• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ৫০ বছর পর গুজরাতে দেখা মিলল বাঘের থেকেও হিংস্র, ক্ষিপ্র, ভয়ঙ্কর শিকারী কুকুরের

৫০ বছর পর গুজরাতে দেখা মিলল বাঘের থেকেও হিংস্র, ক্ষিপ্র, ভয়ঙ্কর শিকারী কুকুরের

  • Share this:

    #রনথম্ভোর: গোটা দেশেই চলছে লক ডাউন । করোনা আতঙ্কে এখন গৃহবন্দি গোটা দেশই । আর সেই সুযোগেই যেন ডানা মেলতে চলেছে এই বসুন্ধরা । কবি লিখেছিলেন, ‘দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর।’ গোটা দেশ যখন কাবু ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র একটি ভাইরাসের চোখ রাঙানিতে । বিশ্ব যখন নাভিঃশ্বাস তুলছে । তখন আপন খেয়ালে ফের নিজেকে একটু গুছিয়ে নিচ্ছে প্রকৃতি । মানুষের অত্যাচারে একটু ওলোটপালট হয়ে যাওয়া, অনেকটা দূষণ বেড়ে যাওয়া, আন্টার্টিকার গলে যাওয়া বরফ, বেড়ে যাওয়া জলস্তর, কমে যাওয়া সবুজ, ফিকে হয়ে যাওয়া অক্সিজেন, সবটাই আবার একটু একটু করে সাজিয়ে নিচ্ছে প্রকৃতি মা । নিস্তেজ হয়ে যাওয়া শহরে আজ বিনা চিন্তায় হেঁটে বেড়াচ্ছে হরিণ,, নীলগাই, বাঘরোল, ভামের দল । পরিষ্কার আকাশে আরও পরিষ্কার বাতাসে প্রাণ ভরে শ্বাস নিচ্ছে সকলে । কখনও ডলফিন, কখনও কচ্ছপ, কখনও বিরল ঈগলদের ফিরিয়ে আনছে ভালবেসে । বহু যুগ পর নিজের সন্তানদের উড়তে শেখাচ্ছে প্রকৃতি মা ।

    সেই সময়েই গুজরাতে ৫০ বছর পর দেখা মিলল ভয়ঙ্কর হিংস্র এশিয়াটিক ওয়াইল্ড ডগ-এর । এই কুকুরের স্থানীয় নাম ঢোল কুকুর । ১৯৭০ সালে এই কুকুরকে মারার জন্য প্রশাসন ২ টাকা করে পুরষ্কার দিত । তবে এখন এই কুকুর বিরল প্রজাতির দলে জায়গা করে নিয়েছে । গত ৫০ বছরে এদের দেখা পাওয়া যায়নি । এই ঢোল কুকুর এতটাই ভয়ঙ্কর যে একটা বাঘের সমান শক্তি ধরে এরা । নিজের থেকে প্রায় ১০ কেজি বেশি ওজনের শিকার অনায়াসে করতে পারে । আক্রমণের সময় এরা প্রথমে টার্গেট করে শিকারের চোখকে । তারপর চোখ খুলবলে নিয়ে শিকারকে দূর্বল করে দেয় ।

    সম্প্রতি এদের সন্ধান মিলল ভানসদা ন্যাশনাল পার্কের সানহাদি রেঞ্জ এলাকায় । প্রথমে বনকর্মীরা দু’টি বিরল প্রজাতির কুকুর দেখতে পান । তাদের উপর নজর লাগানোর জন্য জঙ্গলে গোপন ক্যামেরা বসানো হয় । তাতেই পরিষ্কার ধরা পড়ে ঢোল কুকুরদের গতিবিধি । IFS অফিসার প্রবীণ কাসওয়ানও এশিয়াটিক ওয়াইল্ড ডগ-এর ছবি শেয়ার করেছেন ।

    Published by:Simli Raha
    First published: