পুরীতে বিজেডি প্রার্থীর কাছে হেরে গেলেন বিজেপির মুখপাত্র সম্বিত পাত্র!

photo source collected

  • Share this:

    #ওড়িশা: টানা কয়েক ঘণ্টা দড়ি টানাটানির পর শেষ পর্যন্ত হার মানলেন পুরী লোকসভা আসনে বিজেপি প্রার্থী ও দলের মুখপাত্র সম্বিত পাত্র। গোটা দেশে জয় হয়েছে বিজেপির। দেশের এ প্রান্ত থেকে সে প্রান্ত উড়ছে গেরুয়া পতাকা। কিন্তু এরই মধ্যে অস্বস্তি পদ্ম শিবিরে। হেরে গেলেন দলের মুখপত্র সম্বিত পাত্র। পুরী লোকসভা কেন্দ্রে তাঁকে প্রার্থী করেছিল বিজেপি। কিন্তু জনতা দলের বড় নেতা বিজেডির পিনাকী মিশ্রর কাছে ১১ হাজার ৭১৪ ভোটে হারলেন সম্বিত। পুরী দীর্ঘদিন বিজেডির শক্ত ঘাঁটি। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ব্রাজ কিশোর ত্রিপাঠী তিন বার এই আসন থেকে জিতেছিলেন। ২০০০৯ সালে এখান থেকে জিতেছেন পিনাকী। এই নিয়ে তিনবার জিতলেন তিনি। গোটা রাজ্যে ভালো ফল করেছে নবীন পট্টনায়কের দল। মোট ১২টি আসন পেয়েছে তাঁর দল। তবে গতবারের থেকে এই ফল খারাপ। গতবার ওড়িশার ২১টির মধ্যে ২০টি আসনের জিতেছিল বিজেডি। এবার ন'টি আসন হাতছাড়া হয়েছে।

    রাষ্ট্রবাদী বিজেপি প্রবক্তা সম্বিত পাত্র দিল্লী থেকে নিজের রাজনৈতিক জীবন অতিবাহিত করেন। কিন্তু উনি মুলত ভগবান জগন্নাথের মাটি ওড়িশার মানুষ। বিজেপি ভেবেছিল পুরী থেকে সম্বিত পাত্র লড়লে তাঁর নাম শুনেই লুকিয়ে পড়বে কংগ্রেসের প্রার্থী। কিন্তু বিষয়টা পুরো উল্টে গেল। বিজেডির কাছে হার স্বীকার করে নিতে হল তাঁকে। বিজেডির পিনাকি মিশ্র পেয়েছেন ৫ লক্ষ ৩৮হাজার ৩২১টি ভোট। সেখানে সম্বিত পাত্র পেয়েছেন ৫ লক্ষ ২৬ হাজার ৬০৭টি ভোট। শতাংশের হিসেবে মাত্র ১ শতাংশ কম ভোটে হারেন তিনি। তবে তাঁর হারে একটা বিষয় পরিস্কার যে তিনি যত বড়ই নেতা হোন না কেন পুরীর মানুষ তাঁকে চাননি। প্রার্থী নির্ণয়ের সময় জল্পনা ছিল পুরী কেন্দ্র নিয়ে। এখান থেকে লড়ার কথা ছিল নরেন্দ্র মোদির নিজের। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত বদলে পুরীতে দাঁড় করানো হয়েছিল সম্বিত পাত্রকে। তবে শেষ রক্ষা হল না। প্রথমবার লোকসভা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন সম্বিত। তাও আবার বিজু জনতা দলের (বিজেডি) শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত পুরীতে। শুরুতেই জগন্নাথ দেবের মূর্তি নিয়ে প্রচার করে নিজের বিপদ ডেকে এনেছিলেন সম্বিত। জগন্নাথ মন্দিরের সেবায়েতদের একাংশও তাঁর এই কাজে তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন।  আর সেই রাগের প্রকাশ ঘটল লোকসভা নির্বাচনে। হারতে হল সম্বিত পাত্রকে।

    First published: