• Home
  • »
  • News
  • »
  • national
  • »
  • ১১,৩০০ কোটি টাকার প্রতারণা, কীভাবে ঘটল ভারতীয় ব্যাঙ্কিং পরিষেবায় সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি?

১১,৩০০ কোটি টাকার প্রতারণা, কীভাবে ঘটল ভারতীয় ব্যাঙ্কিং পরিষেবায় সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি?

File Photo

File Photo

পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে প্রায় ১১,৩০০ কোটি টাকার প্রতারণা। অভিযুক্ত ধনকুবের হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদি, তাঁর স্ত্রী অমি,ভাই নীশল ও আত্মীয় মেহুল চকসি।

  • Share this:

    #মুম্বই: পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে প্রায় ১১,৩০০ কোটি টাকার প্রতারণা। অভিযুক্ত ধনকুবের হিরে ব্যবসায়ী নীরব মোদি, তাঁর স্ত্রী অমি,ভাই নীশল ও আত্মীয় মেহুল চকসি। প্রতারণার অঙ্ক ব্যাঙ্কের মোট পুঁজির এক তৃতীয়াংশ। কিন্তু কীভাবে ঘটল ভারতীয় ব্যাঙ্কিং পরিষেবায় সবচেয়ে বড় কেলেঙ্কারি? আর কীভাবেই তা প্রকাশ্যে এল? কেঁচো খুড়তে বেরিয়ে আসছে একের পর এক কেউটে।

    ২০১১ সালে হংকং থেকে হিরে আমদানির পরিকল্পনা ছিল ব্যবসায়ী নীরব মোদির। এজন্য নিয়মকানুন না মেনেই মুম্বইয়ে পঞ্জাব ন্যাশানাল ব্যাঙ্কের ব্র্যাডি হাউস শাখা থেকে ঋণের গ্যারান্টি হাতিয়ে নেওয়া হয়। পিএনবির দুই কর্তা ও কয়েকজন কর্মচারির যোগসাজশে পিএনবি থেকে লেটার অব আন্ডারটেকিং যোগাড় করে নীরব মোদির সংস্থা। এক্ষেত্রে ঋণের টাকা মেটানো না হলে তার দায়িত্ব ব্যাঙ্কের। । গত মাসে এই বিষয়টি পিএনবি-র নজরে আসে। ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের প্রাথমিক ধারণা ছিল কেলেঙ্কারির অঙ্ক প্রায় ২৮০ কোটি টাকা। কিন্তু মঙ্গলবার পিএনবি জানিয়েছে,প্রায় সাড়ে এগারো হাজার কোটি টাকার জালিয়াতির শিকার তারা।

    এবছর জানুয়ারি মাসে বিদেশ থেকে হিরে কেনার জন্য ফের পিএনবির দ্বারস্থ হয় নীরব মোদির সংস্থা। নগদ বন্ধক সহ ঋণের জন্য প্রয়োজনীয় নথি পেশের দাবি করে পিএনবি। কিন্তু নীরব মোদির সংস্থা ফায়ারস্টার ডায়মন্ড জানায়,অতীতে নগদ বন্ধক ছাড়া ঋণ আগেও পেয়েছে তারা। তখনই টনক নড়ে পিএনবি-র। তদন্তে উঠে আসে মুম্বইে ব্যাঙ্কের ব্র্যাডি হাউস শাখার দুই কর্তা গোকুলনাথ শেট্টি ও মনোজ খারাট নিয়ম ভেঙে ঋণের গ্যারান্টি ফায়ারস্টার ডায়মন্ডকে পাইয়ে দিয়েছেন। বিশাল অঙ্কের প্রতারণার শিকার হওয়ার পর একটি চিঠিতে অন্যান্য ব্যাঙ্ককেও সাবধান করেছে পিএনবি। পিএনবি-র ঋণের গ্যারান্টির সাহায্যে ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক, এলাহাবাদ ব্যাঙ্ক এবং অ্যাক্সিস ব্যাঙ্ক থেকেও ঋণ নিয়েছে নীরব মোদির সংস্থা। এই কেলেঙ্কারির কথা অঙ্ক সামনে আসতেই ধস নেমেছে পিএনবি-র শেয়ারে। দু-দিনে শেয়ারের দাম পড়েছে প্রায় ১৭ শতাংশ। প্রায় চার হাজার কোটি টাকা ক্ষতির সম্মুখীন শেয়ার হোল্ডাররা। পিএনবি কেলেঙ্কারিতে নীরব মোদি ছাড়াও নাম জড়িয়েছে তাঁর স্ত্রী অমি, ভাই নীশল এবং আত্মীয় মেহুল চকসির।

    First published: