• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • SHIV SHANKAR BABA SELF STYLED GURU SHIV SHANKAR BABA BOOKED AFTER SEXUAL ABUSE COMPLAINTS IN TAMIL NADU SANJ

Shiv Shankar Baba : নাবালিকাদের যৌন নিগ্রহের অভিযোগ! স্বঘোষিত 'ধর্মগুরু' শিবশংকর বাবার বিরুদ্ধে মামলা

নাবালিকাদের যৌন হেনস্তার অভিযোগ Photo : Collected

তামিলনাড়ুতে (Tamil Nadu) চেন্নাইয়ের কাছে কেলামবক্কমে তার একটি স্কুল রয়েছে। অভিযোগ, সেখানকার ছাত্রীদের যৌন হেনস্তা করেছেন শিবশংকর বাবা (Shiv Shankar Baba)। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই দায়ের হয়েছে মামলা।

  • Share this:

    #তামিল নাড়ু : ফের এক স্বঘোষিত ধর্মগুরুর (Self-styled guru) বিরুদ্ধে যৌন হয়রানিতে (Sexual abuse) যুক্ত থাকার অভিযোগ উঠল। এই ধর্মগুরুর নাম শিবশংকর বাবা (Shiv Shankar Baba)। তামিলনাড়ুতে (Tamil Nadu) চেন্নাইয়ের কাছে কেলামবক্কমে তার একটি স্কুল রয়েছে। অভিযোগ, সেখানকার ছাত্রীদের যৌন হেনস্তা করেছেন  শিবশংকর বাবা (Shiv Shankar Baba)। এই অভিযোগের ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই দায়ের হয়েছে মামলা। তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৫৪, ৩৬৩, ৩৬৫ ও ৩৬৬ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। পাশাপাশি পকসো (Pocso Act) আইনের নানা ধারাতেও অভিযোগ আনা হয়েছে স্বঘোষিত ওই ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে।

    ‘সুশীল হরি ইন্টারন্যাশনাল রেসিডেনশিয়াল স্কুল’-এর অনেক পড়ুয়াই অভিযোগ এনেছে যৌন হেনস্থার। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে তারা নিজেদের উপরে হওয়া নির্যাতনের কথা জানিয়েছে। আর এরপরই নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ।

    উল্লেখ্য, আগে শিশুকল্যাণ কমিটির তরফে তাঁকে ডেকে পাঠানো হলেও তিনি আসেননি। তাঁর সংগঠনের তরফে জানানো হয় বাবার বুকে ব্যথা। এবং সেজন্য তিনি দেরাদুনের হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। পরে কেলামবক্কমের মহিলা পুলিশ থানায় তিনটি অভিযোগ জমা পড়ে। সেই অভিযোগ ভিত্তিতেই মাম‌লা দায়ের করেছে পুলিশ।

    মামলাটির গুরুত্ব বুঝতে পেরে ইতিমধ্যেই তামিলনাড়ু সরকার তদন্তভার সিবিসিআইডির হাতে তুলে দিয়েছে। তদন্তকারী এক পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, যে তিনটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে তার মধ্যে দু’টিই পকসো আইনের অন্তর্গত। তাঁর কথায়, ‘‘স্কুলটি স্থাপিত হয় ২০০১ সালে। অভিযোগকারিণীরা নাবালিকা। তাঁদের অভিযোগ, স্কুলে পড়ার সময়ই তাঁদের যৌন হেনস্তা করেন অভিযুক্ত বাবা শিবশংকর।’’অভিযুক্ত ধর্মগুরুকে যে কোনও দিনই গ্রেফতার করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। আপাতত অবশ্য শোনা যাচ্ছে দক্ষিণ ভারত ছেড়ে উত্তর ভারতে গিয়ে দেরাদুনে রয়েছেন অভিযুক্ত ওই 'ধর্মগুরু'।

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: