লম্বা পথ পায়ে হেঁটে স্কুল পৌঁছতে হতো গ্রামের মেয়েদের, PF -এর টাকা দিয়ে বাস কিনে দিলেন প্রবীণ চিকিৎসক

লম্বা পথ পায়ে হেঁটে স্কুল পৌঁছতে হতো গ্রামের মেয়েদের, PF -এর টাকা দিয়ে বাস কিনে দিলেন প্রবীণ চিকিৎসক

photo- tweeter

অবনীস স্মরণ নামের এক আইএএস অফিসার ট্যুইটারে শেয়ার করে বিষয়টি জানিয়েছেন। আইএএস অফিসারের সেই ট্যুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই।

  • Share this:

    #কোটপুটলি : রাজস্থানের কোটপুটলিতে এক ৬১ বছরের বর্ষীয়ান চিকিৎসক গ্রামের মেয়েদের পড়াশোনার জন্য এমন সাহায্য করেছেন যার প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা। স্থানীয় চিকিৎসক আর পি যাদব দেখেছিলেন যাতায়াতের কোনও তেমন ব্যবস্থা না থাকায় কয়েক কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটেই স্কুল কলেজ যেতে হতো গ্রামের মেয়েদের। সহানুভূতিপ্রবণ চিকিৎসক ভাবতেন কীভাবে এর থেকে বাঁচানো যায় ওঁদের। কোনওভাবে সুযোগ করে দেওয়া যায় যাতায়াতের। ভাবতে ভাবতে পথও পেয়ে যান তিনি। ঠিক করেন অবসরের পর পাওয়া পি এফ-এর টাকাতেই কিছু একটা করা যাবে। যেমন ভাবা তেমন কাজ।

    এতো লম্বা পথ হেঁটে স্কুল যেতে যাতে আর কষ্ট না হয় গ্রামের মেয়েদের, তাই পি এফ-এর ১৯ লক্ষ টাকা দিয়ে গোটা একটা বাসই কিনে নেন তিনি। অবনীস স্মরণ নামের এক আইএএস অফিসার ট্যুইটারে শেয়ার করে বিষয়টি জানিয়েছেন। আইএএস অফিসারের সেই ট্যুইট সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। ৫০০ র বেশি মানুষ এই পোস্টটি রিট্যুইট করেছেন। লাইক করেছেন প্রায় ৩০০০ জন।  সকলেই একবাক্যে বলেছেন এমন সহনাগরিক থাকলে বোধহয় দেশের অর্ধেক সমস্যা সমাধান হয়ে যায়। এটাই সত্যিকারেরটা দেশভক্তি বা দেশসেবা বলেও মন্তব্য করেন অনেকে।

    বস্তুত, নিজের প্রভিডেন্ট ফান্ড থেকে ১৯ লক্ষ টাকা বের করে মেয়েদের জন্য বাস কিনে ফেলেন তিনি। চিকিৎসক আর.পি. যাদবের এই কাজের জন্য দেশজুড়ে মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসা মুখর হয়েছে। আইপিএস আর কে বিজ লিখেছেন, “এমন ব্যক্তিকে আমি প্রণাম জানাই।”

    Published by:Sanjukta Sarkar
    First published: