দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

প্রিয় দেশি কুকুরদের আদর করতে অফিসের সিঁড়িতেই বসে পড়লেন রতন টাটা ! প্রশংসা সোশ্যাল মিডিয়ায় !

প্রিয় দেশি কুকুরদের আদর করতে অফিসের সিঁড়িতেই বসে পড়লেন রতন টাটা ! প্রশংসা সোশ্যাল মিডিয়ায় !

সম্প্রতি দিওয়ালি উপলক্ষ্যে তিনি একটি পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায় !

  • Share this:

#মুম্বই: রতন টাটা। এই নামটার সঙ্গে ভারতের প্রায় সকলেই পরিচিত। শুধু টাটা গ্রুপের ব্যবসার জন্য নয়, রতন টাটা খ্যাত তাঁর ব্যক্তিত্বের জন্য। রতন টাটা সব সময় দেশের মানুষের পাশে থাকার চেষ্টা করেন। এমনকি তাঁকে কঠিন পরিস্থিতিতে মন্তব্য করতেও দেখা যায়। রতন টাটা করোনা পরিস্থিতিতেও এগিয়ে এসেছেন। সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন মানুষের দিকে। করোনা হাসপাতাল তৈরি করেছেন। টাকা ডোনেট করেছেন। এমনকি তাঁর প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কোনও ব্যক্তির চাকরি যায়নি এই কঠিন সময়েও।

View this post on Instagram

A post shared by Ratan Tata (@ratantata)

তবে রতন টাটা মানুষ ভালোবাসেন এ কথা যেমন জানা, তেমনই তাঁর পশুপ্রেমের কথাও সকলের জানা। কেরলের হাতি মৃত্যুর ঘটনার তিনি তীব্র প্রতিবাদ করেছিলেন। তেমনই পথ কুকুরদের জন্যও তাঁকে কথা বলতে দেখা গিয়েছে। রতন টাটা তাঁর ইনস্টাগ্রাম ও ট্যুইটার হ্যান্ডেল নিজেই দেখেন। সেখানে সব কিছু পোস্ট তিনি নিজেই করেন। এবারও তেমন একটি পোস্ট করে তিনি জিতে নিলেন সকলের মন।

সম্প্রতি দিওয়ালি উপলক্ষ্যে তিনি একটি পোস্ট করেছেন। নিজের অফিসের সিঁড়িতে দুটি দেশি কুকুরের সঙ্গে বসে আছেন তিনি। তাঁর মুখে রয়েছে মাস্ক। এই ছবি শেয়ার করে তিনি লিখেছেন, "বোম্বে হাউসে ওদের সঙ্গে কাটানো একটি হৃদয়ছোঁয়া মুহূর্ত। বিশেষ করে গোয়ার সঙ্গে সময় কাটানো।" এই পোস্ট শেয়ার হতেই সকলে প্রশ্ন করতে থাকেন। এক ব্যক্তি প্রশ্ন করেন, 'আপনার এই পোষা কুকুরটির নাম গোয়া কেন? নিশ্চয় এর পিছনে কোনও গল্প আছে? প্লিস বলবেন।" অবাক কাণ্ড হল রতন টাটা নবিজেই ওই ব্যক্তিকে উত্তর দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, "আমার এক কলিগ একবার গোয়া বেড়াতে যায়। তখন ও গাড়িতে উঠে পড়ে। এবং বোম্বে চলে আসে। সেই থেকে গোয়া আছে। ওর নাম গোয়া রাখা হয় এই কারণে।" রতন টাটার এই মাটির মানুষ রূপ আগেও দেখেছেন মানুষ। সকলে ওই ব্যক্তিকে বলেছেন, আপনি খুব লাকি। রতন টাটা আপনাকে উত্তর দিয়েছেন।" গোটা সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে এখন রতন টাটার প্রশংসা চলছে।

Published by: Piya Banerjee
First published: November 19, 2020, 12:18 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर