বিজয় মিছিলকে ঘিরে শিলিগুড়িতে পুলিশ-বিজেপি ধস্তাধস্তি! গ্রেফতার বহু নেতা, কর্মী

গ্রেফতার একাধিক বিজেপি নেতা, কর্মী, সমর্থক।

গ্রেফতার একাধিক বিজেপি নেতা, কর্মী, সমর্থক।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: বিহার-সহ একাধিক রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন এবং উপ নির্বাচনে প্রত্যাশিত ফল করায় শিলিগুড়িতে বিজেপির বিজয় মিছিলকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়ালো। পুলিশের সঙ্গে দফায় দফায় ধস্তাধস্তি। গ্রেফতার একাধিক বিজেপি নেতা, কর্মী, সমর্থক। আজ, মঙ্গলবার সন্ধ্যেয় দলীয় কার্যালয় থেকে হাদমি চকে বিজয় মিছিল বের করে গেরুয়া শিবির। হিলকার্ট  রোডে মিছিল করার পরিকল্পনা নেয়। সেইমতো হাজির দলের ছাত্র, যুব, মহিলা সংগঠনের সদস্য, সদস্যারা। সঙ্গে ছিল তাসা ব্যাণ্ড পার্টিও।

পাশাপাশি মিষ্টিমুখ অর্থাৎ লাড্ডু বিতরণের পালাও ছিল। মিছিল বের হতেই বাধা দেয় পুলিশ। শিলিগুড়ি থানার আই সি'র নেতৃত্বে বাধা দেওয়া হয়। পুলিশের দাবি, মিছিলের কোনও প্রশাসনিক অনুমতি নেই। এনিয়েই পুলিশের সঙ্গে শুরু হয় বচসা। একপক্ষ যখন পুলিশের সঙ্গে বাক বিতণ্ডতায় ব্যস্ত। তখন আর এক পক্ষ বিজয় মিছিল শুরু করে দেয়। সঙ্গে সঙ্গে চলে ধরপাকড়। আর এনিয়েই শুরু হয় ধস্তাধস্তি। বিজেপির অভিযোগ, টেনে হিঁচড়ে তাদের নেতা, কর্মীদের পুলিশের গাড়িতে তোলা হয়। পুলিশের গাড়ির সামনে দলীয় পতাকা নিয়ে অবস্থানে বসে পড়ে বিজেপি কর্মীরা। চলে স্লোগান।

পুলিশের গাড়ি বের করতে রীতিমতো হিমসিম খেতে হয়। আরেক দফায় চলে ধস্তাধস্তি। মিছিলে যোগদানকারী বিজেপি নেতা, কর্মীদের গ্রেফতার করা হয়। দলের শিলিগুড়ি জেলা কমিটির সভাপতি প্রবীন আগরওয়ালের অভিযোগ, পুলিশ শাসক দলের দলদাসে পরিণত হয়েছে। অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে। লাড্ডু ছিনিয়ে নিয়েছে। এমনকী, দলীয় পতাকাও ছিনিয়ে নিয়েছে। পরে থানায় গিয়ে অবস্থান, বিক্ষোভ শুরু করে দেয় গেরুয়া শিবির। চলে স্লোগানও। বিজেপি নেতাদের দাবি, দলের সাফল্যে বিজয় মিছিলে কেন বাধা দেওয়া হবে? রাজ্যের অন্য জেলাতেও আজ মিছিল করা হয়। এই ধরনের অভিযোগ শোনা যায়নি। শিলিগুড়িতে বিজেপির কোনও রাজনৈতিক কর্মসূচি করতে দেয় না পুলিশ। এর বিরুদ্ধে পাল্টা আন্দোলন করা হবে। কোনওভাবেই বিজেপিকে দমিয়ে রাখা যাবে না।

পার্থ প্রতিম সরকার

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: