব্যবহার করতে পারেন, বিশেষ ভাবে বানানো সোলার গ্লাস। বিড়লা প্ল্যানেটরিয়াম, বা পজিশন্যাল এস্ট্রোনমির বিজ্ঞানীদের পরামর্শ মেনে যা তৈরি করা হয়। এছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন বিজ্ঞান-ক্লাবে সুর্যগ্রহণ দেখার চশমা মিলতে পারে।

৩) খাওয়া-দাওয়া, শুভ অনুষ্ঠান কোন কাজেই কোন বাধা নেই। জমিয়ে চা-কফি সহযোগে ব্রেকফাস্ট করতে করতে দেখতে পারেন।

৪) অফিস-স্কুল-কলেজ-ঘুরতে যেতেও কোন বাধা নেই। নিষেধ নেই বাইরে ঘুরে বেড়াতেও।

সুতরাং মনের আনন্দে উপভোগ করুন বছরের শেষ সূর্যগ্রহণ। ছুটির আনন্দে নিয়ে আসুন নতুন প্রলেপ। আর যাদের এখনও ইয়ার এন্ডিং-এর প্রোগ্রাম বানানো হয়নি। এবং পকেটে রেস্তও আছে। তারা অবশ্যই এবারের ইয়ার-এন্ডিং ডেসটিনেশনে অবশ্যই রাখবেন কেরল তামিলনাড়ুর মত কোন জায়গা। ঘুরে আসুন সুর্যগ্রহণের সঙ্গে।

First published: 03:02:12 PM Dec 11, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर