corona virus btn
corona virus btn
Loading

মাত্র ১৮-তেই স্বপ্নপূরণ, তরুণের সংস্থায় বিপুল লগ্নি করলেন রতন টাটা

মাত্র  ১৮-তেই স্বপ্নপূরণ, তরুণের সংস্থায় বিপুল লগ্নি করলেন রতন টাটা
সংগৃহীত ছবি

তবে অর্জুনের ‘জেনেরিক আধার‘ প্রথম নয়। এর আগেও রতন টাটা দেশের নবীন স্টার্ট আপ-এর পাশে দাঁড়িয়েছেন। ওলা, উবর, পেটিএম, আর্বান ল্যাডার-এর মতো বাণিজ্যিক সংস্থায় লগ্নি করেছেন রতন টাটা।

  • Share this:

#মুম্বইঃ মনে ইচ্ছা ছিল আমজনতা ন্যায্যমূল্যে ওষুধ পাবেন। মাত্র  ১৮-তেই স্বপ্ন সফল। অর্জুন দেশপাণ্ডের স্বপ্নকে চিরস্থায়ী করতে এগিয়ে এসেছেন স্বয়ং রতন টাটা।অর্জুনের ‘জেনেরিক আধার’ রিটেল চেনে বৃহস্পতিবার লগ্নি করেন রতন টাটা।  তিনি ওই সংস্থার ৫০ শতাংশ শেয়ার কিনেছেন। জেনেরিক আধার সরাসরি প্রস্তুতকারীদের কাছ থেকে কাঁচামাল সংগ্রহ করে। ওষুধ তৈরি করে তা পাঠানো হয় রিটেলার বা খুচরো বিক্রেতাদের কাছে। ফলে মধ্যসত্ত্বভোগীরা না থাকায় খুব সহজেই ওষুধ পৌঁছে যাবে সাধারণ মানুষের হাতে।

শুধু তাই নয়। দামও কমবে। এই উদ্যোগের ফলে ওষুধের মতো অত্যাবশ্যকীয় পণ্য সুলভ মূল্যে দেশবাসীর কাছে পৌঁছে যাবে। আপাতত শুধু মধুমেহ ও উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ নিয়ে কাজ করছে অর্জুনের সংস্থা জেনেরিক আধার। তবে খুব তাড়াতাড়ি ‘জেনেরিক আধার’ ক্যানসারের ওষুধ নিয়েও কাজ করবে। সে ক্ষেত্রে চলতি বাজারদরের থেকে অনেক কম দামে রোগীদের কাছে ওষুধ পৌঁছে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে।

তবে অর্জুনের ‘জেনেরিক আধার‘ প্রথম নয়। এর আগেও রতন টাটা দেশের নবীন স্টার্ট আপ-এর পাশে দাঁড়িয়েছেন। ওলা, উবর, পেটিএম, আর্বান ল্যাডার-এর মতো বাণিজ্যিক সংস্থায় লগ্নি করেছেন রতন টাটা। অর্জুন জানিয়েছেন, এই উদ্যোগের পিছনে অনুঘটক তাঁর মা। তাঁর  মা আন্তর্জাতিক ওষুধের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। মায়ের সঙ্গে ছোটবেলায় বহু বার বিদেশ সফর করে সে অনুভব করে বিদেশের তুলনায় দেশে ওষুধের দাম অনেক বেশি। মায়ের কাছে জানতে পারে, একই কম্পোজিশনের ওষুধের  দাম ব্র্যান্ডভেদে পরিবর্তিত হয়। এ বিষয়ে  তাঁর ভাবনাচিন্তা শুরু। তাঁর সেই উদ্যোগ বাস্তবের রূপ পেয়েছে। অর্জুন জানিয়েছেন, তাঁর জেনেরিক আঁধারের বার্ষিক ব্যবসা ৬ কোটি টাকা।

Published by: Shubhagata Dey
First published: May 8, 2020, 6:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर