আন্দোলনরত কৃষকদের উৎসাহিত করতে কবিতা ট্যুইট রাহুল গান্ধির

আন্দোলনরত কৃষকদের উৎসাহিত করতে কবিতা ট্যুইট করলেন রাহুল গান্ধি

রবিবার সকালে কৃষক আন্দোলনে উৎসাহ দিতে কবিতা ট্যুইট করলেন রাহুল৷ হিন্দি কবি দ্বারিকা প্রসাদ মাহেশ্বরীর কবিতা 'বীর তুম বড়ে চলো'র কয়েকটি লাইন পোস্ট করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: বিরোধিদের অনবরত কটাক্ষ৷ এর সঙ্গেই রয়েছে দলের অন্দরমহলে তাঁর নেতৃত্ব নিয়ে বহু প্রশ্ন৷ তবুও কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি নিজের লক্ষ্যে অবিচল৷ রবিবার সকালে কৃষক আন্দোলনে উৎসাহ দিতে কবিতা ট্যুইট করলেন রাহুল৷

    হিন্দি কবি দ্বারিকা প্রসাদ মাহেশ্বরীর কবিতা 'বীর তুম বড়ে চলো'র কয়েকটি লাইন পোস্ট করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি৷ বাংলায় যার মর্মার্থ তর্জমা করলে দাঁড়ায়, “হে বীর, তুমি এগিয়ে চলো, ধৈর্য ধরে এগিয়ে চলো। জলকামানের তোড়েও তুমি থেকো নির্ভীক৷ দৃড় ভাবেই এগিয়ে চলো অন্নদাতা৷"

    গত ২৪ ডিসেম্বর কেন্দ্রের কৃষি আইনের প্রতিবাদে কংগ্রেসের রাষ্ট্রপতি ভবন অভিযান ছিল৷ বিতর্কিত নয়া কৃষি আইনের বিরুদ্ধে দু'কোটি স্বাক্ষর নিয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে একটি স্মারকপত্র জমা দিতে গিয়েছিল কংগ্রেস৷ যদি কংগ্রেসের এই অভিযানে প্রথমে বাধা দেয় পুলিশ। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী-সহ আরও কয়েকজন কংগ্রেস নেতাকে হেফাজতে নিয়েছিল দিল্লি পুলিশ। পরে রাহুল অ্যান্ড কোং রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করেন৷ বেরিয়ে আসে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন৷ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আক্রমণ করে বলেছিলেন, "কৃষক ও শ্রমিকরা এখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে৷ তবে বরাবরের মতো, যেই মুহূর্তে কেউ সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলেছে, তাঁকে দেশদ্রোহী কিংবা সন্ত্রাসবাদী হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। এটি অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক৷ তবে এটাই হচ্ছে জনগণের কণ্ঠরোধ করা হচ্ছে৷"

    দু'দিন আগেই রাহুলকে এই অভিযোগের পাল্টা দেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি৷ কটাক্ষ করে তিনি বলেছিলেন, "রাহুল গান্ধি মিথ্যাচার ও কুমীরের কান্না কৃষকদের বিভ্রান্ত করছে৷ ওঁর নিজের জামাইবাবুই কৃষকদের জমি অবৈধ ভাবে দখল করেছিল আমেঠিতে৷ আমি আসার আগে এখানে কী উন্নয়ন হয়েছিল সবার জানা আছে৷ গান্ধি পরিবার আমেঠি নিজেদের দখলে রেখেও কৃষকদের উন্নয়ন থেকে বহু দূরে রেখেছিল৷ ক্রমাগত তাদের ভুল পথে চালিত করেছে৷ শুধু ক্ষমতার ফল ভোগ করে দিল্লিতে সোনার প্রাসাদে থেকেছে৷"

    Published by:Subhapam Saha
    First published: