corona virus btn
corona virus btn
Loading

চিনা আগ্রাসনের জবাব দিতে কি তৈরি ভারত? নিজেদের শক্তি বুঝতে জরুরি বৈঠকে রাজনাথ

চিনা আগ্রাসনের জবাব দিতে কি তৈরি ভারত? নিজেদের শক্তি বুঝতে জরুরি বৈঠকে রাজনাথ
চিন সীমান্তে বাড়ছে উত্তেজনা৷ চিন সীমান্তে বাড়ছে উত্তেজনা৷PHOTO- PTI

এ মাসের শুরুর দিকেই লাদাখের প্যাংগং লেকের কাছে লোহার রড এবং লাঠি নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে দু' পক্ষের প্রায় ২৫০ সেনা জওয়ান৷

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: লাদাখ সীমান্তে ভারত এবং চিনের সেনাবাহিনীর মধ্যে সংঘাতের আবহের মধ্যেই চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াতের সঙ্গে নিরাপত্তা পর্যালোচনা বৈঠক করলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং৷ বৈঠকে তিন বাহিনীর প্রধানও উপস্থিত ছিলেন৷

গত কয়েক সপ্তাহের মধ্যে একাধিকবার এমনই বৈঠক করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী৷ মনে করা হচ্ছে, সীমান্তে চিন নতুন করে যে প্ররোচনা দিচ্ছে, তার জবাব দেওয়ার জন্য দেশের সামরিক বাহিনী কতটা তৈরি, সেটাই বুঝে নিতে চাইছে সরকার৷ লেহ থেকে ফিরে এসে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কী পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তা বিশদে প্রতিরক্ষামন্ত্রীকে জানান সেনা প্রধান এম এম নারভানে৷

গত ৫ মার্চ প্রথমবার সংঘাতের পর চিন এবং ভারতীয় বাহিনীর সেনা কর্তাদের মধ্যে ছ' দফায় আলোচনা হলেও সীমান্তে উত্তেজনা এতটুকু কমেনি৷ বরং দুই দেশের বাহিনীই আগ্রাসী অবস্থান বজায় রেখেছে৷

সূত্রের খবর, চিন দাবি করেছে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার এপারে ভারতের দিকে পরিকাঠামো গড়ে তোলার কাজ বন্ধ রাখা হোক৷ যা মেনে নিতে নারাজ নয়াদিল্লি৷ পাল্টা ভারত সরকারের তরফে বেজিংয়ের কাছে দাবি করা হয়েছে, যাতে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর স্থিতাবস্থা বজায় রাখা হয়৷

ভারতের দিকে গত বছর তৈরি করা ২৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ ডাবরুক-শিয়ক-ডিবিও রোড তৈরি করা নিয়েই চিনের মূল আপত্তি৷ এই রাস্তাটি তৈরির ফলে সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর যাতায়াত এবং নজরদারি চালানোর ক্ষেত্রে অনেক বেশি সুবিধে হয়েছে৷

এ মাসের শুরুর দিকেই লাদাখের প্যাংগং লেকের কাছে লোহার রড এবং লাঠি নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন দু' পক্ষের প্রায় ২৫০ সেনা জওয়ান৷ এমন কী পাথর ছোড়াছুড়িও হয়৷ যার ফলে দু'পক্ষেরই বেশ কয়েকজন আহত হয়৷ আবার মে মাসের ৯ তারিখে সিকিমের নাকুলা পাসে দু' দেশের প্রায় দেড়শো সেনা জওয়ান সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন৷ এই ঘটনায় ভারত এবং চিনের অন্তত ১০ জন সৈন্য আহত হন৷

উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার পরই ভারত এবং চিন দু' পক্ষই নিজেদের সীমান্তে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করেছে৷ নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর অন্তত তিনটি জায়গায় তাঁবু ফেলেছে দু' পক্ষই, প্রতিপক্ষের হামলা ঠেকানোর তোড়জোড় শুরু হয়েছে৷ উত্তরাখণ্ডেও প্রকৃত নিয়ন্ত্ররেখা বরাবর নিজেদের দিকে চিনা বাহিনী নির্মাণ কাজ শুরু করায় সীমান্তে বাড়তি সেনা মোতায়েন করেছে ভারত৷

 
Published by: Debamoy Ghosh
First published: May 26, 2020, 6:14 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर