অশান্তির জেরে পাহাড়বাসী বাঙালির পুজো সেলিব্রেশনে কাট-ছাট

অশান্তির জেরে পাহাড়বাসী বাঙালির পুজো সেলিব্রেশনে কাট-ছাট

পাহাড়ে অশান্তি। থাবা বসিয়েছে পাহাড়বাসী বাঙালির পুজো সেলিব্রেশনেও।

  • Share this:

#দার্জিলিং: পাহাড়ে অশান্তি। থাবা বসিয়েছে পাহাড়বাসী বাঙালির পুজো সেলিব্রেশনেও। দার্জিলিঙের বড় পুজোগুলোর মধ্যে অন্যতম দার্জিলিং বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশনের পুজো। পুজোর বাজেট এক ধাক্কায় কমেছে অনেকটাই। বাদ দিতে হয়েছে অনেক জাঁক-জমক, অলোকসজ্জা। তবে উদ্যোক্তারা আশাবাদী, পুজো মিটবে ভালোয় ভালোয়।

দুর্গার আরাধনায় প্রস্তুতি সারছে গোটা বাংলা। কিন্তু মন খারাপ পাহাড়ের। কারণটা সহজেই বলে দেওয়া যায়। কিন্তু গতবার ছবিটা ছিল একেবারে আলাদা। অন্যদের মতোই জাঁকজমক, আলোকসজ্জা, হইহুল্লোড়ে মাততেন পাহাড়বাসীরা। তবে এবারের পরিস্থিতি আলাদা।

প্রায় ১০০ বছরের পুরনো পুজো দার্জিলিং বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশনের। প্রাচীন-রীতিনীতি মেনে বৈষ্ণব মতে পুজো হয়। তবে এবার পাহাড়ের রাজনৈতিক পরিস্থিতির জেরে ধাক্কা খেয়েছে তাদের পুজো প্রস্তুতি।

যেমনি পুজোর আয়োজনে কাট-ছাট। তেমনি বাদ দিতে হয়েছে আরও অনেক আয়োজন। পুজো উপলক্ষে আগের বছরও সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী - এই তিনটে দিন প্রায় ৪০০ দর্শনার্থী ভোগ পেয়েছিলেন। এবার কী হবে? সেই নিয়ে দ্বিধায় উদ্যোক্তারা। এখানকার ঠাকুর টয়ট্রেনে বিসর্জন হয়। এবার টয়ট্রেন না চলায় বাদ দিতে হয়েছে সেই অনুষ্ঠানও।

৩৬ বছর আগে সুবাস ঘিসিংদের আন্দোলন সামলে পুজো হয়েছিল।এবারও পারবেন। আশাবাদী উদ্যোক্তারা।

First published: 01:13:34 PM Sep 16, 2017
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर