• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • দলীয় সংহতি মহড়ায় প্রেসিডেন্ট হিসেবে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন রাহুল গান্ধি

দলীয় সংহতি মহড়ায় প্রেসিডেন্ট হিসেবে ফেরার ইঙ্গিত দিলেন রাহুল গান্ধি

আর পেছনে ফিরে দেখা নয়। সামনে তাকাতে হবে। দলের মধ্যে বিরোধ আছে সেটা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু সবকিছু ভুলে দলের জন্য কাজ করতে হবে।

আর পেছনে ফিরে দেখা নয়। সামনে তাকাতে হবে। দলের মধ্যে বিরোধ আছে সেটা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু সবকিছু ভুলে দলের জন্য কাজ করতে হবে।

আর পেছনে ফিরে দেখা নয়। সামনে তাকাতে হবে। দলের মধ্যে বিরোধ আছে সেটা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু সবকিছু ভুলে দলের জন্য কাজ করতে হবে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: আর পেছনে ফিরে দেখা নয়। সামনে তাকাতে হবে। দলের মধ্যে বিরোধ আছে সেটা অস্বাভাবিক নয়। কিন্তু সবকিছু ভুলে দলের জন্য কাজ করতে হবে। দলের অভ্যন্তরে থাকা অসন্তোষ নিরাময় করতে হবে। শনিবার সোনিয়া গান্ধির বাসভবনে কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে আবার ফিরে আসার ইঙ্গিত দিলেন রাহুল গান্ধি। কোভিড মহামারীর কারণে বেশ কয়েক মাস পর সোনিয়া শীর্ষ নেতাদের নিয়ে একটি বৈঠক ডেকেছিলেন। অসন্তুষ্ট নেতাদের মধ্যেও সাতজন হাজির ছিলেন সেখানে। রাহুল, প্রিয়াঙ্কা সহ মোট উনিশজন নেতা উপস্থিত ছিলেন। বেশিরভাগ মত রাহুল দলকে নেতৃত্ব দিক। যদিও কিছু সূত্র বলছে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি, পাশাপাশি আগামী দিনগুলোতে আরও সভা হবে।

    দলনেত্রী জানিয়েছিলেন, "আমরা সকলেই একটি পরিবারের মত, প্রত্যেককে এক সঙ্গে লড়াই করে দলকে শক্তিশালী করতে হবে"। শোনা যাচ্ছে নেত্রীর এই আবেদনের পর বিরোধী মত পোষণকারী নেতারাও অনেকাংশে নিজেদের মত পাল্টেছেন। রাহুল জানিয়েছিলেন দল তাঁকে যে দায়িত্ব দিক,তা তিনি পালন করবেন। তাঁকে যখন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নিতে বলা হয়, তিনি জানান ব্যাপারটি নির্বাচন প্রক্রিয়ার ওপর ছেড়ে দেওয়া উচিত। সিনিয়র লিডার এ কে অ্যান্টনি থেকে শুরু করে বিবেক তানখা পার্টির প্রধান হিসেবে রাহুলকেই চান। বৈঠকে উপস্থিত অসন্তুষ্ট নেতারা কংগ্রেস নেতৃত্বের প্রতি আস্থা প্রকাশ করে জানিয়েছেন দলীয় আদর্শ এবং সংহতির প্রতি তাঁদের বিশ্বাস রয়েছে। এছাড়াও সোনিয়া গান্ধি বিজেপিকে পরাজিত করার কৌশল হিসেবে চিন্তন শিবির আয়োজন করার কথাও জানিয়েছিলেন। তাতে মোদি সরকারের ব্যর্থতা সম্পর্কে মানুষকে জানানো হবে। দীর্ঘ পাঁচ ঘন্টা ধরে চলে এই বৈঠক। মূল উদ্দেশ্য বিভেদ ভুলে এক ছাতার তলায় আসা। পবন বনসাল জানিয়েছিলেন দলের বেশির ভাগ নেতাই মনে করেন নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য কংগ্রেসের সঠিক মুখ রাহুল গান্ধি। যদিও এই ভাবনার বিপক্ষেও কেউ কেউ রয়েছেন। বিজেপিকে হারাতে হলে এক হওয়া ছাড়া আর দ্বিতীয় কোন রাস্তা নেই এবং রাহুল ছাড়া অন্য মুখ নেই, সে ব্যাপারে মোটামুটি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছে কংগ্রেস হাইকমান্ড।

    Published by:Akash Misra
    First published: