মোদি সরকার দেশে বেকারত্ব তৈরি করেছে, বনধ সমর্থকদের স্যালুট জানিয়ে রাহুলের ট্যুইট

মোদি সরকার দেশে বেকারত্ব তৈরি করেছে, বনধ সমর্থকদের স্যালুট জানিয়ে রাহুলের ট্যুইট

বেহাল অর্থনীতি, বেসরকারিকরণ, বিলগ্নিকরণ-সহ একাধিক কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: CAA, NRC, NPR প্রত্যাহার সহ একাধিক দাবিতে দেশজুড়ে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ১৭ শ্রমিক সংগঠন। বুধবার দেশব্যাপী ছাত্র ধর্মঘটেরও ডাক দেওয়া হয়েছে। ধর্মঘটে সামিল কংগ্রেসও। বেহাল অর্থনীতি, বেসরকারিকরণ, বিলগ্নিকরণ-সহ একাধিক কেন্দ্রীয় নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে।

এদিন বনধকে সমর্থন জানিয়ে রাহুল গান্ধি ট্যুইট করেন,‘মোদি সরকার জনবিরোধী ৷ শ্রমিক বিরোধী নীতির জেরে এই সরকার দেশের বিপুল বেকারত্ব তৈরি করেছে ৷ দুর্বল হয়েছে পিএসইউ ক্ষেত্র ৷ এর মাধ্যমে মোদি তার পুঁজিবাদি বন্ধুদের কাছে পিএসইউ বিক্রি করছে ৷ আজ প্রায় ২৫ কোটি শ্রমিক এর প্রতিবাদে দেশজুড়ে ভারত বনধের ডাক দিয়েছে ৷ আমি তাদের স্যালুট জানায় ৷’

বিভিন্ন কৃষক ও শ্রমিক সংগঠনের ডাকে ভারত ধর্মঘট। সামিল বাম - কংগ্রেসও। এরাজ্যে এই ধর্মঘট নিয়ে একযোগে ঝাঁপিয়েছে বাম-কংগ্রেস। ২১-শের বিধানসভায় জোটের আগে আরও এক স্টেজ রিহার্সাল। নাগরিকত্ব আইন - এনআরসি বিরোধিতায় একসঙ্গে রাস্তায় নামা হয়েছে। এবার সাধারণ ধর্মঘট সফল করতে একযোগে লড়াই। বুধবারের লড়াই দু-দলের কাছেই রাজনৈতিক ভাবে তাৎপর্যপূর্ণ।

ধর্মঘটের অ্যাজেন্ডাকে সমর্থন করলেও বনধ বিরোধী অবস্থানে অনড় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর যুক্তি, দাবি আদায়ে লাগাতার আন্দোলন চলবে। তবে আর্থিক মন্দার মধ্যে ধর্মঘট সমর্থন করা সম্ভব নয়। রাজ্যকে সচল রাখতে যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर