রাজস্থানে সংখ্যালঘু গেহলট সরকার, বিজেপি যোগের জল্পনা বাড়িয়ে দাবি পাইলট শিবিরের

রাজস্থানে সংখ্যালঘু গেহলট সরকার, বিজেপি যোগের জল্পনা বাড়িয়ে দাবি পাইলট শিবিরের
গেহলট সরকার সংখ্যালঘু, দাবি পাইলট শিবিরের৷

রাজস্থানের কংগ্রেস নেতৃত্ব জোর গলায় বলছেন, দলের সব বিধায়কই মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের উপর আস্থা প্রকাশ করেছেন৷

  • Share this:

    #জয়পুর: জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার পথে হেঁটেই কি তবে সোমবারই বিজেপি-তে যোগ দিচ্ছেন সচিন পাইলট৷ নাকি ধোঁয়াশা বজায় রেখে দলের উপরে চাপ সৃষ্টি করে আরও কিছুটা সময় কিনবেন তিনি? সব মিলিয়ে সচিন পাইলটের ভবিষ্যৎ এবং রাজস্থানের কংগ্রেস সরকারের ভবিষ্যৎ নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে৷

    এ দিনই সকাল সাড়ে দশটায় সব বিধায়ককে নিয়ে জরুরি বৈঠক ডেকেছেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট৷ বৈঠকে সব বিধায়কের উপস্থিতি নিশ্চিত করার জন্য হুইপ জারি করা হয়েছে৷ সেই বৈঠকে পাইলট যে উপস্থিত থাকবেন না, তা স্পষ্ট৷ কারণ এখনও তিনি দিল্লিতেই ঘাঁটি গেড়ে রয়েছেন৷

    একদিকে রাজস্থানের কংগ্রেস নেতৃত্ব জোর গলায় বলছেন, দলের সব বিধায়কই মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলটের উপর আস্থা প্রকাশ করেছেন৷ সমর্থন জানিয়ে ১০৯ জন বিধায়ক চিঠিতে সইও করেছেন, আরও কয়েকজন বিধায়ক এ দিন বৈঠকের আগেই সই করে দেবেন৷ বেশ কয়েকজন নির্দল বিধায়কের সমর্থনও গেহলটের প্রতি রয়েছে বলে দাবি করেছে কংগ্রেস৷


    অন্যদিকে সচিন পাইলটের অফিস থেকে একটি বিবৃতি জারি করে দাবি করা হয়েছে, রাজস্থানে অশোক গেহলট সরকার সংখ্যালঘু হয়ে পড়েছে৷ কারণ অন্তত ৩০ জন বিধায়কের সমর্থন সচিন পাইলটের দিকে রয়েছে৷ দু'টি সর্বভারতীয় ইংরেজি সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, সচিন পাইলটের মিডিয়া সচিব লোকেন্দ্র সিং এই বিবৃতি জারি করে এমনই দাবি করেছেন৷ আবার এমনও শোনা যাচ্ছে, রবিবারই দিল্লিতে বিজেপি-র সহ সভাপতি ওম মাথুরের সঙ্গে দেখা করেছেন সচিন পাইলট৷ রাজস্থানের সংকট নিয়ে এখনও বিজেপি সেভাবে সরব না হলেও পাইলটের বিজেপি যোগের সম্ভাবনা ধীরে ধীরে জোরাল হচ্ছে৷ গত দু'দিন ধরে ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন পাইলট৷ অনেক কংগ্রেস নেতাও তাঁর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন৷ ফলে পাইলট আর কংগ্রেসে থাকছেন কি না, সেই প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে৷

    পাইলটকে নিরস্ত করতে আপাতত অশোক গেহলটের সবথেকে বড় অস্ত্র তাঁর বিরুদ্ধে করা রাজস্থান পুলিশের একটি এফআইআর৷ রাজস্থানে সরকার ফেলে দেওয়ার জন্য ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে রাজস্থানের উপমুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে৷ এমন কি, তাঁকে জেরা করার জন্যও ডেকে পাঠিয়েছে রাজস্থান পুলিশের বিশেষ টিম৷ এই এফআইআর নিয়েই আরও বেশি ক্ষুব্ধ পাইলট৷ রাজস্থানে কংগ্রেস সরকারের ভাগ্য এবং সচিন পাইলটের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী, তা এ দিনের মধ্যেই অনেকটা স্পষ্ট হয়ে যেতে পারে৷ কয়েক মাস আগেই

    মধ্যপ্রদেশে বিজেপি-তে যোগ দিয়েছিলেন কংগ্রেসের আর এক তরুণ নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া৷ ক্ষমতা হারিয়েছিল কমল নাথ সরকার৷ রাজস্থানেও কংগ্রেসের জন্য একই চিত্রনাট্য অপেক্ষা করে আছে কি না, সেটাই এখন দেখার৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published:

    লেটেস্ট খবর