দেশ

corona virus btn
corona virus btn
Loading

গুরু নানকের জন্মদিন, বিক্ষোভের মাঝেই পুলিশকে প্রসাদ খাওয়ালেন কৃষকরা

গুরু নানকের জন্মদিন, বিক্ষোভের মাঝেই পুলিশকে প্রসাদ খাওয়ালেন কৃষকরা
পুলিশকর্মীদের প্রসাদ খাওয়াচ্ছেন কৃষকরা৷ Photo-ANI

কৃষকরা সরকারকে শর্ত দিয়েছেন, তাঁদেরকে যন্তর মন্তর অথবা রামলীলা ময়দানে বিক্ষোভের অনুমতি দিতে হবে৷

  • Share this:

#দিল্লি: উপলক্ষ গুরু নানকের জন্মদিন৷ তাই বিক্ষোভ অবস্থানে বসেই কীর্তন গাইলেন পঞ্জাব, হরিয়ানার শিখ সম্প্রদায়ের কৃষকরা৷ হল প্রার্থনা, এমন কি যে পুলিশ বাহিনী গত কয়েকদিন পাঁচ দিন ধরে তাঁদের সঙ্গে বার বার  দ সংঘাতে জড়িয়েছে, তাঁদেরকেও প্রসাদ খাওয়ালেন কৃষকরা৷ সবমিলিয়ে সোমবার সকাল থেকে সম্পূর্ণ বদলে গিয়েছিল দিল্লি-হরিয়ানা সীমান্তের সিংঘুর ছবিটা৷ তবে এসবের মধ্যেও নিজেদের অবস্থান থেকে সরছেন না কৃষকরা৷ দিল্লিতে প্রবেশ এবং সরকারের সঙ্গে নিঃশর্ত আলোচনার দাবিতে অনড় তাঁরা৷

কৃষকরা সরকারকে শর্ত দিয়েছেন, তাঁদেরকে যন্তর মন্তর অথবা রামলীলা ময়দানে বিক্ষোভের অনুমতি দিতে হবে৷ কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার দিল্লির বুরারিতে যাওয়ার প্রস্তাব দিয়েছে বিক্ষোভকারীদের৷ কিন্তু সেই শর্তে রাজি নন কৃষকরা৷ গত পাঁচ দিন ধরে দিল্লি হরিয়ানা সীমান্তে অবস্থান করছেন কৃষকরা৷ দিল্লির সবকটি প্রবেশ পথ অবরুদ্ধ করার হুমকিও দিয়েছেন তাঁরা৷ গত কয়েকদিনে পুলিশের সঙ্গে কৃষকদের সংঘাতে বার বার উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে পরিস্থিতি৷ কখনও টিয়ার গ্যাস ফাটিয়ে কখনও আবার জল কামানের ব্যবহার করে কৃষকদের আটকানোর চেষ্টা করেছে পুলিশ৷ কেন্দ্রীয় সরকার এবং নতুন কৃষি আইনের বিরুদ্ধে পাল্টা স্লোগান দিয়েছেন কৃষকরাও৷ কিন্তু সোমবারের ছবিটা ছিল সম্পূর্ণ অন্যরকম৷ গুরু নানকের ৫০১ তম জন্মবার্ষিকীতে স্লোগানের পরিবর্তে বিক্ষোভকারী কৃষকদের গলায় শোনা যায় কীর্তন এবং গুরু নানকের বিভিন্ন বাণী৷

এ সবের মধ্যেই কৃষকরা জানিয়ে দিয়েছেন, নতুন কৃষি আইনগুলি বাতিল না করা পর্যন্ত টিকরি এবং সিংঘু সীমান্ত অবরুদ্ধ করেই রাখবেন তাঁরা৷ বুরারিতে নিয়ে গিয়ে সরকার আসলে তাঁদের বিক্ষোভকে দমিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করছে বলেও অভিযোগ কৃষকদের৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আলোচনার প্রস্তাবও এই কারণেই খারিজ করে দিয়েছেন কৃষকরা৷ অন্যদিকে উত্তর প্রদেশ থেকে আসা কৃষকরা গাজিপুর সীমান্ত অবরুদ্ধ করে রেখেছেন৷

প্রবল ঠান্ডার মধ্যে বিক্ষোভকারী কৃষকদের উপরে জল কামানের ব্যবহার নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে হরিয়ানা পুলিশের সমালোচনা করা হয়েছে৷ পুলিশের আগ্রাসন নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে৷ লাঠি উঁচিয়ে পুলিশ কৃষকদের তাড়া করছে, সেই ছবিও সামনে এসেছে৷ এ দিন সেই পুলিশকেই প্রসাদ খাইয়ে অহিংস পথেই যেন তার জবাব দিলেন কৃষকরা৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: November 30, 2020, 4:55 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर