• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • বিদেশ থেকে কেরালায় ফিরে জ্বরে আক্রান্ত সেনা, শনাক্ত হল বিরল প্রজাতির ম্যালেরিয়া

বিদেশ থেকে কেরালায় ফিরে জ্বরে আক্রান্ত সেনা, শনাক্ত হল বিরল প্রজাতির ম্যালেরিয়া

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা জানিয়েছেন, ‘’সঠিক সময় রোগটি চিহ্নিত করা গিয়েছে। তাই চিকিৎসাতে কোনও বাধা তৈরি হয়নি। এবং সংক্রমণ হয়নি বলেই আমরা আশা করছি।‘’

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা জানিয়েছেন, ‘’সঠিক সময় রোগটি চিহ্নিত করা গিয়েছে। তাই চিকিৎসাতে কোনও বাধা তৈরি হয়নি। এবং সংক্রমণ হয়নি বলেই আমরা আশা করছি।‘’

রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা জানিয়েছেন, ‘’সঠিক সময় রোগটি চিহ্নিত করা গিয়েছে। তাই চিকিৎসাতে কোনও বাধা তৈরি হয়নি। এবং সংক্রমণ হয়নি বলেই আমরা আশা করছি।‘’

  • Share this:

    #কেরালা: বৃহস্পতিবার কেরালায় এক বিশেষ প্রজাতির ম্যালেরিয়া শনাক্ত করা হয়েছে যার নাম দেওয়া হয়েছে ‘প্লাজমোডিয়াম ওভাল’। এর আগে কখনও এই ধরনের ম্যালেরিয়ার খবর পাওয়া যায়নি। ওই রাজ্যে কন্নুর জেলায় একজন সেনার দেহ থেকেই এই রোগের খোঁজ মেলে বলে স্বাস্থ্য দপ্তর জানিয়েছে। পেশায় তিনি একজন ভারতীয় সেনা এবং ওই দেশে ভারত সরকারের দূত হিসেবে কাজ করছিলেন।

    কন্নুর জেলার হাসপাতালের চিকিৎসক রাজীবনের কথায়, ‘’চলতি বছর জানুয়ারিতে ৪০ বছরের ওই ব্যক্তি সুডান থেকে এ দেশে ফেরত আসেন। কিছুদিন তিনি দিল্লিতেই ছিলেন। এক মাসে আগে তিনি কেরালায় ফেরেন। তারপর থেকে নানা রকমের করোনার উপসর্গ দেখা দেয়। কোভিডের টেস্ট করালেও রিপোর্ট নেগেটিভ আসে’’।

    ডাক্তারের মতে, ওই ব্যক্তি যখন সুডানে কাজের সূত্রে ছিলেন কয়েক বছর, তখনই তাঁর শরীরে এই রোগটি বাসা বাঁধে। ‘প্লাজমোডিয়াম ওভাল’ হল ম্যালেরিয়া একটি ধরন, যা এ দেশে হয় না। স্ত্রী অ্যানোফিলিস মশার কামড়ে এই ম্যালেরিয়া হয়। সুডানের স্থানীয় রোগ বলে একে জানা গিয়েছে। অন্যদিকে ভারতে যে ধরনের ম্যালেরিয়া সচরাচর দেখা যায় তা হল ‘প্লাজমোডিয়াম ফ্যালসিপেরাম’ এবং ‘প্লাজমোডিয়াম ভাইভ্যাক্স’। এগুলি অনেক বেশি মারাত্মক।

    ডাক্তার রাজীবনের কথায়, ‘’এই প্যারাসাইটটির ক্ষমতা অনেক বেশি। যার ফলে মশা কামড়ানোর দীর্ঘ দিন পরেও মানব দেহে প্লীহা বা যকৃতে এর পক্ষে থাকা সম্ভব হয়েছিল।‘’। তিনি আরও বলেন, ‘’কোভিডের টেস্ট নেগেটিভ আসার দরুণ, আমরা ম্যালেরিয়া টেস্ট করি। কিন্তু এদেশে যে ধরনের ম্যালেরিয়া হতে দেখা যায়, তার কোনওটাই ছিল না। তাই আমরা বার বার পরীক্ষা চালিয়ে যাই। পরে বুঝতে পারি এটা প্লাজমোডিয়াম ওভাল’’।

    রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী কে কে শৈলজা জানিয়েছেন, ‘’সঠিক সময় রোগটি চিহ্নিত করা গিয়েছে। তাই চিকিৎসাতে কোনও বাধা তৈরি হয়নি। এবং সংক্রমণ হয়নি বলেই আমরা আশা করছি।‘’

    ওই ব্যক্তি কেরালায় আসার পর সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য নিজেকে পৃথকভাবে রেখেছিলেন। তাই রোগটি ছড়িয়ে পড়ার কোনও সম্ভাবনা নেই বলেই আশা করছেন বিশেষজ্ঞরা। ব্যক্তি সুস্থ হয়ে ওঠার পর তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

    Somosree Das

    Published by:Piya Banerjee
    First published: