• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • SECOND WAVE OF CORONAVIRUS BRINGS THESE NEW SYMPTOMS CHECK IF YOU HAVE THEM RM

Corona 2nd Wave: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে দেখা দিচ্ছে এই নতুন উপসর্গগুলি

ফের ভয় দেখাচ্ছে করোনা! চলতি বছরের শুরুতে করোনা গ্রাফ খানিকটা স্বস্তি দিয়েছিল, কিন্তু কিন্তু মাস ঘুরতে না ঘুরতে ফের ভয়াবহ মারণ ভাইরাস

ফের ভয় দেখাচ্ছে করোনা! চলতি বছরের শুরুতে করোনা গ্রাফ খানিকটা স্বস্তি দিয়েছিল, কিন্তু কিন্তু মাস ঘুরতে না ঘুরতে ফের ভয়াবহ মারণ ভাইরাস

  • Share this:

    #কলকাতা: ফের ভয় দেখাচ্ছে করোনা! চলতি বছরের শুরুতে করোনা গ্রাফ খানিকটা স্বস্তি দিয়েছিল, কিন্তু কিন্তু মাস ঘুরতে না ঘুরতে ফের ভয়াবহ মারণ ভাইরাস! করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ইতিমধ্যেই বেসামাল দেশের বিভিন্ন রাজ্য। প্রতিদিন আক্রান্তের নিরিখে রেকর্ড গড়ছে ভারত। পাশাপাশি বেড়েছে মৃত্যুর সংখ্যাও। করোনা আক্রান্তের সংখ্যার নিরিখে বিশ্ব-তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে ভারত। দেশের দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা ফের একবার ১ লক্ষ ছাড়াল ৷ এই নিয়ে পরপর ৪ দিন ৷ গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লক্ষ ৪৫ হাজার ৩৮৪ জন। দেশে দৈনিক করোনা আক্রান্তে নয়া রেকর্ড। এই বৃদ্ধির জেরে করোনায় আক্রান্তের মোট সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৩২ লক্ষ ৫ হাজার ৯২৬। আমেরিকার পর ভারত এখন দ্বিতীয় দেশ যেখানে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ পেরিয়েছে। বর্তমানে আমেরিকার থেকে ভারতে অনেক বেশি দ্রুত গতিতে ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস৷ পরিস্থিতি ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে৷ চিকিৎসক ও গবেষকরা জানাচ্ছেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আগের মতোই জ্বর আসছে, স্বাদ-গন্ধের পরিবর্তন হচ্ছে, গায়ে ব্যথা, শ্বাস কষ্টও হচ্ছে। পাশাপাশি রয়েছে আরও কিছু নয়া উপসর্গ, যেমন--

    পৈটিক গণ্ডগোল-- করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে হজমক্ষমতা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। দেখা দিচ্ছে ডায়রিয়া, বমি, পেটের ব্যাথা, গা-গোলানো ভাব।

    রেড আই বা লাল চোখ-- করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্তদের চোখ অনেক সময়েই লাল হয়ে ফুলে উঠছে। চোখ থেকে জলও পড়ছে।

    শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাস-- করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্তদের শ্রবণ ক্ষমতা হ্রাস পাচ্ছে।

    করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়েও আক্রান্তদের সর্দি-কাশি, বুকে কফ জমছে। কিন্তু এক্ষেত্রে কাশির আওয়াজ আগের থেকে আলাদা। গলার স্বরেও পরিবর্তন দেখা দিচ্ছে।

    গত বছরের তুলনায় এ বছর আরও ভয়ঙ্কর রুপ নিয়েছে করোনা। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ দেশের দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাকেও বাড়িয়ে দিয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৭৯৪ জনের। যা মার্চের শুরুতেও দেশের দৈনিক মৃত্যু থাকছিল ১০০-১৫০ ঘরে। দেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১ লক্ষ ৬৮ হাজার ৪৩৬ জনের। দেশে কোভিড আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ১,১৯,৯০,৮৫৯ জন। সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লক্ষ ৪৬ হাজার ৬৩১ জন। দেশে সুস্থতার হার ৯০.৮ শতাংশ। আর এখনও পর্যন্ত টিকাকারণ হয়েছে ৯ কোটি ৮০ লক্ষ ৭৫ হাজার ১৬০ জনের। দেশের মধ্যে মহারাষ্ট্র, কেরল, দিল্লি এবং কর্ণাটকের দৈনিক সংক্রমণ সবথেকে বেশি। সরকারি হিসেবে মহারাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩২ লক্ষ ৮৮ হাজার ৫৪০ আর মৃত্যু হয়েছে ৫৭,৩২৯ জনের৷ গত ২৪ ঘণ্টায় মহারাষ্ট্রে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৫৮,৯৯৩ জন আর মৃত্যু হয়েছে ৩০১ জনের। মহারাষ্ট্র জুড়ে ইতিমধ্যেই চালু হয়েছে রাত্রিকালীন কার্ফু। কেরলে আক্রান্ত ১১ লক্ষ ৫৪ হাজার ১০ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪,৭৫০। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৫,০৬৩ জন। কর্ণাটকে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০ লক্ষ ৪৮ হাজার ৮৫ আর মৃত্যু হয়েছে ১২,৮১৩ জনের। অন্ধ্রপ্রদেশে আক্রান্ত ৯ লক্ষ ১৮ হাজার ৫৯৭ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭,২৭৯ জনের।

    তামিলনাড়ুতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ লক্ষ ২০ হাজার ৮২৭ আর মৃত্যু হয়েছে ১২,৮৬৩ জনের। দিল্লিতে সংক্রমিত হয়েছেন ৭ লক্ষ ৬ হাজার ৫২৬ জন। সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১১,১৯৬ জনের। উত্তরপ্রদেশে করোনায় আক্রান্ত ৬ লক্ষ ৬৩ হাজার ৯৯১ জন। মৃত্যু হয়েছে ৯,০৩৯ জনের। দেশের মধ্যে অষ্টম স্থানে পশ্চিমবঙ্গ, এখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬,০৬,৪৪৫ জন, আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১০,৩৭৮। গত ২৪ ঘণ্টায় ছত্তিশগড় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১১,৪৪৭ জন। মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৪,১৮,৬৭৮ আর মৃত্যু হয়েছে ৪,৬৫৪ জনের।

    Published by:Rukmini Mazumder
    First published: