মিথ্যে, বিদ্বেষমূলক প্রচারের সঙ্গে আপোস নয়, ফেসবুককে চিঠি নিয়ে দাবি রাহুলের

মিথ্যে, বিদ্বেষমূলক প্রচারের সঙ্গে আপোস নয়, ফেসবুককে চিঠি নিয়ে দাবি রাহুলের
রাহুল গান্ধি৷

ফেসবুক অবশ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্টের যাবতীয় অভিযোগই অস্বীকার করেছে৷

  • Share this:
    #দিল্লি: মিথ্যে খবর এবং বিদ্বেষমূলক প্রচার ছড়াতে ভারতে কীভাবে সাহায্য করেছে ফেসবুক, তার পর্দাফাঁস হয়েছে৷ এমনই দাবি করলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি৷ ভারতের নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় হস্তক্ষেপ করছে ফেসবুক, এমন অভিযোগ তুলে এ দিনই ফেসবুক সিইও মার্ক জুকারবার্গকে চিঠি দিয়েছে কংগ্রেস৷ কংগ্রেসের তরফে যে চিঠি মার্ক জুকারবার্গকে পাঠানো হয়েছে, সেটি ট্যুইটারে পোস্ট করেছেন রাহুল গান্ধি৷ সঙ্গে তিনি দাবি করেছেন, 'কঠোর সংঘর্ষের পর যে গণতান্ত্রিক অধিকার আমরা অর্জন করেছি, পক্ষপাত, মিথ্যে খবর আর বিদ্বেষমূলক প্রচারের মাধ্যমে তার সঙ্গে কোনও রকম আপোষ করতে দেব না৷ কীভাবে ফেসবুক এই ধরনের মিথ্যে প্রচার ও বিদ্বেষ ছড়িয়ে দেওয়ার কাজ করেছে, তা ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল প্রকাশ্যে এনেছে, এ নিয়ে প্রত্যেক ভারতীয়ের প্রশ্ন তোলা উচিত৷'কংগ্রেসের সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল জুকারবার্গকে এই চিঠি লিখেছেন৷ প্রসঙ্গত মার্কিন সংবাদমাধ্যম দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়, বিদ্বেষমূলক পোস্ট করলেও বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ করে না ফেসবুক৷ এই রিপোর্টকে কেন্দ্র করেই কথার লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়ে কংগ্রেস এবং বিজেপি নেতৃত্ব৷ রাহুল গান্ধি অভিযোগ করেন, ভারতে বিজেপি এবং আরএসএস যে ফেসবুককে নিয়ন্ত্রণ করে, এটা তারই প্রমাণ৷ফেসবুক অবশ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্টের যাবতীয় অভিযোগই অস্বীকার করেছে৷ সংস্থার তরফে বিবৃতি দিয়ে দাবি করা হয়েছে, গোটা বিশ্বেই বিদ্বেষমূলক প্রচারের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ করে সংস্থা৷ সেক্ষেত্রে কোনও রাজনৈতিক রং দেখা হয়না বলেও দাবি ফেসবুকের৷ ভারতেও এই নীতি অনুসরণ করা হয় বলেই দাবি ফেসবুকের৷
    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: