দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

'বেইমান, মীরজাফর নই', বিজেপি-তে যোগের সম্ভাবনা ওড়ালেন না শিশির

'বেইমান, মীরজাফর নই', বিজেপি-তে যোগের সম্ভাবনা ওড়ালেন না শিশির
রাজনৈতির ভবিষ্য়ৎ নিয়ে জল্পনা বাড়ালেন শিশির৷
  • Share this:

#কাঁথি: বিজেপি-তে যোগদানের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিলেন না কাঁথির তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী৷ নিউজ ১৮ বাংলাকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে স্পষ্ট করে দিলেন তৃণমূল সাংসদ৷ দল কোণঠাসা করলেই যে তিনি রাজনীতি থেকে সন্ন্যাস নেবেন না, তা পরিষ্কার করে দিয়েছেন শিশিরবাবু৷ তবে যে সিদ্ধান্তই নিন না কেন তা দলনেত্রীকে জানিয়েই নেবেন বলে দাবি করেছেন কাঁথির সাংসদ৷

ছেলে দিব্যেন্দুর সঙ্গে তাঁকেও নাম না করে উপসর্গহীন বেইমান বলে আক্রমণ করেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পূর্ব মেদিনীপুরে অধিকারীদের বিরোধী হিসেবে পরিচিত অখিল গিরি, সৌমেন মহাপাত্রদের হাতে জেলায় দলের রাশ তুলে দেওয়া হচ্ছে৷ এ দিন অবশ্য প্রবীণ সাংসদ বার বার মনে করিয়ে দিয়েছেন, তিনি 'বেইমান, মীরজাফর' নন৷

শুভেন্দু অধিকারী বিজেপি-তে যোগদানের পর থেকেই শিশির এবং দিব্যেন্দু অধিকারীর সঙ্গে দূরত্ব বাড়ছিল তৃণমূলের৷ এর পর শিশিরবাবূুর ছোট ছেলে সৌমেন্দু অধিকারী বিজেপি-তে যোগদানের পর অধিকারী পরিবারের উপরে ক্ষোভ চরমে পৌঁছয় তৃণমূলের৷ প্রথমে দলীয় কর্মসূচিতে উপেক্ষা করা হচ্ছিল শিশির-দিব্যেন্দুকে৷ কেন শিশির এবং দিব্যেন্দু প্রকাশ্যে শুভেন্দুর বিজেপি-তে যোগদানের বিরুদ্ধে সরব হচ্ছেন না, সেটাই ছিল ক্ষোভের মূল কারণ৷ আরও ক্ষোভ হল, শুভেন্দু বা সৌমেন্দুকে কেন গেরুয়া শিবিরে যাওয়া থেকে বিরত করতে পারলেন না শিশির!

এর পরই গত মঙ্গলবার শিশির অধিকারী দিঘা শঙ্করপুর উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়৷ তার পর বুধবার তাঁকে দলের জেলা সভাপতির পদ থেকেও অপসারিত করে দল৷ তবে শিশিরবাবুকে জেলায় দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে৷ যদিও এই সমস্ত কিছুর বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে তা নিয়ে সেভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া জানাননি শিশির৷ কিন্তু এ দিন নিউজ ১৮ বাংলাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, 'কোনও সম্ভাবনা উড়িয়ে দিচ্ছি না৷ আমি ইট, কাঠ, পাথর নই যে যেখানে ইচ্ছে সেখানে আমাকে ফেলে রাখবেন৷'

তিনি যে রাজনীতি থেকে অবসরের কথা ভাবছেন না, তা স্পষ্ট করে দিয়ে শিশির বলেন, 'যাঁরা বলছেন বয়স হয়েছে আমি তাঁদের থেকে বেশি সক্ষম৷ ১৩০ বছর বাঁচব৷ আমি নেত্রীর সঙ্গে কথা বলে যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেব৷ সিদ্ধান্ত তো নিতেই হবে, আমি মানুষকে নিয়ে বাঁচি৷'

তবে বিজেপি-তে যোগদানের বিষয়ে স্পষ্ট করে কিছু না বললেও শিশির বলেন, 'আমি তো চিৎপুরের যাত্রাপার্টি নই যে বায়না করলেই সেখানে চলে যাব৷ আমার চিন্তাধারার সঙ্গে মিলতে হবে৷ তবে নিজের লোকেদের সঙ্গে কথা বলেই যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেব৷'

তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ এ দিন বলেন, 'বিজেপি-তে গিয়ে শিশিরবাবুর দুই ছেলে নিয়মিত তৃণমূলকে আক্রমণ করছেন৷ অথচ উনি চুপ করে আছেন৷ কিছু বলছেন না৷ এটা দেখে দুঃখ লাগে৷'

কুণালকে অবশ্য পাল্টা আক্রমণ করেছেন শিশির অধিকারী৷ তিনি বলেন, 'কুণাল ঘোষ দলের ক্ষতি করছেন৷'

Sujit Bhowmik

Published by: Debamoy Ghosh
First published: January 14, 2021, 7:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर