corona virus btn
corona virus btn
Loading

রেল টিকিট নষ্ট করলে খরচা দিতে হবে সাংসদকেই, অপচয় রুখতে কড়া পদক্ষেপ

রেল টিকিট নষ্ট করলে খরচা দিতে হবে সাংসদকেই, অপচয় রুখতে কড়া পদক্ষেপ
প্রতীকী চিত্র৷

নিয়ম অনুযায়ী, সব সাংসদই প্রথম শ্রেণি এসি-র একটি ট্রেনের পাস পান৷ যেটি দিয়ে তিনি দেশের যে কোনও প্রান্তে সফর করতে পারেন৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: একসঙ্গে অনেকগুলি ট্রেনের টিকিট কেটে রাখছেন রাজ্যসভার সাংসদরা৷ অথচ শেষ পর্যন্ত তাঁরা যাত্রা করছেন না৷ আবার টিকিট বাতিল না করায় সেই আসন অন্য যাত্রীদেরও বিক্রি করতে পারছে না রেল৷ ফলে রেলকে সেই ফাঁকা আসনগুলির খরচ দিতে হচ্ছে সরকারকে৷ এই ধরনের অভিযোগ অনেক দিন ধরেই উঠছিল৷ রাজ্যসভার সচিবালয়ও এই অভিযোগের সত্যতা পেয়েছিল৷

অপচয় রুখতে এবার তাই কড়া পদক্ষেপ করল রাজ্যসভার সচিবালয়৷ এবার থেকে যদি রাজ্যসভার কোনও সাংসদ রেলের টিকিট বুক করেও যাত্রা না করেন, তাহলে সাংসদকেই টিকিট বাতিল করে দিতে হবে৷ তা না হলে সেই টিকিটের দাম সংশ্লিষ্ট সাংসদেকই দিতে হবে৷

নিয়ম অনুযায়ী, সব সাংসদই রেল সফরের জন্য প্রথম শ্রেণি এসি-র একটি পাস পান৷ যেটি দিয়ে তিনি দেশের যে কোনও প্রান্তে সফর করতে পারেন৷ সাংসদের এক সহকারীও এসি টু টিয়ার কোচে বিনামূল্যে সফর করতে পারেন৷ সাংসদের স্ত্রীরাও ট্রেন সফরের ক্ষেত্রে সাংসদের সমান সুবিধাই পেয়ে থাকেন৷

২০১৯-২০ অর্থবর্ষে রেল রাজ্যসভাকে চার কোটির বিল পাঠিয়েছিল৷ নিয়ম অনুযায়ী টিকিটের দাম বাবদ রেল যে বিল পাঠায়, তার এক তৃতীয়াংশ রাজ্যসভাকে মিটিয়ে দিতে হয়৷ রাজ্যসভায় যে পরিমাণ বিল হয়, লোকসভায় সেই বিল আরও অন্তত তিন গুন বেশি হওয়ার কথা৷ রাজ্যসভার বাজেট থেকে অপচয় কমানোর জন্য সাংসদদের কাছে অনুরোধ করা হয়েছে, যে টিকিটগুলি ব্যবহার করা হবে না, সেগুলি যেন বাতিল করে দেওয়া হয়৷

রাজ্যসভা সচিবালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী, সাংসদরা অব্যবহৃত টিকিট ক্যানসেল না করলে সেই খরচ তাঁদেরই মেটাতে হবে৷ করোনা সংকট শুরু হওয়ার পরই রাজ্যসভার চেয়ারম্যান ভেঙ্কাইয়া নাইডু জানিয়েছিলেন, খরচ কমানোর জন্য আপাতত বিদেশ সফরে যেতে পারবেন না সাংসদরা৷ এক বছর পর্যন্ত সাংসদদের নতুন গাড়ি কেনার উপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেন চেয়ারম্যান৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: June 12, 2020, 10:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर