• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ফের ধর্ষিতা শিশুকন্যা! মহারাষ্ট্রে ৪ বছরের শিশুকে পাওয়া গেল চটের ব্যাগের মধ্যে

ফের ধর্ষিতা শিশুকন্যা! মহারাষ্ট্রে ৪ বছরের শিশুকে পাওয়া গেল চটের ব্যাগের মধ্যে

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের পালঘরে। সোমবার পুলিশ জানায়, একটি চটের ব্যাগে অচেতন অবস্থায় মিলেছে তার পরিত্যক্ত দেহ।

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের পালঘরে। সোমবার পুলিশ জানায়, একটি চটের ব্যাগে অচেতন অবস্থায় মিলেছে তার পরিত্যক্ত দেহ।

ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের পালঘরে। সোমবার পুলিশ জানায়, একটি চটের ব্যাগে অচেতন অবস্থায় মিলেছে তার পরিত্যক্ত দেহ।

  • Share this:

    #পালঘরঃ ভারতবর্ষে এখন ধর্ষণ নিত্তনৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রাপ্তবয়স্ক নারী হোক কিংবা শিশুকন্যা, ছাড় নেই কারও। আসিফা থেকে মনীষা, বলি হতে থাকে একের পর এক। পুরুষের বিকৃত কামনার শিকার এ বার বছর চারেকের একটি ফুটফুটে শিশুকন্যা। রেহাই পায়নি এমন ফুলের মত শিশুও। এতটুকু শিশুর উপর এমন পাশবিক অত্যাচারের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রের পালঘরে। সোমবার পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, অচেতন অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে শিশুটিকে। ধর্ষণের পর একটি চটের ব্যাগে ভরে রেখে দেওয়া হয়েছিল তাকে।

    রবিবার এলাকায় একটি চটের ব্যাগ পড়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় স্থানীয় বাসিন্দাদের। তাঁরাই খবর দেন পুলিশকে। খবর পেয়েই দ্রুত পুলিশ এসে পৌঁছয় সেখানে। ছোট্ট শিশুকে ক্ষত-বিক্ষত অবস্থায় নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। সেখানেই চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন । প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় জানা যায়,  শিশুটি যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছে। ধর্ষণ করা হয়েছে তাকে ।

    পুলিশ ইনস্পেক্টর বিলাস চুংলে বলেন, অচেতন অবস্থায় ব্যাগের মধ্যে শিশুটিকে পাওয়া যায়। প্রাথমিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় বোঝা গিয়েছে, শারীরিকভাবে নির্যাতিত সে। পুলিশ অফিসার আরও জানিয়েছেন, রবিবার ইন্ডিয়ান পিনাল কোডের ৩৬৩ নং ধারায় একটি শিশুকন্যার অপহরণের মামলা করা হয়েছে ভায়ান্দর থানায়। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের সন্দেহের তীর গিয়েছে এক ব্যক্তির দিকে। ইতিমধ্যেই গ্রেফতারও করা হয়েছে তাকে। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা রুজু হয়েছে ইন্ডিয়ান পিনাল কোডের ৩৭৬ নম্বর ধারায়।

    তবে এই মামলায় যদি দোষী শাস্তিও পায়, প্রশ্নচিহ্ন কিন্তু থেকেই যাবে। কবে বন্ধ হবে এরকম ভয়াবহ সব ঘটনা? আর দোষীর শাস্তি হলেই কি এই ফুলের মত নিষ্পাপ শিশুরা ফিরে পাবে তাদের সুন্দর শৈশব?

    Published by:Antara Dey
    First published: