• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • SHYAM SUNDAR JWELLERS ORGANISED NINTH INDIAN CLASSICAL MUSIC FESTIVAL SWD

সুরের মূর্ছনায় ভাসল বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল! জানুন নবম বর্ষের সুরেলা সফর

এবারের নবম বছরের উদযাপনে, সুরের ছটায় আলোকিত করলেন পণ্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, পণ্ডিত বিক্রম ঘোষ, পণ্ডিত শুভেন চট্টোপাধ্যায়, ভেঙ্কটেশ কুমার, পণ্ডিত কুমার বোস,পণ্ডিত শুভঙ্কর বন্দোপাধ্যায়, পণ্ডিত কুশল দাস, সরওয়ার হুসেন, রাকেশ চৌরাসিয়া, রাহুল শর্মা, কৌশিকি চক্রবর্তী, জ্যোতি গোহো, সংযুক্তা দাস সহ মোট ২৬ জন শিল্পী।

এবারের নবম বছরের উদযাপনে, সুরের ছটায় আলোকিত করলেন পণ্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, পণ্ডিত বিক্রম ঘোষ, পণ্ডিত শুভেন চট্টোপাধ্যায়, ভেঙ্কটেশ কুমার, পণ্ডিত কুমার বোস,পণ্ডিত শুভঙ্কর বন্দোপাধ্যায়, পণ্ডিত কুশল দাস, সরওয়ার হুসেন, রাকেশ চৌরাসিয়া, রাহুল শর্মা, কৌশিকি চক্রবর্তী, জ্যোতি গোহো, সংযুক্তা দাস সহ মোট ২৬ জন শিল্পী।

  • Share this:

#কলকাতা: শ্যাম সুন্দর কোম্পানি জুয়েলার্স নিবেদন করল বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল। নবম বর্ষে চারদিন ব্যাপী ভারতীয় শাস্ত্রিয় সঙ্গীতের মহাসমারোহ হল দেখার মতো। বিগত বছরগুলির মতোই বেহালা ব্লাইন্ড স্কুলের মাঠে হয়ে গেল এ বছরের রাগ সঙ্গীত উৎসব। এই অনুষ্ঠানের আয়োজনে ছিল বেহালা সাংস্কৃতিক সম্মিলনী।

২০১৩ এর মার্চে পণ্ডিত রবি শঙ্কর-কে স্মরণ করে পথ চলা শুরু বেহালা ক্ল্যাসিক্যাল ফেস্টিভ্যাল এর। এবারের নবম বছরের উদযাপনে, সুরের ছটায় আলোকিত করলেন পণ্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়, পণ্ডিত বিক্রম ঘোষ, পণ্ডিত শুভেন চট্টোপাধ্যায়, ভেঙ্কটেশ কুমার, পণ্ডিত কুমার বোস,পণ্ডিত শুভঙ্কর বন্দোপাধ্যায়, পণ্ডিত কুশল দাস, সরওয়ার হুসেন, রাকেশ চৌরাসিয়া, রাহুল শর্মা, কৌশিকি চক্রবর্তী, জ্যোতি গোহো, সংযুক্তা দাস সহ মোট ২৬ জন শিল্পী।

করোনা কালে এই শহরে চারদিন ব্যাপি এত বড় সঙ্গীত সন্ধ্যার আয়োজন এই প্রথম। ৯ জানুয়ারি উদ্বোধনের দিন, 'সর্বোত্তম সম্মান" এ ভূষিত করা হলো পণ্ডিত অনিন্দ্য চট্টোপাধ্যায়কে। জীবনকৃতি এই সম্মানে সম্মানিত হয়ে এসেছেন সমাজের নানা পেশার গুণীরা। ওস্তাদ আমজাদ আলি খান, পণ্ডিত বিরজু মহারাজ, আনন্দজি বিরজি শাহ, বিশ্বমোহন ভাট, কবিতা কৃষ্ণমূর্তি, হরিহরণ প্রমুখ।

বেহালায় শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের তেমন কোনও অনুষ্ঠান হতো না। সেই থেকেই নাকি এই অনুষ্ঠানের ভাবনা। বেহালা সাংস্কৃতিক সম্মিলনীর উদ্যোগে শীতের মরসুমে শহর কলকাতার এই অনুষ্ঠান শাস্ত্রীয় সঙ্গীত প্রেমীদের কাছে এক পরম প্রাপ্তি বটে।

কুশল দাস সেতারে শোনালেন রাগ পুরিয়া ধানেশ্রী, চারুকেশী। কৈবল্যকুমারের নিবেদনে রাগ মধুবন্তীতে ছিল দুই নিষাদের ব্যবহার। পার্থসারথী সরোদে পরিবেশন করেন রাগ চারুকোষ, যোগ। রাকেশ চৌরাশিয়ার বাঁশিতে ছিল পুরিয়া কল্যাণ। কৌশিকি চক্রবর্তীর গাইলেন রাগ যোগকোষ। সংযুক্তা দাস এর নিবেদনে ছিল মারু বেহাগ (বিলম্বিতে কাল নেহিঁ আয়ে, দ্রুতে জাগু ম্যায় সারি রেয়না,মিশ্র খাম্বাজ এ না জা বালম পরদেশ)। পরে মীরার ভজন গঙ্গা যমুনা তীর চলো মন, গেয়ে শোনান। রাহুল শর্মা শোনালেন গোরাখ কল্যাণ। ভেঙ্কটেশ কুমার নিবেদন করেন রাগ বেহাগ আধারিত খেয়াল- ক্যায়সে সুখ সোবে নীঁদয়ারিয়া।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published: