corona virus btn
corona virus btn
Loading

সাইবার হানার জন্যে আমাদের কোনও ATM বন্ধ নেই: SBI

সাইবার হানার জন্যে আমাদের কোনও ATM বন্ধ নেই: SBI

গত কয়েকদিন ধরে আমেরিকা ও ইউরোপীয়পান ইউনিয়নের দেশগুলিকে কাঁদিয়ে ছেড়েছে সে। র‍্যানসাম ওয়্যার ভাইরাসের নজর এখন ভারত সহ এশিয়ার দেশে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: গত কয়েকদিন ধরে আমেরিকা ও ইউরোপীয়পান ইউনিয়নের দেশগুলিকে কাঁদিয়ে ছেড়েছে সে। র‍্যানসাম ওয়্যার ভাইরাসের নজর এখন ভারত সহ এশিয়ার দেশে। রবিবার থেকে দেশের বেশ কিছু কম্পিউটারে হানা দিয়েছে বিশ্বকে কাঁপিয়ে দেওয়া এই ভাইরাস। আগাম সতর্কতা নিতে ঝাঁপিয়েছে রিভার্জ ব্যাঙ্ক ও ইউনিক আইডেন্টিফিকেশন অথরিটি। এটিএম, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট, বিদেশি মুদ্রা লেনদেন ও অনলাইন শপিংয়ের সময় বাড়তি সতর্ক থাকার নির্দেশ তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রকের। আর এই চ্যালেঞ্জের মুখে পুড়ে রীতিমতো আশঙ্কায় আরবিআই ৷ সাইবার হানার ফলে এটিএমেও সমস্যা হতে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছিল ৷ আরবিআই কর্তৃপক্ষের চিন্তার কারণ, দেশের বেশিরভাগ এটিএমে ব্যবহার হচ্ছে উন্ডোজ এক্সপি-র পুরনো ভার্সান ৷ আরবিএআই আশঙ্কা করছে, এই সাইবার হানা থেকে বিপর্যস্ত হতে পারে দেশের ডিজিটাল লেনদেনও ৷ মঙ্গলবার গ্রাহকদের আশ্বাস দিয়ে স্টেট ব্যাঙ্কের তরফে জানানো হয়েছে, ‘আমাদের কোনও ATM বন্ধ নেই ৷ RBI গাইডলাইন মেনে কাজ করছি ৷ ATM ভাইরাসের জন্য আপগ্রেডেশন চলছে ৷ যদি কোনও ATM পরিষেবা বন্ধ থাকে ৷ তা শুধুই প্রযুক্তিগত কারণে বন্ধ রয়েছে ৷ কোনও সাইবার হানার কারণে নয়’, জানালেন SBI-এর CGM পার্থপ্রতিম সেনগুপ্ত ৷

গতকালই থেকেই ভারতে ব্যাঙ্ক ও এটিএমকে নিশানা করতে পারে  র‍্যানসামওয়্যার। এই সম্ভাবনা স্পষ্ট হতেই তড়িঘড়ি কাজে নামে কেন্দ্র। কিন্তু কিভাবে এর মোকাবিলা সম্ভব, সেটাই ঠিক করে উঠতে পারেননি বিশেষজ্ঞরা। সব ব্যাঙ্ককে অপারেটিং সিস্টেম আপগ্রেড করার  নির্দেশ দিয়ে নির্দেশিকা দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। -সব ব্যাঙ্কের এটিএম ও অপারেশন সিস্টেম আপডেট করার নির্দেশ -অন্তত ৩০ হাজার এটিএম রি-ক্যালিব্রেট করতে হবে - এসবিআই সহ অন্তত ৩টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক সেই কাজ শুরুও করেছে ইন্ডিয়ান কম্পিউটার্স ইমার্জেন্সি রেসকিউ টিমের দাবি, আতঙ্কিত হওয়ার কারণ না থাকলেও সতর্ক অবশ্যই থাকতে হবে। ব্যাঙ্ক, আর্থিক পরিষেবা, জাতীয় নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থার মতো জরুরি ক্ষেত্রে যাতে দাঁত না ফোটাতে পারে র‍্যানসামওয়্যার, তা নিশ্চিত করাই এখন লক্ষ্য। আর সেই লক্ষ্যে একযোগে ঝাঁপিয়েছে সংশ্লিষ্ট সবপক্ষ।

First published: May 16, 2017, 1:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर