ইতিবাচক থাকার নামে মিথ্যে প্রচার! মোদি সরকারকে তীব্র আক্রমণ রাহুল, প্রশান্ত কিশোরের

মোদি সরকারকে তীব্র আক্রমণ রাহুল গান্ধি, প্রশান্ত কিশোরের৷

ভোট কুশলী এবং মোদি সরকারের অন্যতম সমালোচক প্রশান্ত কিশোরের মতে, ইতিবাচক থাকার নামে সরকারের সমর্থনে এই প্রচার বিরক্তিকর৷

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: দেশে ভয়াবহ রূপ নিয়েছে করোনা৷ নদীতে ভাসছে শব৷ অক্সিজেনের অভাবে হাসপাতালে প্রাণ যাচ্ছে রোগীদের৷ আর এই পরিস্থিতিতে দেশে এবং দেশের বাইরে ইতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরি করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ বাস্তব পরিস্থিতি থেকে সরকারের এই নজর ঘুরিয়ে দেওয়ার চেষ্টার বিরুদ্ধে এবার একসঙ্গে সরব হলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি এবং ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর৷

    ট্যুইটারে রাহুল গান্ধি লিখেছেন, 'যে সমস্ত পরিবার, স্বাস্থ্যকর্মীরা নিজেদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন, অক্সিজেন, হাসপাতাল, ওষুধের অভাবে হয়রান হচ্ছেন, এই ইতিবাচক থাকার মিথ্যে আশ্বাসটা তাঁদের প্রতি পরিহাস মাত্র৷ কারও মাথা বালিতে গুঁজে দেওয়াটা ইতিবাচক থাকা নয়, এটা আমাদের নাগরিকদের প্রতি বিশ্বাসঘাতকতা৷'

    আবার ভোট কুশলী এবং মোদি সরকারের অন্যতম সমালোচক প্রশান্ত কিশোরের মতে, ইতিবাচক থাকার নামে সরকারের সমর্থনে এই প্রচার বিরক্তিকর৷ তিনি ট্যুইটারে লিখেছেন, 'চারপাশে যখন এমন বিপর্যয় নেমে আসছে, গোটা দেশ শোকে মূহ্যমান হয়ে রয়েছে, তখন ইতিবাচক থাকার নামে মিথ্যাচার এবং আত্মপ্রচার চালিয়ে যাওয়ার এই চেষ্টা বিরক্তিকর৷'

    করোনার দ্বিতীয় ধাক্কা সামাল দিতে মোদি সরকার চরম ব্যর্থ বলে শুধু দেশের মধ্যে নয়, বিদেশেও সমালোচনা শুরু হয়েছে৷ সূত্রের খবর, এই সমালোচনার পাল্টা সরকারের পক্ষে প্রচারের কৌশল নিয়েছে মোদি সরকার, বিজেপি এবং আরএসএস৷ তার পরেই কেন্দ্রীয় সরকার এবং বিজেপি-র এই কৌশলকে আক্রমণের পথে হাঁটলেন রাহুল গান্ধি এবং প্রশান্ত কিশোর৷

    এনডিটিভি-র খবর অনুযায়ী, গত সপ্তাহে কেন্দ্রীয় সরকারের জয়েন্ট সেক্রেটারি পদমর্যাদার আধিকারিকদের একটি কর্মশালায় ডাকা হয়েছিল৷ সেখানে কীভাবে সরকারের ইতিবাচক কাজকর্মের প্রচার আরও বেশি করে ছড়িয়ে দিতে হবে, সেই সংক্রান্ত পরামর্শ দেওয়া হয় ওই আধিকারিকদের৷ এর পাশাপাশি অক্সিজেন এক্সপ্রেস চালানো সহ সংবাদমাধ্যমে সরকারের ইতিবাচক কাজের বিভিন্ন প্রতিবেদনও ট্যুইট করতে শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন দফতর৷

    Published by:Debamoy Ghosh
    First published: