corona virus btn
corona virus btn
Loading

১৮৯১-এর জুনেও ভয়ঙ্কর ঝড়ে তছনছ হয়েছিল মহারাষ্ট্র, সেই দুর্দিন কি ফের নিয়ে আসছে ‘নিসর্গ’?

১৮৯১-এর জুনেও ভয়ঙ্কর ঝড়ে তছনছ হয়েছিল মহারাষ্ট্র, সেই দুর্দিন কি ফের নিয়ে আসছে ‘নিসর্গ’?

আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে আরও প্রবল শক্তিশালী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা নিসর্গের ৷

  • Share this:

#মুম্বই: এবার পালা মহারাষ্ট্রের ৷ বাংলায় আমফানের রেশ কাটতে না কাটতে দেশের অন্যপ্রান্তে ফের ঘূর্ণি ঝড় তার তাণ্ডব দেখাতে তৈরি ৷ এবার সেই তাণ্ডবের নাম নিসর্গ ৷ আবহাওয়া দফতরের দেওয়া লাল সতর্কতা অনুযায়ী, আগামী ১২ ঘণ্টার মধ্যে আরও প্রবল শক্তিশালী হয়ে ওঠার সম্ভাবনা নিসর্গের ৷ আগামী ৬ ঘণ্টার মধ্যে আরও শক্তি সঞ্চয় করবে নিসর্গ ৷ আগামী ৬ ঘণ্টার মধ্যে নিসর্গ আরও শক্তি সঞ্চয় করে ছুটে যাবে উত্তর দিকে এবং আগামিকাল অর্থাৎ বুধবারে প্রবল গতিতে আছড়ে পড়তে পারে মহারাষ্ট্র উপকূলে।

মৌসম ভবন তাদের ইতিহাস ঘেঁটে দেখেছেন এর আগে ১৮৯১ সালের জুন মাসে আরব সাগরে ঠিক এরকমই ভয়ঙ্কর ঘূর্ণিঝড় তৈরি হয়েছিল ৷ সেটাই ছিল মহারাষ্ট্রের দেখা প্রথম ভয়াবহ ঝড় ৷ সে সময় আবহাওয়া পরিমাপ উন্নত না থাকায়, ভয়াবহ তাণ্ডবের মুখে পড়েছিল মহারাষ্ট্র ৷ তছনছ হয়েছিল বহু এলাকা ৷ ২০০৯ সালে অবশ্য একটি ঘূর্ণিঝড় তাণ্ডব দেখিয়েছিল মহারাষ্ট্রের কিছু জায়গায় ৷ তবে তার শক্তি খুব একটা বেশি না থাকায়, সেভাবে ক্ষতির মুখে পড়েনি এ রাজ্য৷

আবহাওয়া দফতরের কথায়, নিসর্গ যেভাবে শক্তি বাড়াচ্ছে, তাতে এই ঘূর্ণিঝড়ের রূপ বেশ ভয়ঙ্কর৷ একেবারে তছনছ হয়ে যেতে পারে মুম্বইসহ মহারাষ্ট্রের বহু এলাকা ৷

মঙ্গলবার বিকেলের মধ্যেই আরব সাগরের গভীর নিম্নচাপ ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। প্রথমে উত্তরমুখী পড়ে অভিমুখ পরিবর্তন করে অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। শেষ পর্যন্ত উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয় এটি মহারাষ্ট্রের রায়গর এর কাছে হরিহরেশ্বর ও দমনের মাঝে উপকূলে আছড়ে পড়বে। উপকূলে আছড়ে পড়ার সময় এই ঝড়ের গতিবেগ থাকতে পারে ১২৫ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায়।

মঙ্গলবার সকালে গভীর নিম্নচাপের অবস্থান পঞ্চম থেকে ৩০০ কিলোমিটার পশ্চিম -দক্ষিণ-পশ্চিমে। মহারাষ্ট্রের মুম্বাই উপকূল থেকে গভীর নিম্নচাপের অবস্থান ৫৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে। গুজরাতের সুরাট উপকূল থেকে এই গভীর নিম্নচাপের দূরত্ব ৭৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে।

দক্ষিণ-পূর্ব, পূর্ব মধ্য ও উত্তর-পূর্ব আরব সাগরে আগামী কয়েকদিন মৎস্যজীবীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা। অতিভারী বৃষ্টি হবে গুজরাত দাদরা, নগর হাভেলি ও মধ্য মহারাষ্ট্রে। ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা লাক্ষাদ্বীপ কেরলা কর্নাটক সাউথ কংকন গোয়াতে ও।

ঘূর্ণিঝড় আছে পড়ার আগেই বুধবার সকাল থেকে রায়গর মুম্বাই পালঘর থানে এলাকায় ঝড়ো হাওয়া বইবে ৯৫ থেকে ১১৫ কিলোমিটার গতিবেগে এই ঝড়ো হাওয়া বইতে পারে। গুজরাটের ভালসার ও নাভাসাড়ি এবং মহারাষ্ট্রের রত্নগিরি সিন্ধুদূর্গ এলাকায় ৮০ থেকে ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে বুধবারে। ৭০থেকে ৯০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টায় ঝড় বয়ে যাবে গুজরাতের সুরাটের ভারুচ এলাকায়।

Published by: Akash Misra
First published: June 2, 2020, 10:43 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर