বাজেট ২০২১: দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের জন্য একটু বেশি ট্যাক্স সমস্যার হবে না, মত বিশেষজ্ঞদের!

বাজেট ২০২১: দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের জন্য একটু বেশি ট্যাক্স সমস্যার হবে না, মত বিশেষজ্ঞদের!
২০২১ সালে শুধু দেশের বাজার নয়, বিশ্ববাজারে ক্রমঅগ্রগতির পথে এগিয়ে যেতে হবে। তাছাড়া দেশে করোনা-সংক্রান্ত যে সমস্যাগুলি রয়েছে, বিশ্বের অন্যান্য দেশেও একই সমস্যা রয়েছে। আর সেদিক থেকে ভারত অনেকটা এগিয়ে।

২০২১ সালে শুধু দেশের বাজার নয়, বিশ্ববাজারে ক্রমঅগ্রগতির পথে এগিয়ে যেতে হবে। তাছাড়া দেশে করোনা-সংক্রান্ত যে সমস্যাগুলি রয়েছে, বিশ্বের অন্যান্য দেশেও একই সমস্যা রয়েছে। আর সেদিক থেকে ভারত অনেকটা এগিয়ে।

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: বাজেট পেশের দিকে তাকিয়ে দেশবাসী। ১ ফেব্রুয়ারি ২০২১-২২ অর্থবর্ষের কেন্দ্রীয় বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী। ইতিমধ্যে ট্যাক্সে ছাড়, নানা ক্ষেত্রে আয়কর কমানো, ট্যাক্স স্ল্যাব-সহ একাধিক বিষয় নিয়ে নানা জল্পনা তৈরি হয়েছে। দেশে বিনিয়োগ টানার বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়ার জন্য সওয়াল করেছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ। এবার একটু অন্য প্রসঙ্গ তুলে ধরলেন Wells Fargo Asset Management-এর ব্রায়ান জ্যাকবসেন (Brian Jacobsen)। তাঁর কথায়, ট্যাক্স যদি অল্প পরিমাণে বাড়ে, তাহলেও খুব একটা সমস্যায় পড়বেন না দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীরা।

CNBC-TV18-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছেন Wells Fargo Asset Management-এর কর্ণধার ব্রায়ান জ্যাকবসেন। তাঁর কথায়, বর্তমানে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই ট্যাক্স কমানোর দাবি জানানো হচ্ছে। তবে দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের ক্ষেত্রে বিষয়টি একটু আলাদা। এক্ষেত্রে যদি অল্প পরিমাণ ট্যাক্স বাড়ে, তাহলে খুব একটায় সমস্যায় পড়বেন না বিনিয়োগকারীরা।

তিনি জানিয়েছেন, করোনার জেরে সাম্প্রতিক কালে বাজারের পরিস্থিতি অত্যন্ত খারাপ। প্রতিটি ক্ষেত্রেই চিন্তা ও উদ্বেগ স্পষ্ট। অনেকেই করোনার নতুন মিউটেশন নিয়ে আতঙ্কে রয়েছেন। একই সঙ্গে কিছু অন্তর্দেশীয় সমস্যা রয়েছে। সেই পরিস্থিতির সঙ্গেও লড়াই করছে দেশের ব্যবসায়ীরা। তবে এই সমস্যার মাঝেও নতুন সুযোগের পথ রয়েছে। একটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, ব্যবসায়িক ও বিনিয়োগক্ষেত্রকে চাঙ্গা করার লক্ষ্যে আপ্রাণ চেষ্টা জারি। তাই এই প্রতিবন্ধকতাগুলি দূর করা যাবে। আর ঠিক এখানেই এবারের বাজেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। দরকার শুধু সঠিক সিদ্ধান্তের।


২০২১ সালে শুধু দেশের বাজার নয়, বিশ্ববাজারে ক্রমঅগ্রগতির পথে এগিয়ে যেতে হবে। তাছাড়া দেশে করোনা-সংক্রান্ত যে সমস্যাগুলি রয়েছে, বিশ্বের অন্যান্য দেশেও একই সমস্যা রয়েছে। আর সেদিক থেকে ভারত অনেকটা এগিয়ে। তাই দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্পগুলির উপর জোর দিতে হবে। দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগে ব্যবসায়ীদের আকর্ষণ করতে হবে। পাশাপাশি ট্যাক্স রেট বেনিফিটের উপরে নজর দিতে হবে। কর্পোরেট ট্যাক্স স্কিম, GST, ট্যাক্স লিটিগেশন, এক্সপোর্ট ইনসেনটিভসের ক্ষেত্রেও বিচার-বিবেচনা করতে হবে। এক্ষেত্রে রাজস্ব ঘাটতি ও ব্যয়ে বরাদ্দের বিষয়টিরও দেখভাল করতে হবে অর্থমন্ত্রককে।

সেই সূত্র ধরে ব্রায়ান জ্যাকবসেনের বক্তব্য, যদি দেশে বিনিয়োগের ভালো পরিবেশ তৈরি হয়, তাহলে আন্তর্জাতিক বিনিয়োগকারীরা আকর্ষিত হবে। ব্যবসা বাড়াতে বা গত বছরের চেয়ে অধিক মুনাফা লাভের আশায় তারা বিনিয়োগে উৎসাহী হবে। এক্ষেত্রে লভ্যাংশের জন্য অল্পমাত্রার ট্যাক্স বৃদ্ধিতে ততটা মাথা ঘামাবে না তারা। বিষয়টি মানিয়ে নিতেও খুব একটা অসুবিধা হবে না।

Published by:Piya Banerjee
First published: