• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • বিদ্যুতের বিল এসেছে ৮০ কোটি টাকা, উচ্চ রক্তচাপ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি বৃদ্ধ!

বিদ্যুতের বিল এসেছে ৮০ কোটি টাকা, উচ্চ রক্তচাপ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি বৃদ্ধ!

MSEDCL জানায়, যে সংস্থাটির উপরে মিটার রিডিং ও বিল তৈরি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তারাই এই মারাত্মক ভুলটি করেছে।

MSEDCL জানায়, যে সংস্থাটির উপরে মিটার রিডিং ও বিল তৈরি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তারাই এই মারাত্মক ভুলটি করেছে।

MSEDCL জানায়, যে সংস্থাটির উপরে মিটার রিডিং ও বিল তৈরি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তারাই এই মারাত্মক ভুলটি করেছে।

  • Share this:

    #মুম্বই: আর একটু হলেই জীবন কেড়ে নিত বিদ্যুতের বিল! শুনতে অবাক লাগলেও এমনই এক ঘটনার সাক্ষী থাকল মহারাষ্ট্রের নালাসোপারার নায়েক পরিবার। প্রতি বারের মতো এবারও বিল এসেছিল। তবে বিলে টাকার সংখ্যাটা দেখে জীবন যায়-যায় অবস্থা পরিবারের কর্তা বছর আশির গণপত নায়েকের। রক্তচাপ বেড়ে যাওয়ায় তড়িঘড়ি স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করতে হয় তাঁকে। কারণ ৮০ বছরের এই ব্যক্তিকে দিতে হত ৮০ কোটি টাকার বিদ্যুতের বিল। তবে শেষমেশ বিদ্যুৎ বিভাগের হস্তক্ষেপে সমস্যার সমাধান হয়।

    মহারাষ্ট্রের নালাসোপারায় একটি চালের মিল রয়েছে গণপত নায়েকের। গণপতের নাতি নীরজ তখন মিলেই কাজ করেছিলেন। এমন সময় বিল হাতে পান তাঁরা। এমনিতেই এত বয়সে হার্টের রোগে ভুগছিলেন। তার উপরে বিল দেখেই চক্ষু চড়কগাছ। উত্তেজনা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেননি গণপত। ক্রমে শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে তাঁর। হু-হু করে বাড়তে থাকে রক্তচাপ। পরিস্থিতি এতটাই বিপজ্জনক হয়ে ওঠে যে, তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।

    আরও পড়ুন বারবার শরীরে সুচ নয়! এক ডোজেই করোনাকে কুপাকাত করতে অনুমতির অপেক্ষায় Johnson and Johnson টিকা

    ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র স্টেট ইলেকট্রিসিটি ডিস্ট্রিবিউশন কম্পানি লিমিটেড (MSEDCL)-এর কানে যায় খবরটি। বৃদ্ধের পরিবারের তরফেও স্থানীয় বিদ্যুৎ বিভাগের অফিসে জানানো হয়। শেষমেশ ভুল ধরা পড়ে। MSEDCL-এর তরফে পুনরায় মিটার রিডিং চেক করা হয়। তার পর একটি নতুন সংশোধিত বিলও পাঠানো হয়। MSEDCL জানায়, যে সংস্থাটির উপরে মিটার রিডিং ও বিল তৈরি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল, তারাই এই মারাত্মক ভুলটি করেছে। ৬ ডিজিটের জায়গায় ৯ ডিজিটের বিল তৈরি করেছিল তারা। আর এর জেরেই যাবতীয় বিভ্রান্তি তৈরি হয়। ইলেকট্রিসিটি বোর্ডের আধিকারিক সুরেন্দ্র মোনেরে (Surendra Monere) জানান, অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা। আপাতত সুস্থ রয়েছেন নায়েক। নায়েকের পরিবারের জন্য নতুন বিলও ইস্যু করা হয়েছে। পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে MSEDCL।

    বিল পাওয়ার পর নায়েকের পরিবারের সদস্যরাও কিছু বুঝে উঠতে পারছিলেন না। India Today-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে গণপত নায়েকের নাতি নীরজ জানান, বিলটি দেখার পর রীতিমতো চমক গিয়েছিলাম। প্রথমে মনে হয়েছিল, হয় তো পুরো জেলার বিল একসঙ্গে এসেছে। তাই বিলটি ভালো করে দেখা হয়। কিন্তু না। বিল শুধু আমাদের বাড়ির নামেই ছিল। খুব ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম। লকডাউনের জেরে ইতিমধ্যেই যাবতীয় ডিউ ও অ্যারিয়ার নেওয়া শুরু করেছে স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ড। ভেবেছিলাম, সেই জন্য বোধ হয় বিল বেড়েছে। তবে এই পাহাড়প্রমাণ বিল দেখার পর কী করব বুঝতে পারছিলাম না!

    Published by:Pooja Basu
    First published: